টক্সিক সম্পর্কে কষ্ট পাচ্ছে সন্তান, আপনি কীভাবে সাহায্য করবেন?

টক্সিক সম্পর্কে কষ্ট পাচ্ছে সন্তান, আপনি কীভাবে সাহায্য করবেন?

জীবনসঙ্গী নির্বাচন হয়তো সবথেকে কঠিন কাজের মধ্যে একটি কাজ। জীবনসঙ্গী নির্বাচন হয়তো আরও পরের বিষয়। তার আগে প্রত্যেকের জীবনেই প্রেম আসে। কোনও সম বা বিপরীত লিঙ্গের মানুষের প্রতি আমরা আকৃষ্ট হই ও তাঁদের প্রেমে পড়ি। এর পরেই সম্পর্কের সূত্রপাত। আসলে সম্পর্কের বিষয়টি কেমন হওয়া উচিত, তার নির্দিষ্ট কোনও সংজ্ঞা অবশ্য়ই নেই। কিন্তু একটা সম্পর্ক যেন কখনওই সেই মানুষটির যন্ত্রণার কারণ না হয়ে ওঠে (get out of an abusive relationship)। 

একজন বাবা বা মা হিসেবে এই চিন্তা সব সময়ই আপনার মধ্যে থাকে। আপনার সন্তান কি সঠিক মানুষ নির্বাচন করল? কারণ, সঠিক মানুষ নির্বাচন না করতে পারলে আপনার সন্তানের জীবন যে খুব কষ্টের হতে পারে আপনি তা জানেন (get out of an abusive relationship)।

সন্তান সব সময় কি স্ট্রেসে থাকে?

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কৈশোর বা টিনেজেই ভুল মানুষের প্রতি আকর্ষণ তৈরি হয়। সেই সময় সঠিক মানুষ নির্বাচনের মতো বুদ্ধি ও বোধ না থাকার কারণেই বেশিরভাগ সময়ে ভুল মানুষ বেছে ফেলেন অনেকেই। তারপরই শুরু হয় সম্পর্কের টানা পোড়েন। এরপর সম্পর্কে থাকা মানুষটি সাফার করতে শুরু করেন। এইরকম ঘটনা হতে পারে জেনেই বাবা ও মায়েরা অনেক সময় অতিরিক্ত সতর্ক থাকেন। ছেলে বা মেয়েকে অচেনা কারও সঙ্গে মিশতে দিতে চান না। কারণ, তাঁর সন্তান ভুল মানুষের সঙ্গে এলে সে সাফার করতে পারে এই ভয় থেকে যায় অনেক পেরেন্টসের (get out of an abusive relationship)মধ্যেই।

কোনও অত্যাচারের শিকার নয় তো?

আপনার সন্তানও কি এরকম কোনও টক্সিক সম্পর্কে রয়েছে? তাঁর ভুলটা আপনি বুঝতে পারছেন, কিন্তু তাঁকে সাবধান করতে পারছেন না? এরকম অন্তর্দন্দ্বে ভুগবেন না। আপনার সন্তানের সঙ্গে ভাল ভাবে কথা বলুন। আপনার সন্তানের থেকে কাছের মানুষ আপনিই। তাকে বুঝিয়ে বলার দায়িত্বও আপনার।

সন্তান কার সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছে?

টক্সিক সম্পর্কে সন্তান থাকলে সাফার করবে। আপনিও সেটি বুঝতে পারবেন। আপনার সন্তানের পার্টনার কি আপনার পরিচিত? যদি পরিচিত হয় তবে দুজনের সঙ্গেই আপনি বসে কথা বলতে পারেন। কিন্তু নিজে থেকে কথা বলার জন্য জোর করবেন না। প্রথমে আপনার সন্তানকে প্রশ্ন করবেন, তারপর দুজনের সঙ্গে কথা বলবেন। অভিভাবক হিসেবে আপনার সন্তানের সমস্যায় পাশে থাকা আপনার কর্তব্য(get out of an abusive relationship)।

সন্তানের সঙ্গে কথা বলুন

সন্তানকে বুঝিয়ে বলুন

আপনার সন্তানের টক্সিক সম্পর্কের কথা আপনি ইতিমধ্য়েই জানেন? প্রায়ই আপনার সন্তানকে ফোনে ঝগড়া করতে দেখেন? সে কি প্রায়ই বিমর্ষ থাকে? সময় হয়েছে তার সঙ্গে কথা বলার। আপনার সন্তানের সঙ্গে কথা বলুন। প্রথমেই সে আপনাকে (parents) তার সমস্যার কথা বলতে চাইবে না। কিন্তু আপনাকে ধৈর্য্য রাখতে হবে। ধৈর্য্য রেখে তার সঙ্গে কথা বলুন। তাকে প্রশ্ন করুন, কোথায় সমস্যা হচ্ছে?

Beauty

WIPEOUT SANITIZING SPRAY

INR 199 AT MyGlamm

হয়তো আপনার সন্তানও আপনার সঙ্গে কথা বলতে চায়

আপনি বারবার সন্তানের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে নিজেকে গুটিয়ে নিচ্ছেন। ভাবছেন তার ব্যক্তিগত জীবনে আপনার হঠাৎ ঢুকে পড়া কি ঠিক হবে? এই সব নিয়ে ভাবছেন। অথচ আপনি জানেন না, সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার জন্য আপনার সন্তান আপনার সাহায্য় চাইছে। তাই সেই বিষয়ে সতর্ক থাকুন। যদি সন্তান কোনও কথা বলতে চায়, তবে তার কথা শুনুন। সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করুন।

তাকে ভরসা দিন

তাকে ভরসা যোগান আপনি তার পাশে আছেন

সরাসরি সন্তানের সঙ্গে কথা না বলতে পারলেও আপনি তাকে পরোক্ষভাবে বুঝিয়ে দিন আপনি তার পাশে আছেন। কোনওভাবেই যেন আপনার সন্তান মনে না করে সে একা। সে যখন একটি টক্সিক সম্পর্কে সাফার করছে, সেই যন্ত্রণা আপনিও ভাগ করে নিতে চান। আপনি সন্তানের যন্ত্রণার অবসান চান। সেটি তাকে বুঝিয়ে দিন। কোনও সমস্যা হলেই যেন সে তার বাবা, মা (parents)-র কাছে প্রথম আসে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!