শ্বশুরবাড়ি গিয়ে সবচেয়ে বেশি মনে পড়ছে মা-কে? মনের কথা বলেই ফেলুন তাঁকে

শ্বশুরবাড়ি গিয়ে সবচেয়ে বেশি মনে পড়ছে মা-কে? in bengali

ছোটবেলায় যখন শিশুরা কথা বলতে শেখে, এটাই তারা প্রথম বলে, মা। এই ডাক শোনার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন সবাই। এই মায়ের সঙ্গে আস্তে-আস্তে বড় হয়ে ওঠা। মায়ের কাছে যত আবদার, মায়ের উপর যত রাগ দেখানো। আবার এই মাকে ছেড়েই অন্য বাড়িতে চলে যাওয়া বিয়ের পর। বিয়ে হয়ে গেলেই মনে হয়, কত কথা বলার ছিল মাকে, বলা হল না। প্রত্যেক মেয়েই তাই শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে মাকে সবচেয়ে বেশি মিস (write a letter to your mom after marriage expressing untold feelings) করে। আর দেরি কেন করছেন? তিনি তো পর নয়, তিনি যে আপনার সবচেয়ে আপন। না বলা মনের কথাগুলো আজই লিখে জানান মাকে।

১। অসুখ-বিসুখে মায়ের হাতের ছোঁয়া

ছোটবেলার বেস্ট ফ্রেন্ড মা

যখন ছোট ছিলেন তখন থেকে বড় হওয়া পর্যন্ত, আপনার সব অসুখে মা আপনার পাশে ছায়ার মতো থেকেছেন। সামান্য জ্বর হোক বা পেটের সমস্যা, দুশ্চিন্তায় আপনার মায়ের ঘুম আসেনি। শ্বশুরবাড়ি গিয়ে যখন ঠান্ডা লেগে সর্দি হয়েছে বা মাথার যন্ত্রণা আপনাকে কাবু করে দিয়েছে, মনে পড়ে গেছে মায়ের কথা। মায়ের অসুখ হলে আপনিও কিন্তু দূরে থাকবেন না। ছুটে চলে আসুন মায়ের কাছে (write a letter to your mom after marriage expressing untold feelings), তাঁর হাত ধরে বলুন পাশে আছি তোমার।

২। ঘুম থেকে মা-ই তো ডেকে তুলতেন

স্কুল যেতেন মা ডেকে দিতেন, কলেজ যেতেন মা ডেকে দিতেন। ছুটির দিনে বেলা বারোটা পর্যন্ত ঘুমতেন, কেউ কিছু বলত না। এখন আর সেটা হচ্ছে না। উল্টে দেরি করে উঠলে টুকটাক মন্তব্যও শুনতে হচ্ছে। মাকে এখনই কল করুন, বলুন যে আবদারগুলো করে আপনি মাকে বিব্রত করে এসেছেন মনে পড়ছে সেসব কথা (write a letter to your mom after marriage expressing untold feelings), আর তাই একদিন ভোরবেলা উঠে মাকে সারপ্রাইজ দিতে চলে যান দেখি! 

৩। মায়ের হাতের রান্নার স্বাদ

একবাক্যে এটা সবাই স্বীকার করবেন যে আপনার মা হচ্ছেন এই বিশ্বের সবচেয়ে সেরা কুক। তাঁর হাতের রান্নার জাস্ট জবাব নেই। মন খুলে মায়ের হাতের রান্নার প্রশংসা করেছেন কখনও? করেননি। কারণ তিনি আপনাকে রোজ রেঁধে বেড়ে খাইয়েছেন। আর সেটার মর্ম আপনি বুঝেছেন শ্বশুরবাড়ি গিয়ে। যখন আপনার মায়ের হাতের রান্না আপনি মিস (write a letter to your mom after marriage expressing untold feelings) করেছেন। মাকে বলুন তাঁর হাতের সব কটা পদ আপনি চেটেপুটে খেয়েছেন, এই রান্নায় তাঁর স্নেহ মেশানো আছে। 

৪। জিনিসপত্রও তো মা-ই গুছিয়ে রাখতেন

আপনার বইখাতা জামাকাপড় থেকে শুরু করে সাজের জিনিস সব তিনি গুছিয়ে রাখতেন অ্যাদ্দিন। এবার সেই কাজটা আপনাকে নিজের গরজে শ্বশুরবাড়িতে করে নিতে হচ্ছে। আর তখনই মায়ের সেই কথাগুলো মনে পড়ে যাচ্ছে। মা বলতেন, 'একটু গোছাতে শেখ, না হলে পরে বিপদে পড়বি।' খুব একটা দেরি হয়নি। নিজের ঘর গুছিয়ে মাকে (write a letter to your mom after marriage expressing untold feelings) একটা ছবি পাঠিয়ে দিন। 

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!