প্রেম না কেরিয়ার? আপনার কোনটায় বেশি মন দেওয়া উচিত

প্রেম না কেরিয়ার? আপনার কোনটায় বেশি মন দেওয়া উচিত

জীবন অনেক সময় আমাদের অনেক কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দেয়। তখন কী পদক্ষেপ করব সেই নিয়ে আমাদের নানা রকম চিন্তা থেকে যায়। আমারও বুঝে উঠতে পারি না আমাদের ঠিক কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত? মেয়েদের ক্ষেত্রে হয়তো সেই পরিস্থিতি বার বার আসে। বিয়ে করে সংসার করার পরামর্শ দেন বড়রা, এইদিকে আমরা কেরিয়ারে মন দিতে চাই।

নিজের পায়ের তলার মাটি আরও শক্ত করতে চাই। এক সময় চাকরির জন্য অন্য শহরে চলে যেতেও হতে পারে, সেই সময় আপনি কী করবেন? এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়েছে আপনাকে? মানে আপনি চাকরিকে গুরুত্ব দেবেন না আপনার প্রেম (relationship or career)? তাহলে আপনি কী বাছবেন, সম্পর্ক না কেরিয়ার?

চাকরির জন্য সম্পর্কে সমস্যা?

সম্পর্ক না কেরিয়ার?

মেয়েদেরই বেশি এই পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়। ছেলেদের ক্ষেত্রে হয়তো এই সমীকরণ অনেক সহজ। তাঁদের উপর বিয়ের আগে চাকরি পাওয়ার একটা চাপ থাকে। মানে, সামাজিক ব্যবস্থা প্রত্যেকের জীবনের সমীকরণ কত সহজ করে সাজিয়ে দিয়েছে তাই না? এইদিকে ভাবেওনি যে সবাই এই বাঁধা ছকে নাও চলতে পারে। চাকরির পর বিয়ে না করতেও পারে। মেয়েদের প্রায়ই এই পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় যখন প্রশ্ন ওঠে, তুমি প্রেম -কে বেশি গুরুত্ব দেবে না কি কেরিয়ার? আপনাকেও যদি এরকম পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় তবে অবশ্যই ভাববেন, আপনাকেই কষ্ট করে চাকরি পেতে হয়েছে। এখানে আপনার শ্রমটা গুরুত্বপূর্ণ। আপনার কেরিয়ার আপনার ভবিষ্যৎ। সম্পর্ক কিন্তু কালও আপনাকে রোজগার নিয়ে কথা শোনাতে পারে। তাই কোনওরকম সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ভাববেন।

নিজেকে নিয়ে ভাবুন

নিজের কথা ভাববেন সবার আগে

সব সময় মনে রাখবেন আপনার সিদ্ধান্ত যেন আপনাকে কষ্ট না দেয়। আপনি যে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন, আপনার ইচ্ছেকে গুরুত্ব দেবেন। আপনি ভাল থাকলেই কিন্তু আপনার সম্পর্ক ঠিক থাকবে। অন্যের জন্য নিজের ইচ্ছের সঙ্গে কোনওরকম আপোষ নয়।

আপনার কাছের মানুষ আপনার স্বপ্নকে সম্মান করবে

এই বিষয়টি সব সময় মাথায় রাখবেন। আপনার যে আপনজন তিনি আপনার স্বপ্নকে সব সময় সম্মান করবে। কখনওই সম্পর্কের জন্য আপনার কেরিয়ার স্যাক্রিফাইস করতে বলবেন না। যদি তা নয়, তবে আপনার সম্পর্ক নিয়ে আপনার ভাবার প্রয়োজন রয়েছে।

দূরে থাকলেও সম্পর্ক ঝিমিয়ে যায় না

সম্পর্কের বা প্রেমের ভিত হল বিশ্বাস। একে অপরের প্রতি যদি বিশ্বাস অটুট থাকে, তাহলে পৃথিবীর যে প্রান্তেই আপনি থাকুন তার জন্য সম্পর্কে প্রভাব পড়বে না। আপনিও আপনার কেরিয়ার নিয়ে খুশি থাকবেন। দিনের শেষে আপনার সম্পর্কেও সময় দিতে পারবেন। কিন্তু একে অপরের প্রতি ডেডিকেশন যেন কোনওভাবেই কম না হয়। আপনিও ভাল থাকবেন, আপনার সম্পর্কও ঠিক থাকবে। কেরিয়ারের দিকেও (relationship or career)মন দিতে পারবেন।

কাজে সমস্যা তৈরি হচ্ছে?

প্রেম না কেরিয়ার এই প্রশ্ন থাকবে কেন?

সম্পর্ক সম্পর্কের মতো থাকবে। সেই ভাবেই থাকবে। এইদিকেস আপনার কেরিয়ার থাকবে নিজের জায়গায়। প্রত্যেকের জীবনেই প্রতিটা বিষয়ের জন্য সঠিক পরিসর রয়েছে। কোনও ছেলেকে হয়তো এই প্রশ্নের সেভাবে মুখোমুখি হতে হয় না, কিন্তু মেয়েদের হতে হয়। কারণ, সমাজ ঠিক করে দিয়েছে স্যাক্রিফাইস হয়তো মেয়েদেরই বেশি করতে হয়। এইসব প্রচলনকে আর প্রশ্রয় নয়। এই প্রশ্ন উঠলেই তাঁদের যোগ্য জবাব দিন। আপনার পথ নিজে বেছে নিন (relationship or career)।

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!       

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!