শুধুই হেঁশেলে নায় বরং স্বাস্থ্যগুণেও সর্ষের তেলের জুড়ি মেলা ভার!

শুধুই হেঁশেলে নায় বরং স্বাস্থ্যগুণেও সর্ষের তেলের জুড়ি মেলা ভার!

রিফাইন্ড তেল রান্নায় ব্যবহারের চল তো রয়েইছে। সর্ষের তেলের বদলে রিফাইন্ড ভেজেটেবল অয়েল ব্যবহার করেন অনেকই। কিন্তু বাঙালির হেঁশেলে সর্ষের তেলের ঝাঁঝ থাকবে না তা কি আর হতে পারে! হতে পারে না। এখন পুষ্টিবিদরা কিন্তু সর্ষের তেলের গুণ গাইছেন। আর তাই বলে রিফাইন্ড সর্ষের তেল (mustard oil is good for your health) নয়, একদম নন রিফাইন্ড সর্ষের তেল খাওয়ারও পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। 

ঘানি থেকে আনা সর্ষের তেল খুবই ভাল। স্বাস্থ্য এবং ত্বকের জন্যেও ভাল। আবার বিভিন্ন রান্নায় সর্ষের তেল ব্যবহার করলে সেই রান্নার গুণমান বাড়িয়ে দেয়। যেমন, সর্ষে বাটা দিয়ে মাছ রাঁধলে কি সেখানে সর্ষের তেল ব্যবহার (mustard oil is good for your health)করব না। কী বলেন? আসুন নন-রিফাইন্ড সর্ষের তেলের গুণ জেনে নিই।

এই গাছের বীজ থেকেই তৈরি হয় সর্ষের তেল

সর্ষের তেলে আছে ভিটামিন ই

ভিটামিন ই স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভাল। ভিটামিন ই যেমন শরীরে ইমিউনিটি বাড়াতে সাহায্য করে। তাই সর্ষের তেল আপনার শরীরে ইমিউনিটি বাড়াবে। যে কোনও রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করবে। এছাড়াও ভিটামিন ই ত্বক ও চুলের জন্যেও খুব ভাল। চুল ও ত্বক খুব ভাল রাখে (mustard oil is good for your health)।

অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল

সর্ষের তেলে আছে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান। তাই সর্ষের তেল যদি গায়ে মালিশ করা হয়, তবে ত্বকে যে কোনও সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে পারে। এছাড়াও পেশীর শক্তিও বাড়ায় সর্ষের তেল।

রান্নাঘরে ব্যবহৃত হয় সর্ষের তেল

আছে প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড

নন-রিফাইন্ড চেল কোল প্রেসড পদ্ধতিতে তৈরি করা হয়। অর্থাৎ, বীজ থেকে তেল বের করার সময় কোনও রকম তাপমাত্রা প্রয়োগ করা হয় না। তাই তেলের গুণ নষ্ট হয় না। সবই বজায় থাকে। এই ধরনের তেলে স্যাচুরেটেড ফ্যাটের মাত্রা কম। সর্ষের তেলও (mustard oil is good for your health)ঘানিতে বীজ থেকে বের করা হয়। কোনওরকম তাপমাত্রা প্রয়োগ করা হয় না। তাই ভিটামিন ই তো থাকেই। তার সঙ্গে অতি প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড ওমেগা থ্রি ও সিক্স থাকে। যা শরীরের জন্য খুবই ভাল।

সর্ষের তেল হজম শক্তি বাড়ায়

চিকিৎসকরা বলছেন, যাঁরা পেটের সমস্যায় ভোগেন বা যাঁদের হজমে সমস্যা রয়েছে তাঁদের প্রতিদিনের রান্নায় সর্ষের তেল ব্যবহার করা উচিত। কারণ, সর্ষের তেল হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। সর্ষের তেল লিভারের কার্যকারিতা উন্নত করে। একইসঙ্গে এর লিনোলেয়িক ও ওলেয়িক অ্যাসিড প্রদাহ কমায়।

আপনিও ব্যবহার করতে পারেন সর্ষের তেল

হার্টের রোগীকে দিতে পারেন

যাঁরা মনে করেন হার্টের রোগীকে নন-রিফাইন্ড সর্ষের তেল দেওয়া যায় কিনা, তাঁদের জন্য উত্তর হ্যাঁ। অবশ্যই দিতে পারেন। হার্ট ভাল থাকে, তার সঙ্গে কোনওরকম ক্ষতিও হয় না। তবে আপনি চাইলে একবার চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নিতে পারেন।

মা-ঠাকুমারা সর্ষের তেল ছাড়া রান্নার কথা ভাবতেই পারেন না। এছাড়াও আগে দিনগুলোতে বাচ্চাদেরও সর্ষের তেল মালিশের রীতি ছিল। এখনও যদি গ্রামাঞ্চলে যাওয়া যায়, সেখানে বাচ্চাদের সর্ষের তেল মালিশের রীতি দেখা যাবে। এছাড়াও রান্নায় সর্ষের তেল ব্যবহারে রান্নার মান বাড়ানোর পাশাপাশি শরীর স্বাস্থ্যও ভাল রাখে সর্ষের তেল। তাই সর্ষের তেল অবশ্যই ব্যবহার করুন। দেখছেন তো, সর্ষের তেলের গুণ (mustard oil is good for your health)কত!

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!       

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!