পুরনো শাড়ি না পরতে পারছেন না ফেলতে! এই দশটি ইউনিক উপায়ে আপসাইকেল করুন

পুরনো শাড়ি না পরতে পারছেন না ফেলতে! এই দশটি ইউনিক উপায়ে আপসাইকেল করুন in bengali

মা, ঠাকুমা বা দিদিমার শাড়ি উত্তরাধিকার সূত্রে অনেকেই পেয়েছেন। কিন্তু সেসব শাড়ি হয়তো এখন আর পরার মতো অবস্থায় (10 fantastic ways to upcycle your old saree) নেই। অথচ স্মৃতি হয়ে রয়েছে আপনার আলমারিতে। খুব ইচ্ছে করে ব্যবহার করতে, কিন্তু উপায় নেই। না! হয়তো সে শাড়ি আপনি পরতে পারবেন না। কিন্তু নানা ভাবে কাজে লাগাতে পারেন আপনার দৈনন্দিন জীবনে। 

পুরনো শাড়ি রিসাইকেল করার দশটি দারুণ আইডিয়া

১। ধরুন, আপনার আলমারিতে মায়ের বা ঠাকুরমার একটা বালুচরী রয়েছে। অথবা কাশ্মিরী নকশাদার কোনও শাড়ি। যেটা এখন আর পরতে পারবেন না। আপনার ল্যাম্পশেড যদি পুরনো হয়ে গিয়ে থাকে, তা হলে ওই পুরনো শাড়ি কেটেই সুন্দর কভার অবস্থায় (10 fantastic ways to upcycle your old saree) তৈরি করতে পারেন। যা আপনার নিজস্ব ডিজাইন। ইউনিক।

২। পুরনো বেনারসি বা কাঞ্জিভরম কেটে দোপাট্টা অনেক বাঙালিই তৈরি করেন। একরঙা কামিজের সঙ্গে মানাবে ভাল। আর যদি শাড়ির জমি পাতলা হয়ে গিয়ে থাকে, তা হলে র সিল্কের কাপড়ে পুরনো শাড়ির জরির পাড় সেলাই করে নিয়ে দোপাট্টা তৈরি করুন।

৩। সিল্কের যে-কোনও কাপড়ের চারপাশে পুরনো বেনারসির পাড় অবস্থায় (10 fantastic ways to upcycle your old saree) কেটে সেলাই করে নিন। অথবা পুরনো শাড়ির একটা অংশ টেবিলের মাপে গোল বা চৌকো করে কেটে নিয়ে তৈরি করুন টেবিল রানার।

৪। পুরনো জামদানি বা কটন ইক্কত শাড়ি আছে নাকি আপনার? রঙটা হালকা হয়ে গিয়েছে বলে আর পরেন না? লম্বা করে জানলায় ঝুলিয়ে দেখুন তো। কেমন বাহারি পর্দা তৈরি হয়ে যায় পুরনো শাড়ি দিয়ে।

৫। কলমকারি, বুটা প্রিন্টের শাড়ি পুরনো হয়ে গেলে ডি-গ্ল্যাম লুক চলে আসে। তখন সেটা ফেলে না দিয়ে নোটপ্যাড, ফোন বা ল্যাপটপের কভার তৈরি করে ফেলতে পারেন।

৬। বাটিকের কাজের কোনও পুরনো সিল্কের শাড়ি অবস্থায় (10 fantastic ways to upcycle your old saree) থাকলে তা দিয়ে ছোট বটুয়া বা পার্স তৈরি করতে পারেন। জামেওয়ার, পৈঠানির মতো সিল্কের শাড়ি পুরনো হয়ে গেলেও তা দিয়েও বটুয়া তৈরি করা যায়। পার্টি বা বিয়েবাড়ির জন্য মানানসই অ্যাকসেসেরিজ হবে।

৭। রাজস্থানি কাজের মিরর ওয়ার্ক করা কোনও পুরনো শাড়ি কেটে তৈরি করতে পারেন কুশন কভার। পাড়ে আলাদা করে ভেলভেটের ঝালর বসিয়ে নিন কনট্রাস্ট কালারের। এতে আপনার ড্রয়িংরুমের লুক বদলে যাবে

৮। খুব গর্জাস একটা চোলি রয়েছে হয়তো আপনার। কিন্তু একই লেহঙ্গা রিপিট করতে চাইছেন না। পুরনো জামেওয়ার অবস্থায় (10 fantastic ways to upcycle your old saree) সেলাই করিয়ে লেহঙ্গা তৈরি করে ফেলুন। অথবা সাউথ সিল্কের পাড় কেটে নিয়েও তৈরি করতে পারেন লেহঙ্গা।

৯। ধরুন, আপনার সংগ্রহে রয়েছে একটা ফুলকারি সিল্ক অথবা শান্তিনিকেতনি কাঁথা। হতে পারে রয়েছে পাখি, ঝুরি বা ফুল কাঁথার শাড়ি। কিন্তু তা এতটাই পুরনো আর পরতে পারছেন না। আবার ফেলে দিতেও মায়া লাগছে। কোনও চিন্তা নেই। সেই শাড়ি কেটে ভাল করে বাঁধিয়ে ওয়াল পেন্টিং তৈরি করে ফেলুন।

১০। বেগমপুরি বা ধনেখালি পুরনো হয়ে যাওয়ায় রেখে দিয়েছেন নাকি আলমারির নীচের তাকে? বের করে আনুন। দুটো শাড়ি খাটের মাপ অনুযায়ী জুড়ে তৈরি করে নিন বেডকভার। গরমের দিনে বিছানায় পেতে দিন টানটান করে। পুরনো শাড়ি অবস্থায় (10 fantastic ways to upcycle your old saree) এখন আপনার বেডকভার।

মূল ছবি - ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!       

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!