দোল উৎসবে শাড়ি ও সালোয়ারের সঙ্গে এই হ্যান্ড পেন্টেড দুল দারুণ মানাবে!

দোল উৎসবে শাড়ি ও সালোয়ারের সঙ্গে এই হ্যান্ড পেন্টেড দুল দারুণ মানাবে!

দোলের কিন্তু আর হাতে গোনা কয়েকদিনই বাকি। কী পরবেন, কীভাবে সাজবেন, সেইসব নিয়ে নিশ্চয়ই চিন্তাভাবনা আছে। এমন করে সাজগোজ করতে হবে যেন আপনার ত্বকেরও ক্ষতি না হয়, আবার রঙের মধ্যে আপনাকে দেখতেও সুন্দর লাগে। শাড়ি ও সালোয়ার নিয়ে ইতিমধ্যেই আমরা আলোচনা করেছি। আজ অ্যাকসেসরিজ (hand painted earrings) নিয়ে একটু আলোচনা করা যাক।

কী ধরনের দুল আপনার হলুদ শাড়ি বা সাদা সালোয়ারের সঙ্গে বেশ মানাবে, আসুন সেই সব নিয়ে আলোচনা করা যাক। তবে আজ আমাদের নজরে আছে হ্যান্ড পেন্টেড দুল  (hand painted earrings) বা হাতে আঁকা দুল। এই দুল পরার জন্য বেশ কয়েকটি টিপস আবার এই দুলের যত্ন নিয়েও আলোচনা করব আজ।

হ্যান্ড পেন্টেড দুল নিয়ে কয়েকটি তথ্য

এই দুলের প্রধান বিশেষত্ব হল এর সূক্ষ্ম কাজ। কখনও এর গায়ে আঁকা থাকে মুঘল পেন্টিং আবার কখনও দুলের গায়ে রাধা কৃষ্ণের ছবি আঁকা থাকে। যাঁরাই আপনাকে প্রথম দেখবেন, তাঁদের সবার আগেই আপনার দুলের দিকেই প্রথমে চোখ যাবে। তাই এমন করে সাজবেন, যেন অন্য কোনও গয়না যেন আপনার দুলের থেকে আরও বেশি আকর্ষণীয় না হয়ে ওঠে। যেন সবাই এসে আপনাকে প্রশ্ন করেই, "এই দুল  (hand painted earrings) কোথা থেকে কিনেছেন?"

এই দুলের দাম অন্যান্য জাঙ্ক জুয়েলারির চেয়ে একটু বেশি। কারণ, তুলি ধরে এই দুলের গায়ে আঁকতে (hand painted earrings) হয়। তাই অনেক দ্রুত অনেক কানের দুল বানিয়ে ফেলা যায় না। শিল্পী যে দুলের পিছনে বেশি শ্রম দিচ্ছেন, খুব স্বাভাবিক ভাবেই তার দাম একটু বেশি হবে। তবে আপনার কাছে যে দুল থাকবে, সেই একই রকম দুল অন্যজনের কাছে নাও থাকতে পারে। তাই মন পছন্দের ডিজাইন বেছে নিতে হবে আপনাকেই।

কোন পোশাকের সঙ্গে পরবেন

দোলের দিনের উপযুক্ত সাজ হিসেবে এই হ্যান্ড পেন্টেড দুলের (hand painted earrings)জুড়ি মেলা ভার। আপনার সাদা বা হলুদ শাড়ি বা পোশাকের সঙ্গে এই হাতে আঁকা দুল খুবই ভাল মানাবে। তবে খুব ভাল হবে যদি সেই দুলের গায়ে রাধা কৃষ্ণের ছবি আঁকা থাকে। তাহলে আর কীসের অপেক্ষা?

কীভাবে যত্ন নেবেন

  • খুব যত্ন করে হাতে আঁকা হয় এই দুল। তাই ব্যবহার করার সময়েও যত্নশীল হতে হবে আপনাকেই। হ্যান্ড পেন্টেড দুলের (hand painted earrings)আসল সৌন্দর্য হল তার রং। সেই রং যদি উঠে যায়, তা হলে দুলে ঠিকঠাক থাকলেও কোনও লাভ নেই। তাই রং যেন কোনওভাবেই নষ্ট না হয় সেদিকে আপনাকেই লক্ষ্য রাখতে হবে।
  • বৃষ্টির জলে এই দুলের ক্ষতি হতে পারে অর্থাৎ রং উঠে যেতে পারে।
  • অনেক সময় অতিরিক্ত ঘামেও এই জাতীয় দুল নষ্ট হয়ে যেতে পারে। বিশেষ করে যাঁদের অতিরিক্ত বেশি ঘাম হয় বা যাঁদের ঘামে অ্যাসিডের মাত্রা বেশি থাকে তাঁদের দুলে ক্ষতি হতে পারে। তাই আপনি যদি পারেন, তবে কানের আশপাশে অ্যান্টি পার্সপিরেন্ট স্প্রে লাগিয়ে নিতে পারেন। তাহলে সহজেই ঘাম লেগে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশেই কম হয়ে যাবে।
  • এই দুল পরিষ্কার করার সময় খুব কড়া অ্যাসিডিক ফর্মুলা ব্যবহার করবেন না। হাল্কা ভিনিগার বা অল্প গরম জলে তুলো ভিজিয়ে নিয়ে পরিষ্কার করে নিন।

মূল ছবি সৌজন্য - ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!       

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!