দূষণের হাত থেকে চুলকে বাঁচানোর জন্য বেশ কয়েকটি টিপস রইল আপনার জন্য

দূষণের হাত থেকে চুলকে বাঁচানোর জন্য বেশ কয়েকটি টিপস রইল আপনার জন্য

প্রতিদিন যে হারে দূষণের মাত্রা বাড়ছে, আর তাতে চুলের অন্তত যা ক্ষতি হওয়ার তা কিন্তু হচ্ছেই। এখন আপনি ভাবছেন দূষণে চুলের ক্ষতি কীভাবে হয়। আসলে প্রতিদিন গাড়ির ধোঁয়া, ধুলো ও অন্যান্য দূষণের জন্য চুলের যথেষ্ট ক্ষতি হয়। দূষণ এবং ধুলোবালির মাত্রা বাড়ার কারণে স্ক্যাল্পের ক্ষতি তো হচ্ছেই, পাশাপাশি ত্বকের ভিতরে টক্সিক উপাদানের মাত্রাও বাড়ছে। তাই প্রদাহের মাত্রা বেড়ে গিয়ে চুল পড়ছে তারই সঙ্গে ছোট বড় নানা সমস্যাও হচ্ছে। বিশেষ করে দূষিত বায়ুর কারণে খুশকির সমস্যা তো রোজের সঙ্গী হয়ে উঠেছে। তাই এই পরিস্থিতিতে দূষণ থেকে চুল বাঁচিয়ে রাখার (protect hair from pollution) ও চুলের বিশেষ যত্ন নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। আপনাকেও সেই দিকেই লক্ষ্য রাখতে হবে।

নিয়মিত শ্যাম্পু করতে হবে

দূষণ থেকে চুল রক্ষা করার আসল উপায় হল স্ক্যাল্প ও চুলের গোড়া পরিষ্কার রাখা। আর তার জন্যই নিয়মিত শ্য়াম্পু করা প্রয়োজন। মাসে একবার ডিপ ক্লিনজিং করালেও খুব ভাল হয়। আপনি যদি প্রতিদিন বাইরে বের হন তাহলে নিয়মিত শ্যাম্পু করে চুলের গোড়া পরিষ্কার করবেন এবং স্ক্যাল্প পরিষ্কার রাখবেন। অনেক বিশেষজ্ঞ বলেন, প্রতিদিন শ্যাম্পু করলে চুল থেকে প্রাকৃতিক আর্দ্রতা হারিয়ে যায় ও চুল রুক্ষ হয়ে যায়। তার জন্য আপনাকে আপনার স্ক্যাল্পের ধরন বুঝে শ্য়াম্পু কিনতে হবে। আপনার স্ক্যাল্প তৈলাক্ত নাকি শুষ্ক সেটি আগে বুঝবেন। বাজারে অনেক সিলিকন-ফ্রি শ্যাম্পু বিক্রি হয়। সেগুলির মধ্যে একটি শ্য়াম্পু কিনে নিন। কোনও অ্যান্টি-পলিউশন শ্যাম্পুও (protect hair from pollution)আপনি ব্যবহার করতে পারেন।

চুল রুক্ষ হয়ে যাচ্ছে?

চুল ঢেকে বের হওয়াই ভাল

দূষণের কারণে যাতে চুলের না কোনও ক্ষতি হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। তার জন্য যখনই আপনি বাড়ি থেকে বেরনোর সময়ে মাথা ঢেকে নেবেন। কোনও স্কার্ফ বা ওড়না দিয়ে মাথা ঢেকে নিতে পারেন। কিংবা পোশাকের সঙ্গে ম্যাচিং করে কোনও ফ্যাশনেবল টুপিও পরতে পারেন আপনি। সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির প্রভাবে চুলের সরাসরি কোনও ক্ষতি হবে না। একইভাবে দূষণের কারণে স্ক্যাল্পের কোনও ক্ষতি হবে না। বাজারে এসপিএফ যুক্ত হেয়ার লোশন বিক্রি হয়। আপনি সেটিও ব্যবহার করতে পারেন।

হেয়ার মাস্কের কোনও বিকল্প নেই

শহরের বাতাসে ধূলিকণা, কার্বন মনোক্সাইড, সালফার ডাই অক্সাইড এবং নাইট্রোজেন ডাই অক্সাইডের মাত্রা কিন্তু বাড়ছে। আর এতে চুলের ক্ষতি তো হবেই! তাই এই পরিস্থিতিতে চুল ভাল রাখতে চাইলে হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করা আবশ্য়ক। বাজারে অনেকরকম হেয়ার মাস্ক বিক্রি হয়। সেই হেয়ার মাস্ক আপনি চুলে ব্য়বহার করতে পারেন। আর না হলে ঘরেই বানিয়ে নিতে পারেন হেয়ার মাস্ক (protect hair from pollution)।

চুলের যত্ন করুন

অতিরিক্ত প্রসাধনীর ব্যবহার নয়

হেয়ার কালার কিংবা হেয়ার জেল ব্যবহার করলে তা চিন্তার বিষয়। কারণ এই ধরনের প্রসাধনীতে এমন কিছু উপাদান থাকে যা চুলের ক্ষতি করে। তাই মাত্রারিক্ত প্রসাধনী চুলে ব্য়বহার করতে বারণ করেন বিশেষজ্ঞরা।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!