পায়ের ফোলাভাব কমানোর জন্য় এই ঘরোয়া উপায়গুলির সাহায্য নিতে পারেন

পায়ের ফোলাভাব কমানোর জন্য় এই ঘরোয়া উপায়গুলির সাহায্য নিতে পারেন

সারাদিন খুব বেশি পরিশ্রম গেলে বা পায়ের উপর চাপ পড়লেই অনেকের পা ফুলে যায়। আবার অনেকের ক্ষেত্রে কী হয়, বেশ কিছুক্ষণ পা ঝুলিয়ে বসে থাকলেই পা ফুলতে শুরু করে। আবার অনেক সময় চোট পেয়েও পায়ের পাতার নির্দিষ্ট অংশটুকু ফুলে যায়। পায়ের ফোলা ভাব কমানোর জন্য় আমাদেরই সতর্ক থাকার প্রয়োজন আছে। কয়েকটি সাধারণ উপায়েই এই পায়ের ফোলা ভাব কমানো যেতে পারে। তার জন্য় কয়েকটি বিষয় আমাদের মেনে চলতে হবে, এবং পা ফুলে গেলে (take care of swollen feet) কয়েকটি উপায়ে পায়ের যত্ন নিতে হবে। তাহলেই পায়ের ফোলা ভাব কমবে। বিভিন্ন শারীরিক কারণে পা ফুলে যায়। তার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা নানারকম পরামর্শ দিয়ে থাকেন। 

এছাড়া গর্ভাবস্থায়ও অনেকের পা ফোলার সমস্যা দেখা যায়। অনেক সময়ে ওষুধের সাইড এফেক্টসের কারণেও পা ফুলে যায়। পায়ের বিভিন্ন ইনফেকশনের কারণেও এরকম হতে পারে। তাই শরীরের অবস্থা বুঝে আপনাকে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কিন্তু বাড়িতে সামান্য চোট পেয়ে যদি আপনার পা ফুলে যায়, কিংবা বেশি পরিশ্রমের পর যদি আপনি প্রায়ই করেন যে আপনার পা ফুলছে (take care of swollen feet), তাহলে কয়েকটি ঘরোয়া উপায় অবশ্যই আপনার জন্য রয়েছে। আসুন আজ সেই সব নিয়ে একটু আলোচনা করা যাক।

পরিমাণ মতো জল খেতে হবে

আসলে আমাদের শরীরের সব সময়ই পরিমাণ মতো জলের প্রয়োজন হয়। যদি কোনওদিন জল কম খাওয়া হয়, তবে ডিহাইড্রেশনের কারণে পায়ের পেশি পরিমাণ মতো অক্সিজেন পায় না ও রক্ত সঞ্চালন ঠিকঠাক হয় না। তখন পায়ের সেই নির্দিষ্ট অংশের পেশি ফুলে যায়, এবং ব্যথা হতে থাকে। তাই প্রতিদিন পরিমাণ মতো জল খাওয়া প্রয়োজন(take care of swollen feet)।

পরিমাণ মতো জল খান

কম্প্রেশন মোজা কিনুন

কম্প্রেশন মোজা কিনে নিতে পারেন। তা আপনার পায়ের জন্য ভাল হবে। পায়ের ফোলা ভাব অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

নুন জলে পা ডুবিয়ে রাখুন

এপসম সল্ট বা খাবার লবণ শুধুই যে পেশির ব্যথা (take care of swollen feet) কমাতে সাহায্য় করে তা নয়, এটি ফোলা ভাবও কমাতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এই সল্ট নির্দিষ্ট স্থানের টক্সিন বের করে আনে এবং রিল্যাক্স করে। তাই গরম জল করে নিন। সেই জলে পরিমাণ মতো নুন মিশিয়ে নিন। এবং সেই নুন জলে অন্তত ২০ মিনিট পা ডুবিয়ে বসে থাকুন। কোনও চোট থাকলেও আরাম পাবেন, আবার পেশিতে ব্যথা হলেও আপনি আরাম পাবেন।

পা উঁচু করে রাখুন

পায়ে ব্যথা করতে থাকলে কিংবা পা ফুলে যেতে থাকলে পা ঝুলিয়ে বসে থাকবেন না। যদি রাতে শোয়ার সময় ব্যথা করে, তবে দুটো বালিশের উপর পা রেখে শুয়ে পড়ুন। চেয়ারে বসে থাকার সময়ে সামনে একটি স্টুল রেখে তার উপর পা তুলে (take care of swollen feet)বসতে পারেন। এতে পায়ের ফোলা ভাব অনেকটাই কমবে। বিশেষত গর্ভাবস্থায় যদি পা ফুলতে থাকে তবে পা মেঝে থেকে তুলে রাখার ব্যায়াম করুন নিয়মিত। দিনে অন্তত ২০ মিনিট এই ব্যায়াম করুন বারবার করে। পা সামনের দিকে সোজা করে উপরে তুলবেন। বসেও এই ব্যায়াম করতে পারেন কিংবা শুয়েও করতে পারেন। পা ঝুলিয়ে বসা এড়িয়ে চলুন।

নিয়মিত হাঁটাচলা করুন

হাঁটাচলা করুন

যদি পায়ে খুব ব্যথা না থাকে, তবে অবশ্য়ই হাঁটাচলা করবেন। এতে পায়ের রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক হয়ে পায়ে ব্যথা অনেকাংশেই কম হয়ে যাবে।

পা মাসাজ করুন

পায়ের পাতা ফুলে থাকলে ও পায়ের ব্যথা হতে থাকলে পায়ের পাতা মাসাজ (take care of swollen feet)করুন। এতে আপনি আরাম পাবেন। সেই অংশের পেশি রিল্যাক্স হবে। ফলে রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক হলে ব্যথা কমবে এবং ফোলা ভাব কমবে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!