কাজের মধ্য়ে বার বার বাধা পায় মনসংযোগ, মনসংযোগ বাড়ানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করলাম আমরা

কাজের মধ্য়ে বার বার বাধা পায় মনসংযোগ, মনসংযোগ বাড়ানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করলাম আমরা

বেশিরভাগ সময়েই নিজের মন অস্থির অস্থির লাগে? কাজেও মন বসাতে পারেন না। তাই জন্য প্রায়ই অল্প-বিস্তর কাজে ভুল হয়ে যায়। এই সময়ে কী করবেন, সেই বিষয়ে কি কিছু ভেবেছেন? কেন এরকম হয়! কারণ আপনার মনসংযোগের অভাব হয়। আর মনসংযোগের অভাবে কাজে ছোট বড় ভুল হয়ে যায়, আর তার জন্যই অফিসে কিংবা বাড়িতে হলেও কথা শুনতে হয়। কিন্তু মনসংযোগের অভাব কেন হয়। পরোক্ষভাবে আমাদের লাইফস্টাইলও কিন্তু এর জন্য দায়ী। সেটা আপনাকেই বুঝতে হবে। অর্থাৎ, মনসংযোগ বাড়ানোর জন্য একটি স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন খুবই প্রয়োজন। শুনতে ক্লিশে লাগলেও কিন্তু এই কথা অনেকাংশেই সত্যি। তাহলে উপায়? মনসংযোগ বাড়ানোর উপায় (boost your concentration) নিয়েই আজ আলোচনা করব আমরা।

স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করবেন

কীভাবে? তার জন্য প্রতিদিন ব্যায়াম করতেই হবে। ব্যায়াম করলে আপনার শরীরের প্রতিটি অংশে রক্ত সঞ্চালন ভাল হবে। এবং আপনার মস্তিষ্কেও পরিমাণ মতো রক্ত পৌঁছাবে। ফলে ব্রেনের কোষ ভালভাবে কাজ করবে। অফিসে যাওয়ার আগে অবশ্যই ব্রেকফাস্ট করবেন। তবে কখনওই এমন ব্রেকফাস্ট করবেন না যা খেলে আপনার ঘুম পায়। স্বাস্থ্যকর ও সহজপাচ্য ব্রেকফাস্ট করবেন। এতে শরীরও ভাল থাকবে (boost your concentration)ও কাজ করার ক্ষমা পাবেন আপনি।

একটা নির্দিষ্ট কাজে মন দিন

যে কাজে মনসংযোগে বাধা আসছে, তা নোট ডাউন করুন

আপনি নিশ্চয়ই বুঝতে পারবেন কোন ঘটনায় আপনার মনসংযোগে বিঘ্ন ঘটল। হয়তো আপনি কাজ করছেন, সেই মুহূর্তে যদি কেউ কথা বলে বা কিছু নিয়ে প্রশ্ন করে তখন কি আপনার মনসংযোগে বাধা আসছে? সেটা বুঝুন। যদি তা হয়, তবে সঙ্গে ইয়ারফোন রাখুন। আপনি যেই মুহূর্তে আপনার মনসংযোগের বাধার কারণ বুঝে যাবেন, সেই মুহূর্তেই আপনি সমাধানের রাস্তায় হাঁটতে পারবেন।

মিউজিক শুনুন

মিউজিক সব সময়েই একটা থেরাপির মতো কাজ করে। আপনিও মিউজিক শুনুন। তবে শুধু শুনলেই হবে না। যখন আপনি মিউজিক শুনবেন, তখন শুধুমাত্র সেইদিকেই মন দেবেন (boost your concentration)। মন দিয়ে যদি শুনতে পারেন, তবে আপনার মনসংযোগ বাড়বে।

মেডিটেশন মনযোগ বাড়ায়

মেডিটেশন করুন

ছোট থেকেই আমাদের মেডিটেশন করার কথা বলা হয়। কিন্তু আমরা করতে পারি কোথায়। কিন্তু সত্যি বলতে মনসংযোগ বাড়ানোর একমাত্র উপায় হল মেডিটেশন করা। তাই আজ যদি আপনি মেডিটেশন করা শুরু করেন, আগামী এক মাসের মধ্যেই আপনি তার ফল বুঝতে পারবেন। আপনার মনসংযোগ বাড়তে বাধ্য।

সব সময় এক কাজের দিকে মন দেবেন

আপনি যে কাজ করছেন,হয়তো আপনি লিখছেন কিংবা অফিসের অন্য কোনও কাজ করছেন। কিংবা আপনি হয়তো বাড়িতে রান্না করছেন, সেই দিকেই মন দিন। রান্না করতে করতে যদি অফিস নিয়ে ভাবেন, আবার অফিসে বসে যদি ভাবেন রান্না কী করব তাহলেই সমস্যা। সেই সময়েই মনসংযোগে বাধা আসে। যে কাজটা করছেন, সেটি সঠিকভাবে করা যায় না। তাই এদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখুন।

কাজের ফাঁকে ব্রেক

একটানা কাজ করার কি অভ্যাস রয়েছে? করবেন না। একটানা কাজ করার থেকে বরং কাজের মধ্য়ে ব্রেক নিন। আপনার মস্তিষ্ককেও বিরতি দিন। কারণ, একটানা কাজ করতে করতে যদি আপনার বিরক্ত লাগে তখন বুঝতে হবে আপনার মন একটি বিরতি চায়। আপনার মনকে সেভাবেই প্রস্তুত করুন। নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর তাকে একটি বিরতি দিন। এতে কাজ আরও ভাল হবে। মনসংযোগও ঠিক থাকবে।

কোনো স্ট্রেস নয়

স্ট্রেস-কে না বলুন

স্ট্রেস বাড়লেই কিন্তু মনসংযোগ কমবে এবং ভাইস ভার্সা। তাই কাজ করার সময় বা অন্যান্য সময়েও মাথা থেকে যাবতীয় দুশ্চিন্তা ঝেরে ফেলুন। আপনি নিজেকে নিয়ে ভাবুন, নিজের জন্য সময় দিন (boost your concentration)। এভাবেই আপনার মনসংযোগকে নিজের মনের মতো গড়ে তুলুন। আপনি ভাল থাকবেন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!