বলিউডের যে শ্যামবর্ণা নায়িকারা বারবার প্রমাণ করেছেন সাফল্যের চাবি বুদ্ধিমত্তাই!

বলিউডের যে শ্যামবর্ণা নায়িকারা বারবার প্রমাণ করেছেন সাফল্যের চাবি বুদ্ধিমত্তাই!

উজ্জ্বল বর্ণের অভিনেত্রীদেরই বার বার বেশি গুরুত্ব দিয়েছে বলিউড। 'ফর্সা হলেই সুন্দর' এই ধারণাকেও বার বার জনপ্রিয় করেছে। বলিউডের এই বিষয়গুলি নতুন কিছু নয়। এর জন্য হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বার বার সমালোচনার মুখেও পড়তে হয়েছে। কেন তারা শ্যাম বর্ণা বা ডাস্কি নায়িকাদের গুরুত্ব দেয় না? ত্বকের রং নিয়ে বলিউডে যে চর্চা হয়ে এসেছে, তার মধ্যে থেকেও অনেক অভিনেত্রীই নিজের সৌন্দর্য ও বুদ্ধিমত্তার জোরে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এবং প্রমাণ করে দিয়েছেন, বলিউডের এই কন্সেপ্ট কতটা ভুল!

ডাস্কি স্কিন হলেও এই অভিনেত্রীরা তাঁদের কেরিয়ারে সম্পূর্ণভাবে সফল (bollywood actresses) । একাধিক জনপ্রিয় ছবি তাঁরা তাঁদের দর্শকদের উপহার দিয়েছেন এবং তার পাশাপাশি তাঁদের ত্বকের রং নিয়ে যথেষ্ট গর্ববোধ করেন তাঁরা। আসুন দেখে নেওয়া যাক, কোন বলিউড অভিনেত্রীরা স্টিরিওটাইপ ভেঙে নিজেদের স্বতন্ত্রতাকে প্রতিষ্ঠা করেছেন বার বার।

Beauty

Twin Faced Concealer Sticks - Toffee Dusky

INR 795 AT MyGlamm

কাজল

নব্বইয়ের দশকের অন্যতম অভিনেত্রী কাজল, যিনি তাঁর বুদ্ধিমত্তার জোরে বলে বলে টেক্কা দিতে পারতেন বলিউডের অন্যান্য অভিনেত্রীকে। এমনকী নায়কদের থেকেও কোনও অংশে কম জনপ্রিয়তা ছিল না কাজলের (bollywood actresses)। তথাকথিত সুন্দর নন কাজল। তবে এই বঙ্গতনয়া মুম্বইয়ের অন্যতম শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী, যিনি এখনও পর্যন্ত একইভাবে দর্শক মনে প্রিয় জায়গাতেই রয়েছেন।

কঙ্কনা সেনশর্মা

শুধু অভিনয় নয়, পরিচালনাতেও তিনি দক্ষ তা প্রমাণ করেছেন কঙ্কনা। সম্প্রতি নেটফ্লিক্সে আজীব দস্তান মুক্তি পেয়েছে। এই সিরিজে অভিনয় করেছেন কঙ্কনা। তাঁর সাবলীল অভিনয়ের জন্য তিনি প্রশংসিত হয়েছেন। এছাড়াও তাঁর অন্যান্য ছবি যেমন ওয়েক আপ সিড বা পেজ থ্রি-র জন্য যথেষ্ট প্রশংসা পেয়েছেন তিনি। তাঁর ত্বকের রঙের (dusky bollywood actresses)জন্য গর্ব বোধ করেন কঙ্কনা। প্রমাণ করে দেন, ত্বকের রং কখনওই সৌন্দর্যের মাপকাঠি নয়।

বিপাশা বসু

ছোট থেকেই তাঁর ত্বকের রঙের জন্য নানা রকম মন্তব্যের শিকার হতে হয়েছে। এই কথা তিনি তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলেও লিখেছিলেন। তিনি লেখেন, "বড় হওয়ার সময়ে, আমাকে বার বার শুনতে হয়েছে আমি কালো। আমার মা'ও ডাস্কি বিউটি। আমাকে অনেকটা তাঁর মতোই দেখতে। আমি জানি না কেন আমার আত্মীয়রা এই নিয়ে কথা বলেছেন বার বার। ১৫-১৬ বছর বয়স থেকেই আমি মডেলিং শুরু করি। আমি একটি সুপার মডেল কন্টেস্টে জিতি। খবরের কাগজে প্রকাশ করা হয়, কলকাতার একজন 'ডার্ক গার্ল' (dusky bollywood actresses)প্রতিযোগিতা জিতেছে। আমি অবাক হয়েছিলাম দেখে যে, আমার নামের আগে ডার্ক কথা উল্লেখের কী প্রয়োজন ছিল।"

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

ডাস্কি স্কিন টোনের জন্য বর্ণবিদ্বেষের মুখে পড়তে হয়েছিল প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে। কিন্তু তিনি তাঁর বুদ্ধিমত্তার জোরেই একজন সুপ্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী। কোনোভাবেই কোনওরকম সমালোচনাকে গুরুত্ব দেননি। একটি সাক্ষাৎকারে প্রিয়াঙ্কা বলেছিলেন,আমার ব্রাউন স্কিনটোনের জন্য আমার কাজ পেতে সমস্যা হয়েছিল। কিন্তু নিজেকে প্রমাণ করার জন্য নিজের কাজই যথেষ্ট। আমার কাজই তার প্রমাণ।

মূল ছবি - ইনস্টাগ্রা

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!