স্কিনি জিন্সের বদলে ট্রাই করতে পারেন ব্যাগি ও বয়ফ্রেন্ড জিন্স

স্কিনি জিন্সের বদলে ট্রাই করতে পারেন ব্যাগি ও বয়ফ্রেন্ড জিন্স

নতুন বোতলে পুরনো ওয়াইন...ফ্যাশনকে এভাবেই বর্ণনা করা যায়। কেন বলছি? কারণ, গত দশকে ফ্যাশনের ট্রেন্ড যা ছিল, এই দশকে তা অনেকটাই আলাদা। রেট্রো স্টাইলের ছোঁয়া পাওয়া যায় এই দশকের স্টাইল স্টেটমেন্টে। যেমন মেকআপ ট্রেন্ড বদলেছে, একইসঙ্গে বদলেছে ফ্যাশন স্টেটমেন্টও।

গত দশকে ট্রেন্ডি ছিল বিভিন্ন স্কিনি জিন্স । ন্যারো জিন্স পরেছি বা পেনসিল ন্যারো , আবার অ্যাঙ্কেল লেন্থের ন্যারো জিন্সও পরেছি। টর্নড বা রিপড জিন্সও একইভাবে ট্রেন্ড ছিল। তবে ৭০ ও ৮০-এর দশকে পশ্চিমি তথা ভারতীয় ফ্যাশনে জনপ্রিয় ছিল বেল বটমস। এমনকি ৯০-এর বলিউডেও অ্যান্টি স্কিনি জিন্সই (style anti skinny jeans) ছিল অভিনেতা ও অভিনেত্রীদের ফ্যাশন স্টেটমেন্ট। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে স্টাইলিংও বদলায়। ২০০০ সাল থেকেই বাজারে জায়গা করে নেয় স্কিনি জিন্স। প্রথমে লো-ওয়েস্ট এবং পরবর্তীতে হাই ওয়েস্ট জিন্স স্কিনি জিন্স জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

আপনিও এরকম জিন্স ট্রাই করতে পারেন

তবে এই দশকেও যদি আপনার নজর স্কিনি জিনসের উপরেই থাকে, তবে বলব আপনি কিন্তু একটু পিছিয়ে আছেন। ওই যে প্রথমেই বলেছিলাম, নতুন বোতলে পুরনো ওয়াইন। স্টাইলিংটাও সেরকম। কারণ, ফিরেছে অ্য়ান্টি-স্কিনি জিন্স। জনপ্রিয়তা পেয়েছে বেল বটমস, ব্যাগি ও ফ্লেয়ারড জিন্স। ২০১৯ থেকেই এই বদল আস্তে আস্তে শুরু হয়েছিল, এখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সেই ট্রেন্ড। তাহলে কি আপাতত স্কিনি জিন্স আউট ? ঠিক তা নয়। জনপ্রিয়তা আছে স্কিনি জিন্সেরও। তবে এই স্কিনি জিন্সের পরিবর্তে আপনি অবশ্যই অ্যান্টি স্কিনি জিন্স বেছে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে কী কী জিন্স (style anti skinny jeans)পরতে পারেন, আজ সেই নিয়েই আপনাকে বেশ কয়েকটি টিপস দেব।

ব্যাগি জিন্স

রেট্রো লুকে জনপ্রিয় ছিল ব্যাগি জিন্স। নন-স্কিনি বা অ্যান্টি-স্কিনি জিন্স । এখন ফ্যাশনেও ট্রেন্ডিং এই ধরনের জিন্স। আপনি ব্যাগি জিন্স ট্রাই করতে পারেন। এর সঙ্গে আপনার টপের দিকেও সতর্ক থাকতে হবে। জিন্সটি ঢিলে হওয়ার জন্য় আপনি ফিটিংস টপ পরতে পারেন। ঢিলে টি-শার্ট ভাল লাগবে না। ক্রপ টপ পরতে পারেন। আপনার লুক হবে ক্যাজুয়াল। পায়ে স্নিকার্স ট্রাই করুন (style anti skinny jeans)।

ফ্লেয়ার জিন্স

বেল বটমেরই একটি ধরন বলা যায়। ৭০-এর দশকে ট্রাউজারের ধরনে বেশ জনপ্রিয় ছিল ফ্লেয়ার। কোমর থেকে পা পর্যন্ত সম্পূর্ণ জিন্সটাই ঢলা। গোড়ালি পর্যন্ত বা পায়ের পাতা পর্যন্তও এর দৈর্ঘ্য হতে পারে। জিন্সের ক্ষেত্রেও এর জনপ্রিয়তা তুঙ্গে ছিল। ফ্যাশনে ফ্লেয়ার আবার ফিরেছে । আপনি যদি এই জিন্স পরতে চান, তবে ক্রপ টপ ও লেদার জ্যাকেটের সঙ্গে এই জিন্স পরতেই পারেন। শুধু ক্রপ টপও পরতে পারেন। হাই নেক টপও ট্রাই করতে পারেন। মনে রাখবেন, টপের ঝুল অবশ্যই ছোট হতে হবে।

 

বেল-বটমস

বেল-বটমস! এই নামটাই যথেষ্ট। একসময় ফ্যাশনে রাজত্ব করেছে বেল-বটমস । দীর্ঘ সময় ধরে ট্রেন্ডিং ছিল । ৬০-র দশকের থেকে শুরু করে ৭০-র দশক এবং তারপরেও ৮০ ও ৯০-এর প্রথম দিকেও একইভাবে জনপ্রিয়তা ছিল বেল-বটমসের । ৭০-র হিন্দি ছবির কথা মনে পড়ে ? এখনকিন্তু বেল বটমস আবার ট্রেন্ড। হাঁটু পর্যন্ত চাপা এবং হাঁটুর নিচ থেকে ঢলা এ’ধরনের প্যান্ট ট্রাই করতেই পারেন । সাধারণত, পায়ের নীচের দিকটা ঘণ্টার মতোই হয়, তাই বেল-বটমস! আপনিও কিনছেন তো? আপনি এই প্যান্টও ক্রপ টপের সঙ্গে পরতে পারেন। অন্য টপও যদি পরেন, মনে রাখবেন সেই টপের ঝুল যেন ছোট হয়। জুতোর দিকেও লক্ষ্য রাখবেন, ফ্ল্যাট জুতো (style anti skinny jeans)কিন্তু একদমই মানানসই হবে না। ক্রপড, টর্নড বেল-বটমসও কিন্তু একইভাবে জনপ্রিয়।

 

মূল ছবি -ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!