'ভাল মা' হয়ে ওঠার দৌড়ে পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনে চলে যাচ্ছেন না তো?

'ভাল মা' হয়ে ওঠার দৌড়ে পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনে চলে যাচ্ছেন না তো? in bengali

আজ একটা ভয়ের গল্প বলি আপনাদের। এক আপাতসুখী দম্পতির পাঁচটি ফুটফুটে সন্তান ছিল। কিন্তু একদিন সেই পরিবারে নেমে আসে দুর্যোগের ছায়া। সদ্যজাত সন্তানসহ বাকি চারটি শিশুকেই হত্যা করা হয়। একে একে সবাইকে বাথটবের জলে চুবিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তাদেরই মা। আন্দ্রেয়া ইয়টস।

২০০১ সালে ঘটে এই মর্মান্তিক শিশু হত্যা। গ্রেফতার হয় মা আন্দ্রেয়া। ট্রায়াল চলে বহু বছর। শেষ পর্যন্ত জায়গা হয় মানসিক হাসপাতালে। কিন্তু মার্কিন কোর্ট তাঁকে সাজা দিতে পারেনি। বরং তাঁর মানসিক স্বাস্থ্যের দিকে নজর দেওয়ার কড়া হুকুম দিয়েছিল। আন্দ্রেয়া ভুগছিলেন পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনে (all you need to know about postpartum depression from a psychologist)।

ঠিক এই মুহূর্তটার জন্যই অপেক্ষা করছিলেন তাই না?

আমাদের দেশেও বহু মা এই মানসিক সমস্যার সম্মুখীন হন। অনেক সময়ে এমনও শোনা যায় যে সন্তানকে মেরে ফেলেছেন বা নিজে আত্মঘাতী হয়েছেন। তখন সেই মহিলাকেই দোষ দেওয়া হয়। কেউ জানার চেষ্টা করেনা, আসল কারন।

পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন বা প্রসব পরবর্তী অবসাদ কী, কেন এমন সমস্যা হয় আর কী করলে এমন সমস্যা এড়ানো যেতে পারে, আজ তা নিয়েই কথা বলব, এবং সেটা অবশ্যই বিশেষজ্ঞের মতামত (all you need to know about postpartum depression from a psychologist) নিয়ে। আমরা কথা বলেছিলাম সাইকোলজিস্ট এবং কাউনসেলর অবন্তিকা চক্রবর্তীর সঙ্গে।

পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন কী?

পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনের লক্ষণ কিন্তু বেশ প্রকট

পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন বা ‘বেবি ব্লুজ’ যদিও খুব কমন একটি সমস্যা, তবে এই বিষয় নিয়ে এখনও আমাদের সমাজে সচেতনতার যথেষ্ট অভাব রয়েছে। যে সন্তানের অপেক্ষায় প্রতিটি মুহূর্ত অপেক্ষা করেছেন একজন মা, সন্তানের জন্মের পর থেকেই যেন সেই আনন্দ বদলে গিয়ে অবসাদে পরিণত হয়। সব সময়ে মেজাজ খিটখিটে থাকা, মনের মধ্যে অশান্তি, সন্তানের প্রতি অকারণ রাগ, হতাশা – এরকম অনেক কিছু একসঙ্গে মিলেই তৈরি হয় পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন।

না, এই সমস্যা সবার হয় না বলেই জানান অবন্তিকা। তবে মোটামুটি ৮০% নতুন মায়ের মধ্যেই এই সমস্যা দেখা যায়। সন্তানের জন্মের পর একটা ধকল যায়, এবং সন্তান যতদিন পর্যন্ত মোটামুটি বড় না হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত মায়ের রেস্ট খুবই কম হয়। তবে শুধু এই কারণে পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন (all you need to know about postpartum depression from a psychologist) হয় না।

Beauty

WIPEOUT Baby Safety Wipes

INR 299 AT MyGlamm

তাহলে পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনের কারনগুলো কী?

নানা কারণে এই সমস্যা হতে পারে। তবে পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন তাঁদের মধ্যে বেশি লক্ষ্য করা যায়, যারা ডিফিকাল্ট প্রেগন্যান্সির মধ্য দিয়ে গিয়েছেন। অর্থাৎ গর্ভাবস্থায় শারীরিক সমস্যা, যেমন ঘুম না হওয়া, খেতে গেলেই বমি হয়ে যাওয়া, ব্লিডিং বা অন্য কোনও হরমোনাল ইমব্যালান্স যাঁদের মধ্যে দেখা গিয়েছে, তাঁদের বেশিরভাগই পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনের শিকার হয়েছেন। এই সমস্যার লক্ষণগুলো কিন্তু বেশ প্রকট। কাজেই যদি প্রথম থেকেই সচেতনভাবে মা-কে সাহায্য করা যায় তাহলে কিন্তু অনেক সমস্যাই এড়ানো সম্ভব।

কী কী উপসর্গ দেখা গেলে বুঝবেন পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনের শিকার?

  • হঠাত করে কান্না পাওয়া এবং কেঁদে ফেলা; অথচ কান্নার কারন বুঝতে না পারা
  • সব সময়ে ক্লান্তি, অথচ ঘুম না হওয়া
  • হঠাত করে খিদে বেড়ে যাওয়া (all you need to know about postpartum depression from a psychologist)
  • মুড সুইং, অর্থাৎ এই ভাল মুডে আছেন, কিন্তু কোনও একটি নগন্য কারণে মেজাজ হারিয়ে ফেলা
  • মনোযোগের অভাব
  • সন্তান এবং স্বামীর প্রতি প্রচন্ড বিদ্বেষ
  • নিজের উপরে ধীরে ধীরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলা

কোনও চিকিৎসা আছে কি?

প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞের সাহায্য নিতে কিন্তু দ্বিধা করবেন না

অবন্তিকা জানান, পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনের (all you need to know about postpartum depression from a psychologist) চিকিৎসা রয়েছে। এরকম কোনও লক্ষণ যদি নতুন মায়ের মধ্যে দেখা যায়, প্রথমেই তাঁর পরিবারকে অত্যন্ত যত্নের সঙ্গে মা-কে সঙ্গ দিতে হবে। ‘তুমি কেমন মা’, ‘আমরাও তো বাচ্চা মানুষ করেছি, কই আমাদের তো এসব হয়নি’, ‘আজকালকার মেয়েরা সব কিছু নিয়েই বাড়াবারি করে’ – এই ধরণের নেগেটিভ কথা বলা বন্ধ করতে হবে। প্রয়োজনে মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞ বা কাউন্সেলরের সাহায্য নিতে হবে। তবে, বাড়াবাড়ি হওয়ার আগেই যদি সঠিক চিকিৎসা শুরু হয়, তাহলে কিন্তু অনায়াসে পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন বা বেবি ব্লুজ কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।

তথ্য সহায়তা: অবন্তিকা চক্রবর্তী

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!