Pride Month: এই ভারতীয় ছবিগুলো সমকামী প্রেমের গল্প বলেছে!

Pride Month: এই ভারতীয় ছবিগুলো সমকামী প্রেমের গল্প বলেছে!

জুন মানে গর্বের রামধনু (pride month)। আমাদের প্রাইড মান্থ! সব সেক্সুয়ালিটির মানুষের প্রতি সম্মান। কলকাতাতেও প্রাইড উদযাপন করা হয়। যদিও এইবার লকডাউনে সেভাবে কোনও প্রাইড ওয়াক বা ব়্যালি করা হচ্ছে না। কিন্তু মন তো রঙিন হতেই পারে। যেহেতু এখনও হেটেরো-নর্ম্যাটিভ স্ট্রাকচারের বাইরে বেরিয়ে ভাবতে অনেক মানুষেরই অসুবিধা হয়। সম লিঙ্গের দুইজন মানুষের সম্পর্ক দেখলে অনেকেই দুই একটি ছোট বড় কথা শুনিয়ে দেন, তাই আমার মনে হয় আমাদের এখনও অনেকটাই পথ চলা বাকি। যে আকাশে সূর্যোদয়ও থাকবে আবার রামধনুও থাকবে। শুধু কোনও মনখারাপের মেঘ থাকবে না।

ততদিন সেইসব বন্ধুদের হাতে হাত রেখে প্রত্যেকের অধিকারের জন্য় প্রত্যেকে লড়াই করতে পারি। প্রাইড মান্থে একাধিক বিষয় নিয়েই আলোচন করা যায়। আজ আসুন কয়েকটি ফিল্ম নিয়ে আলোচনা করি। যে সব ফিল্ম সমকামী প্রেমের প্রতি(pride month), তাদের মধ্য়েই কয়েকটি ফিল্ম নিয়ে আমরাও আলোচনা করতে পারি। আপনিও আপনার বিশেষ বন্ধুদের সেই সব ছবি (films on homosexual relationships) দেখাতে পারেন। ভারতীয় ছবিতে সমকামী সম্পর্ক...

ভালবাসার সম্পর্ক...

মার্গারিটা উইথ আ স্ট্র(২০১৪)

সোনালি বোসের পরিচালনা। আমার দেখা অন্য়তম সুন্দর ছবি(films on homosexual relationships)। কল্কি ও সায়নীর অন স্ক্রিন রোম্যান্স কখনও বুঝতেই দেয়নি আমরা একটি ছবি দেখছি। মনে হয়েছিল, দুইজন মানুষের বন্ধুত্ব ও প্রেমের সাক্ষী থাকছি। যাঁরা হয়তো কোনও সিনেমার চরিত্র নয়, বরং তাঁরা সত্যির থেকেও বড় সত্যি। কল্কি শারীরিকভাবে বিশেষ ভাবে সক্ষম ছিলেন এই ছবিতে। তাঁর বান্ধবী সায়নী যতটা ভালোবেসে আই মেকআপ করতেন, কখনও বুঝতেই দেননি তিনি দৃষ্টিহীন। এই দুই মানুষের আত্মার সম্পর্কই ছবিতে উপহার দিয়েছিলেন সোনালি। মনে পড়েছিল, 'ব্লু ইজ দ্য ওয়ার্মেস্ট কালার' ছবিটির কথা...

আলিগড় (২০১৪)

হানসল মেহতা পরিচালিত এই ছবিতে (films on homosexual relationships)অভিনয় করেছিলেন মনোজ বাজপেয়ি। একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনেই আলিগড় ছবি বানানো নয়। অধ্যাপক রামচন্দ্র সিরাসের ট্র্যাজিক জীবনের উপর ভিত্তি করেই ছবি গল্প। আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ছিলেন তিনি। এক সময় একটি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধি তাঁর বাড়িতে জোর করেই প্রায় ঢুকে পড়ে। একজন রিক্সাচালকের সঙ্গে সঙ্গমরত অবস্থায় দেখে তাঁকে। এই ঘটনাই অধ্যাপকের জীবন একদম পাল্টে দেয়। তাঁকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিতারিত করা হয় এবং সমাজেও অত্য়ন্ত অসম্মানিত হন তিনি। কিন্তু তাঁর মৃত্যুরহস্য যদিও অধরা, ছবিতে সেই বিষয়টিও গুরুত্ব পেয়েছে।

আই অ্যাম (২০১০)

অনিরের পরিচালনা। রাহুল বোস, অনুরাগ কাশ্যপ, জুহি চাওলা সহ একাধিক কলাকুশলী এই ছবিতে অভিনয় করেছেন। এই ছবি জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিল।

ফায়ার (১৯৯৬)

দীপা মেহতা পরিচালিত এই ছবির (films on homosexual relationships)বিরুদ্ধে সেই সময়ে অনেকেই সরব হয়েছিলেন। অভিযোগ ছিল,এই ছবি নাকি ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে। অভিনয় করেছিলেন সাবানা আজমি এবং নন্দিতা দাস। ছবিতে দুই নারী চরিত্রের মধ্য়ে সম্পর্ক দৃশ্যায়িত হয়েছিল।

নগরকীর্তণ (2017)

কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় পরিচালিত এই ছবি যেমন বাংলাতেও প্রশংসা পেয়েছে, জাতীয় স্তরের সিনেমা মহলেও প্রশংসা পেয়েছে একইভাবে। তবে নগরকীর্তণ যে সরাসরি কোনও সমকামী প্রেমের গল্প উপহার দেয় ঠিক তা নয়। ঋদ্ধি সেনকে একজন রূপান্তরকামীর ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যায়। বড় পর্দায় দেখা যায় মানবী বন্দ্যোপাধ্যায়কেওএকজন রূপান্তরকামী মানুষের পথচলার গল্প এবং তাঁর প্রেমে পড়া জীবনের কোন সীমানায় তাঁকে নিয়ে গিয়ে দাঁড় করায়, যেখানে আর কোনও সীমাই তাঁকে ছুঁতে পারে না।

শুভ মঙ্গল জাদা সাবধান

শুভ মঙ্গল জ্যাদা সাবধান ভারতের হিন্দি ভাষার একটি ছবি। সমলিঙ্গের মানুষের মধ্যকার প্রেম নিয়ে নির্মিত এই ছবিতে আয়ুষ্মান খুরানা এবং জিতেন্দ্র কুমার অভিনয় করেছেন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!