home / ডি আই ওয়াই লাইফ হ্যাকস
পেস্ট কন্ট্রোলে খবর দেওয়ার প্রয়োজন নেই, মশা-মাছি-আরশোলার হাত থেকে নিজেই নিজের ঘর বাঁচান!

পেস্ট কন্ট্রোলে খবর দেওয়ার প্রয়োজন নেই, মশা-মাছি-আরশোলার হাত থেকে নিজেই নিজের ঘর বাঁচান!

বৃষ্টি নিম্নচাপের কারণেই হোক কিংবা মৌসুমী বায়ু শেষমেশ পথ ভুলে এই গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে গোঁত্তা মারার কারণে, বৃষ্টি পরতে শুরু করেছে নিয়মিত, গত দু-একদিন ধরে। আর সেই সঙ্গে উৎপাত বেড়েছে মশামাছি ও নানা পোকামাকড়ের (insects)! সারা দিন মশামাছির প্যানপ্যানানি, ভনভনানি তো আছেই, রাতে ঘুম থেকে উঠে যদি একবার চুপচাপ রান্নাঘরে উঁকি মারেন, তা হলেই দেখতে পাবেন, সিঙ্কের উপর দিয়ে পাড়া বেড়াতে বেরিয়েছে কয়েকটি কুচো আরশোলা, দেওয়ালে টিকটিকি যাচ্ছে পা টিপে-টিপে এবং খুব সৌভাগ্য হলে গণেশদাদার বাহনের সঙ্গেও আপনার দেখা হয়ে যেতে পারে! ফলে পরদিন সকালে উঠে আপনি যথারীতি পেস্ট কন্ট্রোলের নম্বর ঘোরাবেন আর তার পরের দিন একটি লোক এসে গম্ভীর মুখ করে পিঠে আণবিক বোমা টাইপের যন্তর নিয়ে এসে আপনার বাড়ির কোণ-ঘুপচি সর্বত্র কী সব স্প্রে করে কিংবা ইঞ্জেকশন দিয়ে চলে যাবে! আর আপনিও শান্তিতে ভাববেন, যাক বাবা, পয়সা গেল, গেল, বাড়িটা তো পোকামাকড়ের হাত থেকে বাঁচল! অথচ এত কিছু না করে কয়েকটি সহজ-সরল পদ্ধতি মেনে চললেই কিন্তু বর্ষাকালে (monsoon) বা যে-কোনও ঋতুতেই বাড়িঘর (home) পোকামাকড়মুক্ত (pest free) রাখা সম্ভব। কী করে, জেনে নিন এখানে…

  • পোকামাকড় বাড়িতে ঢোকে কোথা দিয়ে? দরজা-জানলা, রান্নাঘর-বাধরুমের পাইপ ইত্যাদি আউটলেট দিয়ে। জানলা-দরজা তো আর সব সময় বন্ধ করে রাখা সম্ভব নয়, তবে এসব জায়গার কোথাও কোনও ফাঁক থাকলে, তা ওয়াল পট্টি, সাদা সিমেন্ট কিংবা এম সিল দিয়ে বন্ধ করে দিন ভাল করে।
  • রাতে শুতে যাওয়ার আগে আউটলেট পাইপের মুখ কোনও ঢাকনা দিয়ে বন্ধ করুন। অনলাইনে কিংবা বাজারে নানা রকম ড্রেন পাইপের ঢাকনা আজকাল কিনতে পাওয়া যায়। সেগুলো কিনতে পারেন কিংবা ছোট কোনও স্টিলের প্লেট দিয়েও ঢাকা দিতে পারেন। ঢাকা সরিয়ে আরশোলা কিংবা পিঁপড়ে ঢুকতে পারবে না।
  • জানলায় মশা বন্ধ করার জন্য মিহি জাল লাগাতে পারেন। এই জালের চারপাশে ভেলক্রো দেওয়া থাকে। দিনের বেলা খুলে রাখুন আর ঠিক সন্ধে হওয়ার আগে লাগিয়ে দিন। 
  • আরশোলা কিংবা মাছি কোনও স্বাভাবিক উগ্র গন্ধ সহ্য করতে পারে না। তাই এসব তাড়াতে বাড়িতেই তৈরি করে ফেলুন পটপুরি পুঁটলি। মানে একটা মলমলের কাপড়ে কিছু শোলার ছোট বল নিয়ে তার উপর ঢেলে দিন ল্যাভেন্ডার, ইউক্যালিপটাস কিংবা নিম তেল। এগুলির কড়া গন্ধে মাছি-আরশোলা পালাবে। 
  • সন্ধেবেলা ঠাকুরঘরে পুজো করার সময় ধূপের বদলে জ্বালান ধুনো। মশা তাড়ানোর অব্যর্থ দাওয়াই এটি। 
  • প্রতিদিন ঘর মোছার জলে মিশিয়ে দিন লেমন এসেনশিয়াল অয়েল কিংবা সাদা ভিনিগার। মেঝে তো চকচক করবেই, পিঁপড়েও আসবে না।
  • ঘরের কোণে ছোট্ট একটা বাটিতে কর্পূর রেখে জ্বালিয়ে দিন। মশা-মাছি-ছোট পোকা পালাবে!
  • বাথরুমে সুগন্ধি তেল কিংবা সাবান ব্যবহারের পর রেখে দেবেন না। সাবান ভরে রাখুন ঢাকনাওয়ালা সোপ কেসে। তেলের শিশি সম্ভব হলে ঘরে রাখুন। এই ধরনের গন্ধ নানা পোকামকড়কে আকর্ষণ করে!
  • দিনে একবার, সম্ভব হলে বিকেলের দিকে সারা বাড়িতে কোনও রিপেলেন্ট স্প্রে করে দিন। পোকামাকড়ের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার বাড়তি সুরক্ষা আর কী!
  • কিছু-কিছু গাছ আছে, যা পোকা তাড়ায়! বেসিল, রোজমেরি, অ্যালো ভেরা, লেমনগ্রাস ইত্যাদি যদি বারান্দায় ছোট টবে পুঁততে পারেন, তা হলে পোকামাকড়ের হাত থেকে অনেকটাই সুরক্ষিত থাকবেন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!

30 Jul 2019

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text