Fitness

অনিদ্রা রোগে জর্জরিত? ট্রাই করুন এই দুটি যোগ ব্যায়াম

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Sep 10, 2020
অনিদ্রা রোগে জর্জরিত? ট্রাই করুন এই দুটি যোগ ব্যায়াম

ইনসমনিয়া বা অনিদ্রা রোগ – কথাগুলো আমাদের কাছে ইদানিং খুব বেশি পরিচিত। আমাদের মধ্যে অনেকেই অনিদ্রা রোগের শিকার অথবা কাউকে না কাউকে বলতে শুনেছেন নিশ্চয়ই যে তাঁর ইনসমনিয়ার সমস্যা রয়েছে। রাতে এক আধ দিন ঘুম না এলে অবশ্য তাকে অনিদ্রা রোগ বলা যায় না। সোশ্যাল মিডিয়ায় যদি আপনি অ্যাকটিভ হন, সেক্ষেত্রে একটা কমন পোস্ট লক্ষ্য করবেন, “রাতে কিছুতেই ঘুম আসে না, কী করব”! যদি দিনের পর দিন ঠিকভাবে ঘুম না হয়, সেক্ষেত্রে শরীরে নানা সমস্যা দেখা দিতে বাধ্য। অনেকেই নার্ভ সুদিং মেডিসিন বা ডাক্তারের প্রেসক্রাইব করা ঘুমের ওষুধ খেয়ে ঘুমোন। কিন্তু এগুলো বেশিদিন একটানা খেলে শরীরের আরও বেশি ক্ষতি হয় – একথাও আমরা সবাই জানি। সেক্ষেত্রে উপায়? যোগ ব্যায়ামের মাধ্যমে কিন্তু ইনসমনিয়া দূর (2-effective-yoga-to-cure-insomnia) করা সম্ভব। আজ কয়েকটি যোগ ব্যায়ামের কথা বলব যা নিয়মিত করলে অনিদ্রা রোগ সারে।

বিপরীতকরণী

অনিদ্রা রোগ সারাতে বিপরীতকরণী আসন খুবই কার্যকরী (ছবি – ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে)

যোগ ব্যায়াম বিশেষজ্ঞদের মতে, আমাদের শরীরের কোর এরিয়া যদি মজবুত থাকে, তাহলে নানা রোগের হাত থেকে আমরা মুক্তি পেতে পারি। কোর এরিয়া অর্থাৎ কোমর ও নিতম্বের ঠিক মাঝখানের অংশ। অনেকে একে টেল বোনও বলেন। খেয়াল করে দেখবেন, যদি টেল বোনে ব্যথা থাকে অথবা কোনও অস্বস্ত্বি হয়, সেক্ষেত্রে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে বই কি! সেক্ষেত্রে অনিদ্রা রোগ বা ইনসমনিয়া (2-effective-yoga-to-cure-insomnia) হওয়া খুব স্বাভাবিক। এই সমস্যা দূর করতে বিপরীতকরণী আসন করতে পারেন।

কীভাবে করবেন –  দেওয়ালের ধার ঘেঁষে লম্বা হয়ে শুয়ে পড়ুন। খেয়াল রাখবেন, কোমরের থেকে যেন দেওয়ালের দুরত্ব বেশি না হয়। এবার ধীরে ধীরে দেওয়াল বরাবর পা তুলুন এবং ধীরে ধহিরে কোমর মাটি থেকে উচু করুন। কনুই যেন মাটিতে ঠেকে সেদিকে খেয়াল রাখবেন। প্রয়োজনে কোমরে কাত দিয়ে সাপোর্ট রাখুন। দশ পর্যন্ত গুনে ধীরে ধীরে কোমর মাটিতে ঠেকান এবং পা নামিয়ে আনুন।

কতবার করবেন – যোগ ব্যায়ামের অভ্যাস থাকলে পাঁচ সেট করুন, যদি নতুন শুরু করেন, সেক্ষেত্রে দুই সেট করুন এবং ধীরে ধীরে সেটের সংখ্যা বাড়ান।

বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ – স্লিপ ডিস্কের সমস্যা থাকলে অথবা আপনি গর্ভবতী হলে এই আসনটি করবেন না। প্রথম দিকে যদি একা করতে অসুবিধে হয়, সেক্ষেত্রে প্রশিক্ষকের তত্বাবধানে যোগ ব্যায়ামটি করুন।

শবাসন

শবাসন করার সময়ে পায়ের নীচে বালিশ নিয়েই করবেন (ছবি – ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে)

আপনি যদি নিয়মিত যোগ ব্যায়াম করেন, তাহলে নিশ্চয়ই জানেন যে যোগ ব্যায়াম পর্ব শেষ করার আগে শেষ আসন হিসেবে শবাসন করা মাস্ট। যোগ ব্যায়াম করার সময়ে শরীরে যে চাপ পড়ে, তাতে মাংসপেশি অত্যন্ত সচল থাকে। মাংসপেশি শিথিল করা অত্যন্ত জরুরি, তা না হলে যে-কোনও সময়ে টান ধরতে পারে এবং ব্যথা হতে পারে। তবে, শবাসন কিন্তু অনিদ্রা রোগ সারাতেও খুব কার্যকরী।

কীভাবে করবেন – মাটিতে অথবা যোগা ম্যাটে চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। পা সোজা রেখে হাত দুটো কোমরের দু’পাশে সহজভাবে রাখুন। চোখ বন্ধ করে অন্তত দু’মিনিট চুপ করে শুয়ে থাকুন। প্রয়োজন হলে থাইয়ের নীচে পাতলা একটি কুশন রাখতে পারেন।

কতবার করবেন – যোগ ব্যায়াম করার পর প্রতিদিন একবার করে অবশ্যই এই আসনটি করুন। যদি আপনি যোগ ব্যায়ামে অভ্যস্ত নাও হন, সেক্ষেত্রেও আপনি শবাসন করতে পারেন। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে শবাসন (2-effective-yoga-to-cure-insomnia) করতে পারেন পাঁচ মিনিট। তার পরে বিছানায় গিয়ে শুতে পারেন।

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!