home / রূপচর্চা ও বিউটি টিপস
শেভিং-এর সময়ে এই ভুলগুলো এবার থেকে আর করবেন না

শেভিং-এর সময়ে এই ভুলগুলো এবার থেকে আর করবেন না

শরীরের অবাঞ্ছিত লোম – এই বিষয়টা আমরা মেয়েরা কেউই ঠিক পছন্দ করি না। কেউ ওয়্যাক্সিং করান, কেউ হেয়ার রিমুভাল ক্রিম ব্যবহার করেন। তবে বেশিরভাগ মহিলার কাছেই শেভিং হল সবচেয়ে সেফ উপায় শরীরের অবাঞ্ছিত লোম দূর করার জন্য। শেভ করতে বেশি সময় লাগে না, ব্যথা লাগে না। তাছাড়া এটি কেমিক্যাল-ফ্রি আর অল্প অল্প লোম ফেরত আসলেই অনায়াসে শেভ করে নেওয়া যায়। (5 common mistakes we all do while shaving)

তবে আমরা অনেক সময়েই হেয়ার রিমুভালের সময়ে নানা রকম ভুল অজান্তেই করে থাকি। আমিও করি, আপনারাও হয়ত করেন। এখানে সেরকমই কিছু ভুলের বিষয়ে আলোচনা করব। দেখে নিন তো আপনিও এর মধ্যে কোনও ভুল করছেন কিনা অবাঞ্ছিত লোম দূর করার সময়ে। আর হ্যাঁ, যদি করে থাকেন, তাহলে সেগুলো আজই শুধরে নিন।

শেভিং-এর আগে এক্সফোলিয়েট না করা

শেভিং-এর আগে এক্সফোলিয়েট অবশ্যই করবেন

আমরা অনেকেই শেভিং-এর আগে ত্বক এক্সফোলিয়েট করি না। স্নানের সময়ে শেভ করাটাই ভাল। আর আমরা সবাই মোটামুটি সেটাই করি। ত্বক ভিজিয়ে নিয়ে সাবান মেখে রেজর টেনে নেন বেশিরভাগ মহিলাই। এটাই করবেন না। যখন স্নান করতে ঢুকছেন, শেভ করার কাজটা একদম শেষের জন্য রাখুন।

সবার আগে ত্বক ভিজিয়ে নিন ভাল করে। এর পর আপনার পছন্দের এক্সফোলিয়েটর দিয়ে বেশ ভাল করে ত্বক ঘষে নিন। এতে ইন-গ্রোন হেয়ারও বাইরে বেরিয়ে আসে আর শেভ করার সময়ে সুবিধে হয়। লোম ভেজা না থাকলে নরম হবে না আর শেভ করতে কিন্তু খুব অসুবিধে হবে। কাজেই এবার থেকে শেভিং-এর আগে মনে করে ত্বক এক্সফোলিয়েট করবেন। (5 common mistakes we all do while shaving)

লুব্রিকেশন এড়িয়ে যাওয়া

এই ব্যাপারটা ঠিক কী? যখন শেভ করে অবাঞ্ছিত লোম দূর করছেন, তখন কিন্তু আপনার ত্বকে রেজর স্পর্শ করছে। আর এখানেই লুব্রিকেশনের গুরুত্ব। আপনি নিশ্চয়ই চান না যে শেভ করার পর আপনার ত্বক রুক্ষ আর খসখসে হয়ে যাক। কাজেই এবার থেকে শেভ করার সময়ে সাবানের বদলে ভাল কোনও শেভিং জেল ব্যবহার করুন। এতে প্রথমত রেজর খুব স্মুদভাবে গ্লাইড করবে, দ্বিতীয়ত, ত্বক আর্দ্র থাকবে। শেভিং জেল লাগিয়ে মিনিট দুই-তিন অপেক্ষা করে তার পরে রেজর চালান।

সব জায়গায় রেজর চালানো

এটা তো আমরা সবাই কোনও না কোনও সময়ে করেছি, হয়ত এখনও করি। সব সময়ে মনে রাখবেন, যেদিকে আপনার রোমের গ্রোথ, তার উলটো দিক থেকে রেজর চালানো উচিত। তাতে অবাঞ্ছিত লোম দূর করা সহজ হয় আর রেজর বার্ন বা ইন-গ্রোন হেয়ারের সমস্যাও থাকে না। হাতে বা পায়ে শেভ করার সময়ে একই দিকে রেজর চালাবেন। অবশ্য বগলের হেয়ার রিমুভালের ক্ষেত্রে একবার উপর থেকে নিচে আর তার পরে নিচ থেকে উপরের দিকে রেজর চালানো যায়।

পুরনো ভোঁতা রেজর ব্যবহার করা

ইউজ অ্যান্ড থ্রো রেজর ব্যবহার করুন

আপনি আদ্যিকালে একটা রেজর কিনেছিলেন আর সেটা দিয়েই এখনও কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন – এমনটা হলে শুধু হেয়ার রিমুভালের ক্ষেত্রে সমস্যা হবে তা নয়, ত্বকেরও নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। তেমন হলে ইউজ অ্যান্ড থ্রো রেজর ব্যবহার করুন। এগুলো বেশি দামীও না, আবার কাজটাও ভালভাবে করে। (5 common mistakes we all do while shaving)

ত্বক ময়শ্চারাইজ না করা

শেভ করার পর স্নান করে অনেকেই ত্বকে ময়শ্চারাইজার লাগান না। এই কাজটা কিন্তু একেবারেই করবেন না। স্নান করে বেরিয়ে অ্যালকোহল-ফ্রি ভাল মাইল্ড কোনও ময়শ্চারাইজার অবশ্যই লাগাবেন। সারা শরীরে এমনকি বিকিনি এরিয়াতেও ময়শ্চারাইজার বা বডি লোশন লাগাবেন। তাতে রেজর বার্ন বা রুক্ষ ত্বকের সমস্যা হবে না।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

02 Nov 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text