logo
Logo
User
home / Perfumes
ডিওডোরেন্ট লাগানোর সময়ে এই পাঁচটি বিষয় মাথায় রাখুন

ডিওডোরেন্ট লাগানোর সময়ে এই পাঁচটি বিষয় মাথায় রাখুন

ডিওডোরেন্ট আমাদের জীবনের সাথে ওতপ্রোতভাবে যুক্ত। বাড়িতে থাকি কিংবা বাইরে বেরোই, ডিওডোরেন্ট (5 things to remember before using deodorant) একবার না একবার মাখতে হয়। গরমকালে রিফ্রেশিং ফিল করার জন্যই হোক কিংবা শীতকালে স্নান না করার জন্যই হোক, ডিওডোরেন্ট আমরা সব সময়েই লাগাই। কিভাবে এই সুগন্ধি মাখতে হয়, সেটা আবার জানার কি আছে? বোতলের ঢাকতে খুলে স্প্রে করলেই হলো… এটা নিয়ে আবার আর্টিকেল! কি এটাই ভাবছেন তো? আজ্ঞে না, শুধু ঢাকনা খুলে স্প্রে করলেই ডিওডোরেন্ট লাগানো যায় না। তাহলে কিভাবে লাগাবেন? বলছি তো!

আধভেজা গায়ে ডিওডোরেন্ট লাগাবেন

ডিওডোরেন্ট বা ডিও-র মূল কাজ হলো আপনার শরীরের থেকে ঘামের দুর্গন্ধ দূর করা এবং সারাদিন আপনাকে তরতাজা রাখা। তাই স্নান করার ঠিক পরেই ডিও লাগান। কখন ঘাম হবে, কখন তার থেকে দুর্গন্ধ বেরোবে, তার পর আপনি ডিও লাগাবেন – না প্লিস তার জন্য অপেক্ষা করবেন না।

অতিরিক্ত ডিওডোরেন্ট লাগাবেন না

ডিওডোরেন্ট লাগালে ঘামের দুর্গন্ধ বেরোবে না, তাই আপনি মোটামুটি একটা বোতল দিয়ে স্নান করে নেন। অর্থাৎ, এতো বেশি পরিমানে লাগান যে জল দিয়ে স্নানের আর প্রয়োজনই হয়না। আপনি হয়তো ভাবছেন যে আপনার গা থেকে খুব সুন্দর গন্ধ বেরোচ্ছে, কিন্তু মোটেও তা হয় না… আপনি যে ডিও-র ওভারডোজ নিয়ে ফেলেছেন সেটা বোঝা যায়। অতিরিক্ত কোনোকিছুই ভালো না। ডিও যেমন আপনার ঘামের জীবাণু বিনাশ করে তেমনি অতিরিক্ত লাগালে এর মধ্যে থাকা কেমিক্যাল আপনার স্কিনের ক্ষতি করতে পারে।

ডিওডোরেন্ট আর পারফিউম আলাদা

কব্জি কিংবা কানের লতিতে পারফিউম লাগাই আমরা, কারণ ওগুলো হলো পাল্স-পয়েন্ট। ওই জায়গা গুলোতে পারফিউম লাগালে অনেক্ষন সুগন্ধ থাকে। কিন্তু ডিও-র ক্ষেত্রে এই নিয়ম খাটে না।  ডিও সেখানেই লাগান যেখানে ঘাম হয় (5 things to remember before using deodorant), যেমন বগলের নীচে, কনুইয়ের ভেতর দিকে, হাঁটুর পেছনে আর পায়ের আঙুলের তলায়।

স্কিনেই ডিওডোরেন্ট লাগাবেন

আপনাদের মধ্যে অনেকেই জামাকাপড়ের ওপর ডিও স্প্রে করেন, না না স্বীকার করুন যে এরকম করেন! আসলে অনেকের ধারণা ডিও আর পারফিউম এক জিনিস, তাই পারফিউম যেরকম কাপড়ের ওপর স্প্রে করা হয়, সেরকম ডিও-ও কাপড়ের ওপর স্প্রে করেন। কারণ তারা ভাবেন যে জামার ওপর স্প্রে করলে বেশিক্ষন সুগন্ধ থাকবে। এটা একেবারে ভুল ধারণা। ডিওডোরেন্ট নামটার মধ্যেই এর কাজটি লুকিয়ে আছে… ডিওডোরেন্ট মানে হলো যে জিনিষটা বাজে গন্ধ দূর করে। আমাদের স্কিনে, বিশেষত বগলের নীচে দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী জীবাণু থাকে আর ঘামে এরা একটিভ হয়ে ওঠে, ফলে ঘাম থেকে বাজে গন্ধ বেরোয়। ডিওর কাজ ওই দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী জীবাণুকে দূর করা এবং সারাদিন আপনাকে একটা ফ্রেশ ফিল দেওয়া। তাহলে এখন থেকে ডিওডোরেন্ট স্কিনেই লাগাবেন তো?

ঘাম মুছে ডিওডোরেন্ট লাগান

৩-৪ ঘন্টা অন্তর ওয়াশরুমে গিয়ে যেখানে ডিও লাগিয়েছিলেন সেই জায়গা গুলো পরিষ্কার করে আবার ডিও লাগান। ঘাম জমে জায়গাটা যাতে নোংরা না হয় এবং ঘামের ওপেরই যাতে  দেয় না লাগিয়ে ফেলেন, সে জন্য পরিষ্কার করাটা জরুরি। আপনাকে জল দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে না, ভেজা টিসু ব্যাবহার করুন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

22 Apr 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text