home / রূপচর্চা ও বিউটি টিপস
ত্বকের যত্নে কতরকমভাবে ব্যবহার করতে পারেন কাঁচা দুধ

ত্বকের যত্নে কতরকমভাবে ব্যবহার করতে পারেন কাঁচা দুধ

একমাত্র বাঙালিরা ছাড়া বোধ হয় আর কোনও ভারতীয় দুধ কাঁচা (6 ways to use raw milk in skin care) না জ্বাল দেওয়া, সেটা জানতে চায় না! আমরা কিন্তু কাঁচা দুধ, মানে, বাজার থেকে কিনে আনা প্যাকেটের দুধ কিংবা খাটাল থেকে নিয়ে আসা গোরুর দুধ, দুটো বাড়িতে ঢোকা অবধি মানা হবে কাঁচা বলে, আর একবার জ্বাল দেওয়া হয়ে গেলে সেটা খাওয়ার উপযুক্ত বলে ধরা হবে!

মনে করে দেখবেন, পুজোতে কিন্তু জ্বাল দেওয়া দুধ ব্যবহার করা হয় না! কাঁচা দুধেই ঠাকুরকে স্নান করানো থেকে শুরু করে চরণামৃত তৈরি কিংবা সিন্নি মাখা, সবকিছু ওই দুধেই হয়। কাঁচা দুধে পুজোর কাজ করা ছাড়াও, এই ধরনের দুধ দিয়ে রূপচর্চাও কিন্তু দারুণ হয়। বিশেষত. আপনার ত্বক যদি দীর্ঘদিন ঠিক করে ঘষামাজার অভাবে বিবর্ণ, রুক্ষ, শুষ্ক হয়ে যায়, তা হলে এই ত্বকের হারানো জেল্লা ফিরিয়ে আনতে কাঁচা দুধ ব্যবহার করতে পারেন নানা ভাবে। সেই সম্বন্ধেই এখানে আমরা আলোচনা করছি…

ADVERTISEMENT

ক্লেনজার হিসেবে

ত্বকের ধুলোময়লা বের করে তাকে ঝকঝকে করে তুলতেও কাঁচা দুধের জুড়ি মেলা ভার! তিন চামচ গোটা মুগ ডাল ভাল করে মিক্সিতে গুঁড়ো করে নিন। এবার কাঁচা দুধের (6 ways to use raw milk in skin care) মধ্যে ওই গুঁড়োটা মিশিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করুন। সেটা মুখে কিছুক্ষণ রেখে শুকোতে দিন, তারপর ঘষে-ঘষে তুলে ফেলুন। একইসঙ্গে ত্বক পরিষ্কারও হবে আবার ত্বকে জমে থাকা মরা কোষও সরে যাবে। 

টোনার হিসেবে

কাঁচা দুধে কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে তা মুখে-ঘাড়ে-গলায় ভাল করে লাগান। মিনিটদশেক রেখে ধুয়ে ফেলুন। যদি ত্বক তেলতেলে হয়, তা হলে অল্প গরম জলে ধোবেন। যদি ত্বক শুষ্ক হয়, তা হলে সাধারণ কলের জলেই ধোবেন। কাঁচা দুধ মুখের শিথিল মাংসপেশি দৃঢ় করে হারানো ইলাস্টিসিটি ফিরিয়ে আনে।

ADVERTISEMENT

ময়শ্চারাইজার হিসেবে

কাঁচা দুধ ত্বকের অনেক গভীরে প্রবেশ করে তাড়াতাড়ি এবং ত্বককে ভিতর থেকে পুষ্টি জোগায়। হাফ বাটি কাঁচা দুধে দু-তিন চামচ বেসন, কয়েক ফোঁটা মধু এবং গোলাপ জল মিশিয়ে ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এই মিশ্রণটা মুখে-ঘাড়ে-গলায় মেখে মিনিটদশেক রেখে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, ত্বক ভিতর থেকে নরম হয়ে উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে!

সানস্ক্রিন হিসেবে

আমরা যাঁরা নিয়মিত রোদে বেরোই, তাঁদের ভাল সানস্ক্রিনের খুবই প্রয়োজন। আর এই কাজে সাহায্য করতে পারে কাঁচা দুধ। রোদে বেরনোর আগে এবং রোদ থেকে ফিরে মুখে কাঁচা দুধ (6 ways to use raw milk in skin care) আর টক দইয়ের পেস্ট লাগান। এতে রোদে পোড়া ভাব তৎক্ষণাৎ পালাবে!

ADVERTISEMENT

ব্রণ ও অ্যাকনে দূর করতে

যাঁরা প্রায়ই ব্রণর সমস্যায় ভোগেন, তাঁরা কাঁচা দুধের পাদপদ্মে নিজেদের সঁপে দিন! জোকস অ্যাপার্ট, কাঁচা দুধ ও মুলতানি মাটি দিয়ে তৈরি একটা ফেস প্যাক বলে দেওয়া হল এখানে। সেটি রোজ লাগান, দেখবেন, ব্রণর সমস্যা থেকে কিছুদিনের মধ্যেই মুক্তি পাবেন। কাঁচা দুধ আর মুলতানি মাটি কাদা-কাদা করে গুলে নিন। তাতে কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে এই মিশ্রণটি সারা মুখে, বিশেষত যেখানে-যেখানে ব্রণ হয়েছে, সেখানে থুপে-থুপে লাগান। শুনতে নিরীহ হলেও, এই প্যাকটি খুবই উপকারী।

ট্যান রিমুভার হিসেবে

রোদে পুড়ে ত্বকে কালো ছোপ পড়েছে? এক বাটি কাঁচা দুধে গোটাছয়েক আমন্ড এবং কয়েকটা খেজুর ভিজিয়ে রাখুন সারা রাত। খেজুরের বিচি বের করে নেবেন। এবার সকালে উঠে স্নান করার আগে, এই মিশ্রণটা মিক্সিতে ভাল করে ব্লেন্ড করে নিন। তারপর মুখে-ঘাড়ে-গলায় ভাল করে লাগিয়ে মিনিটপনেরো রেখে ধুয়ে ফেলুন। মাসখানেক করে দেখুন, ট্যান দূরে পালাবে!

ADVERTISEMENT

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!          

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

ADVERTISEMENT
08 Mar 2022
good points

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text