home / Age Care
অকালে বলিরেখা পড়তে পারে এই সাতটি কারণে

অকালে বলিরেখা পড়তে পারে এই সাতটি কারণে

একটা সময় ছিল যখন চোখের চারপাশে বলিরেখা বা হালকা হালকা দাগ দেখতে পাওয়া গেলে বলা হত যে বয়স হয়ে গেছে, কিন্তু এখন ত্বকে বলিরেখা পড়ার কোনও বয়স হয় না। পঁচিশ-ত্রিশ বছর বয়সেই অনেকের ত্বকে বলিরেখা দেখা যায় এবং তা বেশ স্পষ্ট। নানা কারণে বলিরেখা দেখা দিতে পারে। শুধু যে চোখের পাশেই Wrinkles বা বলিরেখা দেখা যায় তা কিন্তু নয়। ঠোঁটের পাশে, কপালে, এমনকি গলা বা ঘাড়েও বলিরেখা দেখা যায় অনেকেরই, বেশ অল্প বয়সেই। বলিরেখা দূর করে ত্বক টানটান ও মসৃণ করে তোলার জন্য অনেকেই নানারকমের বিউটি প্রোডাক্টের উপরে নির্ভর করেন, আবার কেউ কেউ ভরসা রাখেন ঘরোয়া চিকিৎসার উপরেই।

বলিরেখা দূর করার নানা ঘরোয়া চিকিৎসার বিষয়ে অনেকেই অনেক টোটকা বা চিকিৎসার কথা বলেন। তবে যেটা বলেন না, তা হল, ঠিক কী কী কারণে বলিরেখা পড়ে। তবে আমরা আপনাদের জানাবো

বলিরেখা কী?

কখনও খেয়াল করে দেখবেন যে ত্বকের কিছু কিছু অংশের চামড়া কুঁচকে যায়, এগুলোই Wrinkles বা বলিরেখা। ত্বকের স্বাভাবিক ইলাস্টিসিটি যখন নষ্ট হয়ে যায়, তখনই মুখে, গালে, গলায় বা ঘাড়ে চামড়া ঝুলে যায় এবং বলিরেখা স্পষ্ট হয়ে ওঠে। মুখের চামড়া ঝুলে পড়া, চোখের পাশে এবং নীচের দিকে হালকা হালকা লাইন, হাত বা পায়ের চামড়া কুঁচকে যাওয়া কপালে এবং ঠোঁটের চারদিকে স্পষ্ট হয়ে ওঠা ভাঁজ – এসবই বলিরেখা পড়ার লক্ষণ।

কী কী কারণে বলিরেখা পড়ে

আমাদের বয়স হওয়ার সঙ্গেই ত্বকেরও বয়স বাড়ে এবং ত্বকের প্রাকৃতিক আর্দ্রতা কমতে শুরু করে। তবে এখন  নানা কারণে অল্প বয়সেই আমাদের ত্বকে বলিরেখা পড়তে পারে –

  • অত্যধিক দূষণ
  • অনেকক্ষণ রোদে থাকা
  • ঠিকভাবে ত্বকের যত্ন না নেওয়া
  • ধূমপান
  • ভিটামিন ডি-৩-এর অভাব
  • অতিরিক্ত কসমেটিকস ব্যবহার করা
  • ঘন ঘন বিউটি প্রোডাক্ট বদলানো

কোন কোন অংশে বলিরেখার প্রকোপ বেশি হয়?

এই প্রশ্নের খুব সহজ উত্তরটি হল, শরীরে যে যে অংশের ত্বক তুলনামূলকভাবে নরম সেখানে বলিরেখা পড়ার আশঙ্কা সবচেয়ে বেশি। আমাদের শরীরে মুখের ত্বক সবচেয়ে বেশি নরম হয়, সুতরাং বুঝতেই পারছেন, মুখের ত্বকে বলিরেখা পড়ার আশঙ্কা সবচেয়ে বেশি থাকে। এছাড়াও

  • চোখের চারপাশে ও নীচে
  • ঠোঁটের চারপাশে
  • কপালে
  • ঘাড়ে
  • গলায়
  • হাতে ও পায়েও wrinkles পড়ে।

বেশি হাসলে বলিরেখা পড়ে – সত্যি নাকি ভুল ধারনা?

এই প্রশ্নটিই অবান্তর! বলিরেখা পড়তে পারে, এই ভয়ে যদি আপনি নিজের আবেগ প্রকাশ করা বন্ধ করে দেন, তাহলে বাঁচবেন কীভাবে? আর বেশি হাসলে বলিরেখা পড়ে, এমন ধারণা সম্পূর্ণভাবে ভ্রান্ত। সঠিকভাবে ত্বকের পরিচর্যা ও জীবনযাত্রা করলে (ঠিক সময়ে ঘুমানো, সঠিক ডায়েট মেনে চলা, ধূমপান না করা ইত্যাদি) বলিরেখা পড়ার আশঙ্কা অনেকটাই কম হয়। 

খাদ্যাভ্যাসে কোনও পরিবর্তন এনে কি বলিরেখা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়?

নিশ্চয়ই। ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবার যেমন পেঁপে, পালং শাক, গাজর, সোয়াবিন, মাছ ইত্যাদি বেশি করে খান। প্রচুর পরিমাণে জল এবং জলীয় খাবার খান সারাদিন ধরে। গ্রিন টি খেতে পারেন। ফাইবারযুক্ত খাবার খান। বেশি তেল-মশলাযুক্ত খাবার, ভাজা, প্রসেস করা খাবার না খাওয়াই ভাল। এতে ত্বকের তারুণ্য বজায় থাকে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

22 Dec 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text