রিলেশনশিপ

পার্টনারের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে extra marital ডেটিং অ্যাপে মজে আছেন আট লক্ষ ভারতীয়!

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Jan 28, 2020
পার্টনারের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে extra marital ডেটিং অ্যাপে মজে আছেন আট লক্ষ ভারতীয়!

আপনি কি বিবাহিত (married)? পার্টনারকে নিয়ে কতটা সুখী আপনি? না! এ তো একান্তই আপনার ব্যক্তিগত অনুভূতি। সে প্রশ্ন করে আপনাকে বিব্রত করব না। আর আপনি সত্যি উত্তর দেবেন, নাকি এড়িয়ে যাবেন সে ভারও আপনার। তবে জানেন তো, পার্টনারের সঙ্গে রীতিমতো বিশ্বাসঘাতকতা করে এক্সট্রা ম্যারিটাল ডেটিং অ্যাপে (extra marital dating app) মজে রয়েছেন অন্তত আট লক্ষ বিবাহিত ভারতীয়। সম্প্রতি এক গবেষণায় উঠে এসেছে এমন চমকপ্রদ তথ্য।

ওই গবেষণায় প্রকাশ, এই আট লক্ষের মধ্যে পুরুষ-মহিলা রয়েছেন সমানভাবে। আর বেঙ্গালুরুতে এই হার নাকি সবচেয়ে বেশি। ওই অ্যাপের সদস্যদের নিউ ইয়ার রেজোলিউশন জানতে চাওয়া হয়েছিল। অন্তত হাজার জন সদস্য বলেছিলেন, ফ্লার্ট করাটাই নাকি তাঁদের নিউ ইয়ার রেজোলিউশন! দেখা গিয়েছে, জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ছুটি কাটিয়ে কাজে ফেরার পর নাকি ওই অ্যাপে প্রচুর সদস্য লগ ইন করেন।

২০১৯-এর নভেম্বরে বেঙ্গালুরু, মুম্বই, কলকাতা, দিল্লি, পুনে, নিউ দিল্লি, হায়দরাবাদ, চেন্নাই, গোরেগাঁও, আহমেদাবাদ, জয়পুর, চন্ডীগঢ়, লখলউ, কোচি, নয়ডা, বিশাখাপত্তনম, নাগপুর, সুরাট, ইনদউর, ভুবেনশ্বর থেকে সবথেকে বেশি সংখ্যক পুরুষ এই অ্যাপের সদস্য় হয়েছেন। অন্যদিকে বেঙ্গালুরু, মুম্বই, দিল্লি, কলকাতা, নিউ দিল্লি, পুনে, হায়দরাবাদ, চেন্নাই, গোরেগাঁও, চন্ডীগঢ়. আহমেদাবাদ, জয়পুর, কোচি, নয়ডা, লখনউ, ইনদউর, সুরাট, গুয়াহাটি, নাগপুর এবং ভোপাল থেকে মহিলা সদস্য সংখ্যা বেশি।

 

জানা গিয়েছে, ২০১৯-এর তুলনায় ২০২০-র শুরুতেই সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা বিপুল হারে বেড়ে গিয়েছে। গত দু’সপ্তাহের তুলনায় ২০২০-র শুরুতে প্রতি সপ্তাহে ওই অ্যাপে সাবস্ক্রাইবারের পরিমাণ ৩০০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। ২০১৯-এর জানুয়ারিতেও ঠিক এই ঘটনা ঘটেছিল। হঠাৎ করেই সাবস্ক্রাইবার আগে তুলনায় ২৪৫ শতাংশ বেড়ে গিয়েছিল। ফলে গবেষণা বলছে, বছরের শুরুতে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার জন্য অ্যাপের সাহায্য নিচ্ছেন অনেক বেশি মানুষ! 

এই গবেষণার ফলাফল প্রকাশ্যে আসার পর আলোচনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। তাহলে কি বিবাহিত জীবনে সুখী নয় নয়া প্রজন্ম? এক্সট্রা ম্যারিটাল অ্যাপের এই সীমাহীন চাহিদা কি তেমনই ইঙ্গিত দিচ্ছে? মনোবিদদের একটা অংশের মতে, এর বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে। প্রত্যেক সাবস্ক্রাইবারই বিয়েতে সুখী নন, এমন ভাবাটা ঠিক নয়। হয়তো অনেকে অ্যাডভেঞ্চার করতে জড়িয়ে পড়েছেন। কারও বা ডিসট্যান্স রিলেশনশিপ। কেউ বা নিছকই কৌতূহলে সাবস্ক্রাইব করেছেন। প্রথমত আরও বিস্তারিত গবেষণার প্রয়োজন। তা না হলে, এ থেকে কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছতে চান না মনোবিদদের একটা বড় অংশ। শহর এবং বয়স ভিত্তিক সাবস্ক্রাইবারের চরিত্র পাল্টে যায় কেন এবং কীভাবে, সেটাও আলোচনা করা জরুরি বলে মনে করেন তাঁরা। 

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম…আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!