রূপচর্চা ও বিউটি টিপস

সুন্দর মোলায়েল ত্বকের জন্য করতে পারেন ব্যানানা ফেসিয়াল

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Nov 28, 2020
সুন্দর মোলায়েল ত্বকের জন্য করতে পারেন ব্যানানা ফেসিয়াল in bengali

ভাবছেন, কলা দিয়ে ফেশিয়াল (all you need to know about banana facial) হয় নাকি? আরে বাবা, হয় হয়। সব কিছু দিয়েই সব কিছু হয়! এখন সব জিনিসের যা দাম, তাতে ঘরোয়া উপকরণ ফেলে দেওয়ার কোনও মানে হয় না। তাছাড়া পাকা কলা দিয়ে দারুণ হেয়ার মাস্ক তৈরি করা গেলে ফেশিয়াল কেন করা যাবে না?

কলার ফেস স্ক্রাব

পাকা কলা ত্বকের আর্দ্রতা বাড়াতে ও মোলায়েল রাখতে সাহায্য করে (ছবি – পেক্সেলস)

ফেসিয়ালের প্রথম ধাপ হল স্ক্রাব করা। ব্যানানা ফেসিয়ালের (all you need to know about banana facial) ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হবে না। কলার স্ক্রাব তৈরি করা বেশ সহজ। দেখে নিন কিভাবে তৈরি করবেন আর তা ব্যবহারই বা করবেন কিভাবে –

উপকরণ –  এক টেবিল চামচ মিল্ক পাউডার, এক টেবিল চামচ সুজি, আদ চা চামচ লেবুর রস, এক চা চামচ অলিভ অয়েল এবং একটি কলার খোসা

তৈরির পদ্ধতি ও ব্যবহার বিধি

প্রথমেই কলার খোসা ছাড়িয়ে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে নিন। বাকি উপকরণগুলি একটি পাত্রে ভাল করে মিশিয়ে নিন। একদম স্মুদ পেস্ট তৈরি করবেন না, তাতে স্ক্রাব করা যাবে না। এবারে কলার খোসার টুকরোর সঙ্গে বাকি পেস্টটি মিশিয়ে ভাল করে মুখে, গলায়, পিঠে স্ক্রাব করে নিন। কলায় যেহেতু ভিটামিন বি ১২, পটাশিয়াম এবং ভিটামিন বি ৬ রয়েছে, কাজেই কলার এই স্ক্রাবে ব্রণ ও অ্যাকনের সমস্যা দূর হয়।

কলার মাসাজ ক্রিম

ফেসিয়ালের দ্বিতীয় ধাপ হল মাসাজ। ব্যানানা ফেসিয়ালের (all you need to know about banana facial) ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হবে না। কলার মাসাজ ক্রিম তৈরি করা বেশ সহজ। দেখে নিন কিভাবে তৈরি করবেন আর তা ব্যবহারই বা করবেন কিভাবে –

উপকরণ – অর্ধেক পাকা কলা, এক চা চামচ মধু, দুই চা চামচ লেবুর রস, এক চিমটি হলুদ গুঁড়ো, দেড় চা চামচ টক দই

তৈরির পদ্ধতি ও ব্যবহার বিধি

একটি বাটিতে সব উপকরণ ভাল করে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ফেলুন। এবার এই পেস্টটি ক্রিমের মত করে মুখে মাসাজ করে নিন। মিনিট দশেক মাসাজ করে পরিষ্কার তোয়ালে দিয়ে মুখ মুখে নিন।

কলার ফেস প্যাক

সপ্তাহে একবার কলার ফেসপ্যাক লাগাতে পারেন (ছবি – পেক্সেলস)

ফেসিয়ালের শেষ ধাপ হল প্যাক লাগানো। ব্যানানা ফেসিয়ালের (all you need to know about banana facial) ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হবে না। কলার ফেস প্যাক তৈরি করা বেশ সহজ। দেখে নিন কিভাবে তৈরি করবেন আর তা ব্যবহারই বা করবেন কিভাবে –

উপকরণ – এক চা চামচ কমলালেবুর খোসার গুঁড়ো (যদি না থাকে সেক্ষেত্রে অবশ্য ওই একই পরিমান বেসন অথবা চন্দনের গুঁড়ো ব্যবহার করতে পারেন), অর্ধেক কলা, এক চা চামচ মধু, দুই চা চামচ লেবুর রস, এক চিমটি হলুদ গুঁড়ো, দেড় চা চামচ টক দই

তৈরির পদ্ধতি ও ব্যবহার বিধি

একটি কাচ অথবা ফাইবারের বাটিতে সব উপকরণ নিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। দেখবেন কোনও লাম্প যেন না থাকে। এবারে এই প্যাকটি মুখে, গলায় ও ঘাড়ে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

কলা দিয়ে ফেশিয়াল করার উপকারিতা

  • যদি আপনার ত্বকের ধরন শুষ্ক হয়, তাহলে অবশ্যই আপনার ব্যানানা ফেশিয়াল করা উচিত। কলায় রয়েছে এমন কিছু উপাদান যা ত্বক মসৃণ ও মোলায়েম করতে সাহায্য করে। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতেও কলা সাহায্য করে।
  • কলায় রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান, যা ত্বকের নানা র‍্যাশ বা চুলকানি দূর করতেও সাহায্য করে। অনেক সময়ে নানা কসমেটিক বা মেকআপ প্রোডাক্ট থেকে আমাদের ত্বকে অনেকরকমের সমস্যা হয়। এসব সমস্যা দূর হয়ে যায় যদি মাঝে মাঝে ব্যানানা ফেশিয়াল করা যায়।
  • আপনি কি জানেন, ত্বকের বয়স বাড়তে দেয় না কলা? কলায় রয়েছে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ফলে ত্বকের ইলাস্টিসিটি ধরে রাখার জন্য মাঝেমধ্যে ব্যানানা ফেশিয়াল (all you need to know about banana facial) করাই যায়।

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!