লাইফস্টাইল

Aphrodisiac Foods যা বাড়িয়ে দেয় আপনার লিবিডো (Aphrodisiac foods to boost your libido)

Doyel BanerjeeDoyel Banerjee  |  Feb 5, 2019
Aphrodisiac Foods যা বাড়িয়ে দেয় আপনার লিবিডো (Aphrodisiac foods to boost your libido)

আপনারা কেউ অ্যাফ্রোদিতির (Aphrodite) নাম শুনেছেন? না, না সে আমার আত্মীয় নয় মোটেই। পাড়া প্রতিবেশীও কেউ নয়।অ্যাফ্রোদিতি হলেন প্রাচীন গ্রিসের এক দেবী। যিনি হলেন ভালবাসা, কামনা বাসনার (Libido), আনন্দ আর সৌন্দর্যের দেবী।আর এই দেবী অ্যাফ্রোদিতির নামের সঙ্গে মিলিয়েই নাম দেওয়া এক বিশেষ ধরণের খাবারের যার নাম অ্যাফ্রোডিসিয়াক ফুড (Aphrodisiac Food)। এখন অ্যাফ্রোদিতি ভালোবাসা আর আনন্দের দেবী বলে ভাববেন না, যে এই অ্যাফ্রোডিসিয়াক খাবার (Aphrodisiac Food) খেলেই আপনার মনে দারুণ প্রেম জাগবে বা আনন্দের বন্যা বইবে। বরং মিলনের সেই বিশেষ মুহূর্ত হয়ে উঠবে আরও অনেক বেশি কামোদ্দীপক (libido)। লজ্জায় রাঙা হয়ে ওঠার কারণ নেই। কারণ সারা পৃথিবীতে এই অ্যাফ্রোডিসিয়াক খাবারের তুমুল জনপ্রিয়তা (Popular)। বলা হয় এই খাবারগুলো খেলে আপনি আরও বেশি কামাতুর হয়ে পড়বেন। যার ফলে সঙ্গী/ সঙ্গিনীর সঙ্গে আপনার মিলন হবে মধুর। শুভকাজে আর দেরি কেন তবে? দেখে নিই দেবী অ্যাফ্রোদিতির সঙ্গে জড়িত সেইসব খাবারগুলো আসলে কোনটা।

মাকা বা পেরুভিয়ান ভায়াগ্রা (Maca or Peruvian Viagra)

maca

নাম শুনেই বুঝতে পারছেন এর ক্ষমতা ঠিক কতটা। মাকা আসলে মিষ্টি মূল যা সন্তান ফারটিলিতি বা সন্তান উতপাদনের ক্ষমতা বাড়ায়। পেরু অঞ্চলে এটি সবচেয়ে বেশি হয় এবং এখানেই একে বলে পেরুভিয়ান ভায়াগ্রা। কারণ মাকা যৌন উত্তেজনা কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়। পুরুষদের মধ্যে বাড়িয়ে দেয় লিবিডো এবং ইরেকটাইল ফাংশান।

স্যাফ্রন বা কেশর (Saffron)

saffron

দক্ষিণপূর্ব (South East Asia) এশিয়ায় প্রাপ্ত স্যাফ্রন বা কেশর আসলে এক জাতীয় মশলা। মুড পরিবর্তন করতে, হতাশা ও অবসাদ কমাতে এর ব্যবহার যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। জানেন নিশ্চয়ই, নতুন বিয়ের পর ফুলশয্যার রাতে নতুন বউ কেশর মেশানো দুধ কেন নিয়ে যায়? ইয়েস! যাতে স্বামীর লিবিডো (libido) বা কামশক্তি বৃদ্ধি পায়। আর দুজনের প্রথম রাতের মিলন হয়ে ওঠে আরও মধুর।শুধু পুরুষদের ইরেকটাইল ফাংশান ঠিক রাখতেই কেশর কাজ করে না, মহিলাদের অরগ্যাজম এবং যোনিপথ পিচ্ছিলও করে তোলে এই কেশর।

পিস্তাশিও নাট বা পেস্তা (Pistachio Nuts)

pesta

ইতিহাস বলছে খ্রিস্টপূর্ব ৬ হাজার বছর থেকে মানুষ পেস্তা ব্যবহার করছে।এতে আছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন(protein), ফাইবার (fiber) আর ফ্যাট (fat)। আর খেতে তো দারুণ ভালো, সেটা বলাই বাহুল্য। যাদের ইরেকটাইল ম্যালফাংশানের (erectile malfunction) সমস্যা আছে তারা এই অ্যাফ্রোডিসিয়াক খাবারটি খেয়ে দেখতে পারেন। যেহেতু পেস্তা আপনার শরীরে কোলেস্টরল নিয়ন্ত্রন করে এবং রক্তচাপকেও কাবুর মধ্যে রাখে, তাই বিশেষজ্ঞরা মনে করেন পেস্তা খেলে পেনিসের(Penis) মধ্যে দ্রুত রক্ত চলাচল হয় ফলে লিঙ্গ  তাড়াতাড়ি শক্ত হয়ে ওঠে।

ফেনুগ্রিক বা মেথি

fenugreek kissing

বেশিরভাগ এশিয়ান দেশগুলিতে রান্নায় ব্যবহার হয় মেথি। শুধু তাই নয় চুল এবং ত্বকের যত্নেও মেথির ব্যবহার দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে। কিন্তু লিবিডো বাড়িয়ে তুলতেও কিন্তু এই মেথি যথেষ্ট কার্যকরী। Estrogen ও Testosterone হরমোন নিঃসরণে মেথি খুব কাজ দেয়। যেহেতু এই দুটোই হল সেক্স হরমোন, তাই লিবিডো বৃদ্ধি করতে পারফেক্ট চয়েস হল মেথি।

এগুলো বিজ্ঞানসম্মত অ্যাফ্রোডিসিয়াক ফুড। যার মধ্যে লাল জিনসেং, গিঙ্ক বিলোবা ও ট্রিবুলাসও পড়ে। অনেকে চকোলেট, মধু ইত্যাদিকে অ্যাফ্রোডিসিয়াক ফুড বলেন। যদিও এর কোনও বিজ্ঞানসম্মত ব্যাখ্যা নেই।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!