বিনোদন

বাড়িতে বসেই শিল্পীদের প্রচেষ্টায় তৈরি হল শর্টফিল্ম, ‘ঝড় থেমে যাবে একদিন’

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Apr 14, 2020
বাড়িতে বসেই শিল্পীদের প্রচেষ্টায় তৈরি হল শর্টফিল্ম, ‘ঝড় থেমে যাবে একদিন’

করোনা আতঙ্কে গৃহবন্দি সকলে। প্রত্যেকেই বিভিন্ন অসুবিধের মধ্যে রয়েছেন। কিন্তু ভারতের মতো দেশে যেখানে একটা বড় অংশের মানুষ প্রতিদিনের রোজগারের উপর জীবনধারণ করেন, সেখানে চিত্রটা অনেকটাই আলাদা। বহু কষ্টে দিন গুজরান করতে হচ্ছে তাঁদের। প্রত্যেক ক্ষেত্রেই ভেঙে পড়েছে অর্থনীতি। সিনে পাড়ায়ও ছবিটা এক রকম।

এই পরিস্থিতিতে টালিগঞ্জের কলাকুশলীদের পাশে দাঁড়াতে উদ্যোগী হয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা (Mamata) বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অনুপ্রেরণায় একটি শর্ট ফিল্ম তৈরি করেছেন শিল্পী। ছবির নাম ঝড় থেমে যাবে একদিন। এই ছবি থেকে আয় হওয়া অর্থ টলিউডের কলাকুশলীদের সাহায্যার্থে ব্যবহার করা হবে।

এই ছবিটি পরিচালনা করেছেন অরিন্দম (Arindam) শীল। চিত্রনাট্য অনুযায়ী, রুক্মিণী মৈত্রের বাবা পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। রুক্মিণী কলকাতায়। লকডাউন পরিস্থিতির কারণে বাবার কাছে যেতে পারছেন না। রুক্মিণীর আবাসনেই থাকেন আবির চট্টোপাধ্যায়, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়, কোয়েল মল্লিক, মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহান, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। রুক্মিণীর এই বিপদে সকলেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। ফোন যায় প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের কাছেও। কলকাতা পুলিশের সাহায্যে রুক্মিণী অসুস্থ বাবার কাছে পৌঁছতে পারেন। একেবারে শেষে দেব স্ক্রিনে এসে এই ছবি তৈরির কারণ বুঝিয়ে বলেন। 

 

এই শর্ট ফিল্মে প্রত্যেকেই নিজের পরিচয়েই অভিনয় করেছেন। পুরো ছবিটা তৈরি করার জন্য কোনও শিল্পীই বাড়ি থেকে বের হননি। পুরোটাই তৈরি হয়েছে বাড়িতে থেকেই। করোনা মোকাবিলায় যে সব সচেতনতা নেওয়ার কথা বারবার করে প্রশাসনের তরফে বলা হয়েছে, সে কথা সব শিল্পীই নিজেদের ডায়লগে মাধ্যমে মনে করে দিয়েছেন। গতকাল অর্থাৎ বাংলা নববর্ষের দিন মুক্তি পেয়েছে এই ছবি। 

অন্যদিকে বাংলা নববর্ষের প্রথম দিনে করোনা যুদ্ধের গান প্রকাশিত হয়েছে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ (টিএমসিপি)-এর তরফে। সংগঠনের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা হয়েছে সেই গান। রাজ্যবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে এবং করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে চলতে থাকা লড়াইয়ে রাজ্য সরকারের উপরে আস্থা রাখার আহ্বান জানিয়ে ওই গান আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রকাশ্যে এনেছেন টিএমসিপি সভাপতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য। ‘এই আঁধার রাতে, রেখে হাতটা হাতে, চল প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হই/ করোনামুক্ত পৃথিবী আমরা দেখবই দেখবই।’ এই গানই ‘টিম টিএমসিপি’র নামে রিলিজ করা হয়েছে মঙ্গলবার। যে ভিডিয়ো ইউটিউবে এ দিন টিএমসিপি আপলোড করেছে, তার শুরুতে অবশ্য তৃণাঙ্কুরের তরফ থেকে নববর্ষের শুভেচ্ছা রয়েছে এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে করোনার বিরুদ্ধে যে লড়াই চলছে, তার উপরে আস্থা রাখার আহ্বান রয়েছে। গানটি লিখেছেন প্রান্তিক চক্রবর্তী। গেয়েছেন কৌশেয় রায়।

সব মিলিয়ে এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে করোনা বিরুদ্ধে লড়াই চালাচ্ছে সরকার। আপনারা বাড়িতে থেকে সেই লড়াইয়ে সাহায্য করুন।