Advertisement

রূপচর্চা ও বিউটি টিপস

সুন্দর ও জেল্লাদার ত্বকের জন্য ওটস কত উপকারী জানেন?

Indrani BoseIndrani Bose  |  Mar 2, 2021
সুন্দর ও জেল্লাদার ত্বকের জন্য ওটস কত উপকারী জানেন?

Advertisement

যাঁরা একটু স্বাস্থ্য সচেতন, তাঁরা অনেকেই স্বাস্থ্যকর ব্রেকফাস্ট হিসেবে বেছে নিয়েছেন ওটস। আর আপনিও যদি সেই তালিকায় পড়েন, তবে আপনার বাড়িতে ওটস থাকা কিন্তু মাস্ট!

ওটস খেতে অনেকেই পছন্দ করেন, আবার অনেকে স্বাদের কথা না ভেবে শুধুমাত্র স্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করেও ওটস খেয়ে থাকেন। চটজলদি তৈরিও করা যায়।

কিন্তু ওটস যে শুধু স্বাস্থ্যকর খাবার তা নয়, একইসঙ্গে ত্বকের যত্নে ওটস দারুণ কার্যকরী। তাই আপনার ত্বককে আরও উজ্জ্বল ও কোমল করে তুলতে অবশ্যই ওটসের দারুণ গুণ  (oats face pack)রয়েছে। ওটস আপনার ত্বকের কী উপকার করে , আসুন জেনে নেওয়া যাক। 

আপনার ত্বকের জন্য কতটা ভাল ওটস?

ওটস আপনার ত্বকের জন্য কতটা উপকারী

  • ওটসে আছে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন ই, প্রোটিন, ফ্যাট, মিনারেল। যা ত্বকের জন্য খুবই ভাল। ত্বকের বিভিন্ন ওষুধ তৈরিতেও ওটস ব্যবহার  (oats face pack)করা হয়। ত্বকের একজিমার মতো অসুখ সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে ওটস।
  • ওটসের মধ্যে আছে অ্যামিনো অ্যাসিড এবং ভিটামিন বি। যা ত্বকের রক্ত চলাচল বাড়ায়। ফলে ত্বকের উপরের অংশে কোনও কালো দাগ-ছোপ তৈরি হয় না।
  • ওটসে আছে অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান। যা ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নেয়। ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে। ত্বকের মরা কোষ উঠে যায়। ফলে অ্যাকনের সমস্যা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।
  • শুষ্ক এবং সংবেদনশীল ত্বকের জন্য ওটস অয়েল প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজারের কাজ করে। ত্বকে জলের ভারসাম্য বজায় রাখে।

প্রয়োজন মতো বানিয়ে নিন ফেস প্যাক

ওটস ফেস প্যাক

ব্রণর সমস্য়ায়

আধ কাপ জলে আধ কাপ ওটস ফুটিয়ে ঠান্ডা করে নিন। ঠান্ডা হলে একটি মিশ্রণ তৈরি হয়ে যাবে। ত্বকের যে অংশে ব্রণ রয়েছে, সেখানে এই মিশ্রণ আঙুলে করে লাগিয়ে নিন। অন্তত ১৫ মিনিট এই প্যাক রাখুন। তারপর হালকা গরম জলে মুখ ধুয়ে নেবেন। সপ্তাহে অন্তত দুইবার এই ওটস ফেস প্যাক (beauty benefits of oats)ব্যবহার করুন। ব্রণর সমস্যা সমাধান হবে। 

 

ট্যানের জন্য

তিন টেবিল চামচ ওটস পাউডার নিন। তার সঙ্গে পরিমাণ মতো টক দই মিশিয়ে নেবেন। একটি মিশ্রণ তৈরি হবে। এরপর ত্বকের যেসব অংশে সান ট্যান রয়েছে, সেখানে প্যাক লাগিয়ে রেখে দিন। ২০ মিনিট রেখে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন। মুখ ধোয়ার পর অবশ্যই ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নেবেন। সপ্তাহে অন্তত তিনবার এই প্যাক  (oats face pack)লাগান।

ব্ল্যাকহেডসের জন্য

দুই টেবিল চামচ ওটস পাউডার নিন। তার সঙ্গে তিন টেবিল চামচ ইয়োগার্ট এবং আধ টেবিলচামচ লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ নাকের উপরে, দুই পাশে, থুতনিতে লাগিয়ে নেবেন। এছাড়াও ত্বকের যে সব অংশে ব্ল্যাকহেডস রয়েছে, সেখানে লাগিয়ে রাখুন। ভাল করে স্ক্রাব করে নেবেন। মনে রাখবেন খুব বেশি ঘষবেন না। অন্তত ১৫ মিনিট এভাবেই রেখে দিন। তারপর শুকিয়ে গেলে তুলে ফেলবেন। ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। তারপর ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। আপনার ত্বক ভাল থাকবে (beauty benefits of oats)।

যে বিষয়টি খেয়াল রাখবেন – প্রতিটি ফেস মাস্ক লাগানোর আগে আপনার হাতের একটি ছোট অংশে লাগিয়ে দেখে নিন। যদি ত্বকে কোনও সমস্যা না হয় তবেই একমাত্র আপনার মুখে লাগাবেন। সংবেদনশীল ত্বক হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। 

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!       

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!