home / Periods
ঋতুস্রাবের সময়ে ট্যাম্পন ব্যবহারের সুবিধে-অসুবিধে

ঋতুস্রাবের সময়ে ট্যাম্পন ব্যবহারের সুবিধে-অসুবিধে

ঋতুস্রাব, এমন একটা বিষয় যে হলেও কষ্ট আবার না হলেও কষ্ট। ঋতুস্রাবের সময়ে বেশিরভাগ মহিলারাই স্যানিটারি ন্যাপকিন বা প্যাড ব্যবহার করেন। যদিও বেশ কয়েক বছর আগে পর্যন্তও গ্রামের দিকে কাপড় ব্যবহার করা হত। তবে এখন নানা সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে অনেক জায়গায় ভেন্ডিং মেশিন বসানো হয়েছে যেখান থেকে স্বল্পমূল্যে বা কোনও সময়ে হয়ত বিনামূল্যেই ঋতুমতী মহিলারা প্যাড নিতে পারেন। তবে অনেক চিকিৎসকের মতে, প্যাডে এমন কিছু কেমিক্যাল দেওয়া থাকে যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। সেকারণেই অনেকে মেন্সট্রুয়েশন কাপ ব্যবহার করেন আবার অনেকেই ট্যাম্পন (benefits and side effects of using tampon)। কিন্তু এই ট্যাম্পন ব্যাপারটা কী, তা অনেকে জানেন না। আজ তাই আলোচনা করব, ট্যাম্পনের বিষয়ে।

ট্যাম্পন কী?

অনেকেই ট্যাম্পন ব্যবহারে স্বচ্ছন্দ

ট্যাম্পন হল তুলো দিয়ে তৈরি একটি বস্তু যা আকারে সিলিন্ডারের মত। না, সিলিন্ডারের মত বড় নয়, বরং এতটাই ছোট আকারের হয় যা আপনার যোনিতে অনায়াসে ফিট হতে পারে। কিছু কিছু ট্যাম্পনের সঙ্গে একটি অ্যাপলিকেটর দেওয়া হয় যাতে ইনসারট করতে সুবিধে হয়। ট্যাম্পনের পিছনদিকে একটি তার লাগানো থাকে যাতে সময়মত আপনি এটি টেনে বার করে নিতে পারেন।

ট্যাম্পন ব্যবহারের সুবিধে

১। যেহেতু এটি আকারে খুব ছোট হয়, কাজেই বাইরে বেরলে আপনি এটি পকেটেই (benefits and side effects of using tampon) রাখতে পারেন। আলাদা করে ব্যাগ নেওয়ার প্রয়োজন নেই।

২। স্যানিটারি প্যাড ব্যবহার করলে ঋতুস্রাবের শেষের দিকে যোনির চারপাশের ত্বকে অনেক সময়ে জ্বালা করে, র‍্যাশ বেরয়। কিন্তু ট্যাম্পনের ক্ষেত্রে এই সমস্যা নেই। কারণ এটি যোনির ভিতরে ঢুকে যায় এবং পিরিয়ডের সময়ে বেরন রক্ত শুষে নেয়। ফলে যোনির বাইরে কোনও সমস্যা হয় না।

৩। ট্যাম্পনের আরও একটি সুবিধে হল, এটি একবার ভিতরে ঢুকে গেলে আপনাআপনি বেরয় না। যতক্ষণ না আপনি নিজে এটি বার করছেন, ততক্ষণ ট্যাম্পন এক জায়গায় থাকে। কাজেই এবার থেকে ঋতুস্রাবের সময়ে পোশাকে বা অন্য কোথাও দাগ লেগে যাওয়ার ভয় থাকবে না আশা করি

৪। ট্যাম্পন এতটাই হালকা (benefits and side effects of using tampon) যে আপনার যোনির ভিতরে যে কিছু রয়েছে তা মনেই হয় না।

৫। ঋতুস্রাবের সময়ে অনেক সময়ে স্কার্ট বা ট্রাউজার পরলে স্যানিটারি ন্যাপকিন বোঝা যায়। তবে ট্যাম্পনের ক্ষেত্রে এই সমস্যাটা হয় না যেহেতু এটি বাইরে দেখা যায় না।

রয়েছে কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও

১। আগেই যেমন বললাম যে ট্যাম্পন ব্যবহার করলে মনেই হয় না যে যোনির ভিতরে কিছু রয়েছে; অনেক সময়ে তাই ট্যাম্পন বদলানোর কথাও মনে থাকে না। মনে রাখবেন একটি ট্যাম্পন কিন্তু ৪-৮ ঘন্টার মধ্যে বদলানো জরুরি।

২। ট্যাম্পন যদি ঠিকভাবে যোনিতে ইনসারট করা না যায়, তাহলে কিন্তু যোনিতে বেশ ব্যথা (benefits and side effects of using tampon) হতে পারে।

৩। একটা ট্যাম্পন অনেক্ষন ধরে ব্যবহার করলে অনেক সময়ে ট্যাম্পন টক্সিক শক সিনড্রোম নামের ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

03 Aug 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text