Diet

লিকুইড ডায়েট অনুসরণ করে ওজন কমিয়ে ফেলা কি আদৌ নিরাপদ?

popadminpopadmin  |  Jul 24, 2019
লিকুইড ডায়েট অনুসরণ করে ওজন কমিয়ে ফেলা কি আদৌ নিরাপদ?

চটজলদি ওজন কমিয়ে ফেলতে লিকুইড ডায়েটের নাকি জুড়ি মেলা ভার। করিনা কপূর নাকি টানা তিন মাস স্রেফ কমলালেবুর রস খেয়ে অমন ছিপছিপে সাইজ জিরো ফিগারটি তৈরি করেছিলেন! বিপাশা বসু নাকি ধুম ২ করার সময় য়খন বিকিনি শুট করতে হয়েছিল, তখন সারা দিন ফলের রসের উপরেই বেঁচে থাকতেন! এমনিতে পোস্তপ্রিয় বিপাশা নাকি পোস্ত তো দূর কথা, সলিড কোনও খাবারই মুখে তুলতেন না! এত দূর পড়ে নিশ্চয়ই ভাবতে বসেছেন যে, আপনিও খাওয়াদাওয়া ভুলে এবার থেকে পানীয়তেই মনপ্রাণ সঁপে দেবেন? এখানেই হচ্ছে সমস্যা!

দেখুন, লিকুইড ডায়েট ওজন দ্রুত কমাতে সাহায্য করে, একথা খাঁটি সত্যি। শুধু তাই নয়, শরীরে জমে থাকা ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানগুলিকে ধ্বংস করে ফেলতে এবং হজম ক্ষমতার উন্নতিতেও এই বিশেষ ডায়েট (Diet) প্ল্যান নানা ভাবে সাহায্য করে থাকে। তবে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ না করে ইন্টারনেটে যে সব লিকুইড ডায়েট প্ল্যান পাওয়া যায়, সেগুলির কোনওটি অনুসরণ করে যদি খাওয়াদাওয়া বন্ধ করে দেন, তা হলে কতটা উপকার পাবেন জানা নেই, কিন্তু শরীরের যে নানা ক্ষতি হয়ে যাবে, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কারণ, আপনার শরীর অনুযায়ী কতদিন লিকুইড ডায়েট প্ল্যান অনুসরণ করা উচিত, তা একজন ডায়টেশিয়ানের পক্ষেই বলা সম্ভব। তাই যদি লিকুইড ডায়েট প্ল্যান অনুসরণ করার ইচ্ছেই থাকে, তা হলে কোনও একজন ডায়টেশিয়ানের সঙ্গে পরামর্শ করে নিতে ভুলবেন না যেন!

লিকুইড ডায়েট আসলে কি?

নাম থেকেই যেমনটা বুঝতে পারছেন, এক্ষেত্রে শক্ত খাবারের পরিবর্তে সারাদিন ধরে ফল বা সবজির রস বা স্মুদি খেতে হয়। যেসব খাবারে ক্যালরির পরিমাণ কম থাকে, সেই সব খাবার দিয়ে তৈরি সুপও খাওয়া যেতে পারে। তবে কত তাড়াতাড়ি ওজন কমাতে চাইছেন, তার উপর নির্ভের করে ডায়েট চার্ট তৈরি করতে হয়। চটজলদি ওজন কমাতে চাইলে আপনার শরীর বুঝে সারা দিন লিকুইড খাবার খাওয়ার পরামর্শ দিতে পারেন চিকিৎসক, নয়তো ব্রেকফাস্ট বা লাঞ্চে লিকুইড খাবার খেলেও উপকার পাওয়া যায়। তবে সবটাই নির্ভর করছে আপনার শরীরের গঠনের উপরে।

লিকুইড ডায়েটের রকমফের

১. ডিটক্স লিকুইড ডায়েট

গত কয়েক বছরে ডিটক্স লিকুইড ডায়েটের জনপ্রিয়তা আকাশ ছুঁয়েছে। এর পিছনে অবশ্য বেশ কিছু কারণও রয়েছে। কী কারণ? কয়েকটি স্টাডিতে দেখা গেছে, সপ্তাহে একদিন করে যদি টানা একমাস ডিটক্স লিকুইড ডায়েট অনুসরণ করা যায়, তা হলে নাকি শরীর বিষমুক্ত হয়, সেই সঙ্গে মেটাবলিজম রেটও বাড়ে, যে কারণে ছোট-বড় নানা রোগ-ব্যাধি যেমন ধারেকাছে ঘেঁষতে পারে না, তেমনই ওজন নিয়ন্ত্রণে চলে আসতেও সময় লাগে না। তবে এত সব উপকার পেতে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ সবজি এবং ফলের রস খেতে হবে।

২. শক্ত খাবারের জায়াগায় জুস বা সুপ

ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ এবং ডিনার, সারাদিনে আমরা সাধারণত এই তিনবার খাবার খেয়ে থাকি। এর মধ্যে যে-কোনও দু’বার সবজি বা ফলের রস অথবা সুপ খাওয়া চলতে পারে। তবে সেই সব ফল বা সবজির রসই খাওয়া চলবে যাতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট এবং নানা ভিটামিন এবং মিনারেল রয়েছে। না হলে কিন্তু শরীরের ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকবে।

৩. মেডিকেল লিকুইড ডায়েট

এই ধরনের লিকুইড ডায়েট প্ল্যান সাধারণ ওজন কমাতে কাজে আসে না। তা হলে কোন উপকারে লাগে? সাধারণত বড় কোনও অপারেশন আগে রোগীদের এই ধরনের ডায়েট প্ল্যান অনুসরণ করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা। এমনকী, হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটাতেও মেডিকেল লিকুইড ডায়েট প্ল্যানের সাহায্য নেওয়া হয়ে থাকে।

লিকুইড ডায়েট প্ল্যান অনুসারণ করলে কি সত্যিই ওজন কমে?

pixabay

ঠিক-ঠিক নিয়ম মেনে যদি এই ডায়েট প্ল্যান অনুসরণ করা যায়, তা হলে শরীরের ইতি-উতি জমে থাকা মেদ ঝরে যেতে যেমন সময় লাগে না, তেমনই হজম ক্ষমতারও উন্নতি ঘটে, যে কারণেও ওজন নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। তবে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো যদি লিকুইড ডায়েট প্ল্যান মানা না হয়, তাহলে দেহের ইমিউনিটি কমে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে, সেই সঙ্গে লেজুড় হতে পারে মাথা ঘোরা, হাড় এবং পেশির ক্ষমতা কমে যাওয়া, ব্রেন পাওয়ার কমে যাওয়া এবং অল্পতেই ক্লান্ত হয়ে পড়ার মতো সমস্যাও। তাই শরীরের ভাল চান তো ডায়াটেশিয়ানের পরামর্শ ছাড়া লিকুইড ডায়েট অনুসরণ করার কথা ভুলেও ভাববেন না যেন!

ওজন কমাতে লিকুইড ডায়েট চার্ট

সকালে ঘুম থেকে ওঠামাত্র এক কাপ জলে অর্ধেক লেবুর রস মিশিয়ে পান করতে হবে। আর ব্রেকফাস্টে থাকবে জাম, ওটমিল, খেজুর, দুটো আমন্ড এবং দুধ সহযোগে তৈরি স্মুদি। লাঞ্চে খেতে পারেন মাশরুম সুপ বা এক বাটি ডাল। বিকেলের দিকে, এই ধরুন চারটে-পাঁচটা নাগাদ চা, নয়তো ডাবের জল খাওয়া মাস্ট। আর রাতের মেনুতে থাকবে গ্রিল্ড ফিশ, নয়তো গ্রিল্ড চিকেন, সঙ্গে এক বাটি সুপ। এর সঙ্গে অল্প করে সেদ্ধ সবজিও খেতে পারেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আপনার শরীরের গঠন অনুযায়ী এই ডায়েট চার্টে হয়তো আরও কিছু সলিড খাবার অন্তর্ভুক্ত করতে হতে পারে অথবা বাদ দিতে হবে। তাই এই বিষয়ে একবার চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নিতে ভুলবেন না যেন!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!