home / বিনোদন
বাবাকে হারালেন রাজ, শোকের ছায়া পরিবারে

বাবাকে হারালেন রাজ, শোকের ছায়া পরিবারে

প্রথমবার বাবা হওয়ার আর দিন কয়েকের অপেক্ষা। রীতিমতো দিন গুনছেন টলিউডের পরিচালক রাজ (Raj) চক্রবর্তী। কিন্তু তার মধ্যেই এল দুঃসবাদ। প্রয়াত হলেন রাজের বাবা কৃষ্ণশঙ্কর চক্রবর্তী। বেশ কিছু দিন ধরেই শারীরিক অসুস্থতার জন্য বাইপাসের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। আজ শুক্রবার সকালে তিনি প্রয়াত হন।

রাজ নিজে করোনা পজিটিভ। বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। ফলে শেষবারের মতো বাবার দেহ ছুঁয়ে দেখা তাঁর পক্ষে সম্ভব কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। গোটা পরিবার ভেঙে পড়েছে। শোকের ছায়া রাজের বন্ধু এবং আত্মীয় মহলেও। 

নিজের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই জানিয়েছিলেন রাজ। তাঁর পরিবারের সকলের করোনা টেস্ট করানো হয়। রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। সন্তানসম্ভবা শুভশ্রী এবং বৃদ্ধা মাকে নিয়ে বেশি চিন্তা ছিল। গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন শারীরিক অসুস্থতার জন্য বাইপাসের এক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন রাজের বাবা। গণেশ চতুর্থীর দিন রাজ নিজেই জানান, আগের থেকে ভাল আছেন তাঁর বাবা। ভাল আছেন তিনিও। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। প্রথম সন্তান জন্মানোর আগে পিতৃহারা হলেন রাজ।

 

নিঃসন্দেহে গোটা পরিবারের জন্য খুবই কঠিন সময়। সম্প্রতি শুভশ্রীর সাধভক্ষণ অনুষ্ঠান হয়েছে বাড়িতেই। খুব ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজন ছাড়া কেউই উপস্থিত ছিলেন না। দেখা যায়নি ইন্ডাস্ট্রির কোনও সদস্যকেও। শাড়ি, গয়নায় সেজে শুভশ্রী পছন্দের খাবার খেয়েছেন। বেশ কিছু ছবি সোশ্যাল ওয়ালে শেয়ার করেছিলেন তাঁরা। সেখানে শুভশ্রীর পাশেই ছিলেন রাজের বাবা। তাঁদের সম্পর্ক ছিল বাবা-মেয়ের মতোই। পুজোর সময়ও শ্বশুর, শাশুড়িকে গাড়ি করে মন্তপে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। নিজের জীবনের অত্যন্ত খুশির সময় আসন্ন। তার আগে এই বিপর্যয়ে মানসিক ভাবে শুভশ্রীর পক্ষে মোকাবিলা করা সত্যিই শক্ত।

সাধের আগে বিবাহবার্ষিকীর অনুষ্ঠানও বাড়িতেই সেরেছিলেন দম্পতি। বিবাহবার্ষিকীর দিনই পরিবারে নতুন সদস্য আগমনের খবর শেয়ার করেছিলেন তাঁরা। সব সেলিব্রেশনের ছবি সোশ্যাল ওয়ালে শেয়ার করে ভার্চুয়ালি সকলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিলেন রাজ-শুভশ্রী। নিজের ভিতরে একটি প্রাণ বড় হচ্ছে। তার প্রতিটা মুহূর্ত এনজয় করছেন নায়িকা। চোখে-মুখে খুশির আভা। কিন্তু আপাতত এই কঠিন সময়ে নিজেকে সামলে রাখতেই হবে আসন্ন সন্তানের কথা ভেবেই।

 

রাজ-শুভশ্রীর কলকাতার যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকেন, সেখানে টলি পাড়ার অনেক সদস্যের বাস। শ্রাবন্তী-রোশন একই অ্যাপার্টমেন্টে থাকেন। ওখানেই থাকেন অভিনেত্রী পায়েল সরকার, সস্ত্রীক অরিন্দম শীল সহ আরও অনেকে। ওই অ্যাপার্টমেন্টে বেশ কিছুদিন আগেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন এক ব্যক্তি। তারপর নিরাপত্তার খাতিরেই সঠিক ভাবে স্যানিটাইজও করা হয়েছিল। কিন্তু বিপদ এড়ানো গেল না।

রাদ-শুভশ্রীর পরিবারে দুঃসময় দ্রুত কেটে যাক। আপাতত সেই প্রার্থনা সকলের। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

28 Aug 2020

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text