home / Self Help
আপনি কোন পজিশনে ঘুমচ্ছেন, তার উপরে নির্ভর করবে আপনার শরীর-স্বাস্থ্য

আপনি কোন পজিশনে ঘুমচ্ছেন, তার উপরে নির্ভর করবে আপনার শরীর-স্বাস্থ্য

সারা দিন দৌড়-ঝাঁপের পরে শরীর এত ক্লান্ত থাকে যে বিছানায় শরীর ঠেকা মাত্র দু’চোখ বুজে আসে। তখন কারও খেয়ালই থাকে না যে শরীরে সোজা (best and worst sleeping positions) আছে না বেঁকে। ফলস্বরূপ ঘুম থেকে ওঠা মাত্র কখনও ঘাড়ে, তো কখনও পিঠে এত ব্যথা হয় যে চোখে জল এসে যায়। কখনও-সখনও তো পেটে যন্ত্রণা এবং অ্যাসিড রিফ্লাক্সের মতো সমস্যাও ঘাড়ে চেপে বসে। স্লিপ পজিশন ঠিক না থাকার কারণে সারা মুখে অসময়ে বলিরেখা প্রকাশ পাওয়া এবং নাক ডাকার মতো সমস্যাও হতে পারে। তাহলে শরীর সুস্থ রাখতে ঠিক কোন কোন পজিশনে ঘুমনোর পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা, আর কোন কোন স্লিপ পজিশন (best and worst sleeping positions) এড়িয়ে যাওয়া ভাল, দেখে নেওয়া যাক

কোন কোন পজিশনে শুলে শরীর ভাল থাকবে

পাশ ফিরে শোওয়া

ছবি – ইনস্টাগ্রাম

বাঁ বা ডান পাশে ফিরে শুলে শিরদাঁড়ার উপর কম চাপ পরে। ফলে পিঠে, ঘাড়ে এবং কাঁধে যন্ত্রণা হওয়ার মতো সমস্যা দূরে থাকতে বাধ্য হয়। সেই সঙ্গে acid reflux-এর প্রকোপও কমে। পাশ ফিরে শোয়ার সময় দুই হাঁটুর মাঝে যদি কোলবালিশ রাখতে পারেন, তাহলে তো কথাই নেই! সেক্ষেত্রে শিরদাঁড়ায় চোট লাগার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে। সাইড পজিশনে (best and worst sleeping positions) শুলে এত উপকার পাওয়া যায় বলেই গর্ভবতী মহিলাদের এই পশ্চারে শোওয়ার পরামর্শ দেন গাইনোকলজিস্ট।

চিত হয়ে শোওয়া

ছবি – ইনস্টাগ্রাম

চিত হয়ে শোয়ার উপকারীতা অনেক। কারণ, বিছানায় পিঠ ঠেকিয়ে শুলে মাথা, ঘাড় এবং শিরদাঁড়া স্বাভাবিক পজিশনে থাকে, যে কারণে পিঠে-ঘাড়ে ব্যথা হওয়ার আশঙ্কা কমে। এমনকী, acid reflux-এর মতো সমস্যার খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও আর থাকে না। সেই সঙ্গে অসময়ে বলিরেখা প্রকাশ পাওয়ার আশঙ্কাও দূর হয়। কারণ, চিত হয়ে শুলে বিছানা এবং বালিশের সঙ্গে মুখের ঘর্ষণ হয় কম। ফলে ত্বকের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা আর থাকে না। এমন পজিশনে শোয়ার সময় হাঁটুর নিচে একটা বালিশ রাখলে আরও উপকার মেলে। সেক্ষেত্রে কোমরের উপর চাপ পরে কম। ফলে পিঠে ব্যথা হওয়ার আশঙ্কা কমে।

কোন কোন স্লিপ পজিশন এড়িয়ে চলবেন

স্টারফিশ পজিশন

ছবি – ইনস্টাগ্রাম

চিত হয়ে শোয়ার সময় হাত দুটো যখন মাথার দু’পাশে থাকে এবং দু’পায়ের মাঝে অনেকটা ফাঁক থাকে, তখন সেই স্লিপ পজিশনকে ‘স্টারফিশ পজিশন’ বলা হয়ে থাকে। এই ভাবে শুলে ঘুমনোর সময় acid reflux-এর মতো সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে। কিন্তু বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে স্টারফিশ পজিশনে ঘুমলে নাক ডাকার আশঙ্কা যেমন থাকে, তেমনই sleep apnea-এর মতো সমস্যাও ঘাড়ে চেপে বসতে পারে। তাই সম্ভব হলে এমন স্লিপ পজিশনে না শোয়াই বাঞ্ছনীয়।

উপুর হয়ে শোওয়া

ছবি – ইনস্টাগ্রাম

নাক ডাকা বন্ধ করতে এই ভাবে শোয়া যেতেই পারে। কিন্তু গবেষণা বলছে উপুড় হয়ে শোয়া একেবারেই উচিত নয়। কারণ, এই ভাবে শুলে হয় ডান দিকে, নয়তো বাঁদিকে মুখ ফিরিয়ে শুতে হয়, যে কারণে মেরুদণ্ড এবং জয়েন্টের উপরে মারাত্মক চাপ পরে। ফলে সকালে ঘুম ভাঙা মাত্র ঘাড়ে এবং পিঠে মারাত্মক ব্যথা হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। সেই সঙ্গে স্পাইনাল নার্ভের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয় যায় না। তাই তো স্টমাক পজিশনে (best and worst sleeping positions) শুতে মানা করেন চিকিৎসকেরা।

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!            

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

22 Dec 2020

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text