ওয়েলনেস

মাইগ্রেনের ব্যথা ঠিক কী কী কারণে হতে পারে?

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Sep 15, 2020
মাইগ্রেনের ব্যথা ঠিক কী কী কারণে হতে পারে?

মাইগ্রেন (migraine)। খুব চেনা শব্দ। চেনা রোগ। যাঁরা ভুক্তভোগী, তাঁরা জানেন, দীর্ঘ চিকিৎসায় হয়তো এর সুরাহা মেলে। কিন্তু যখন ব্যথা শুরু হয়, তখন কোনও কাজই ঠিক মতো করা সম্ভব হয় না।

প্রাথমিক ভাবে মাইগ্রেনের সমস্যা থাকলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। কিন্তু কেন মাইগ্রেন হয়, তা যদি জেনে রাখেন তাহলে কিছুটা সুবিধা পাওয়া যাবে।

এই প্রতিবেদনে মাইগ্রেনের কিছু সাধারণ কারণ নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করলাম আমরা। হতে পারে, এর কোনওটি আপনার সমস্যার সঙ্গে মিলল। আবার একেবারে অমিলও থাকতে পারে। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার পরামর্শ ভুলে যাবেন না। 

১) আপনি কোন আবহাওয়ায় রয়েছেন, তার উপর মাইগ্রেনের ব্যথার ধরন নির্ভর করে অনেকটাই। অতিরিক্ত রোদে ঘোরাঘুরির কারণে মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হতে পারে। এ ছাড়াও অতিরিক্ত গরম, অতিরিক্ত আর্দ্রতার তারতম্যে মাইগ্রেনের ব্যথা হতে পারে।

২) মন ভাল রাখা শরীর ভাল রাখার প্রথম শর্ত। সেটা আমরা ভুলে যাই। আর মন ভাল রাখতে গেলে কমাতে হবে মানসিক চাপ। যদিও বর্তমান জীবনযাত্রায় সকলেরই কম-বেশি মানসিক চাপ থাকে। যাঁরা অনেক বেশি চাপ নিয়ে একটানা কাজ করেন এবং নিজের ঘুম ও খাওয়া-দাওয়ার কোনও নির্দিষ্ট সময় মেনে চলতে পারেন না, তাঁদের বেশি মাইগ্রেনে আক্রান্ত হতে দেখা যায়। তাই মানসিক চাপ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন। 

৩) জীবন থেকে চিনি বাদ দিন। তাহলেই জীবনটা চিনির মতো মিষ্টি হয়ে উঠবে। নিজের জীবনে এটা স্লোগান করে ফেলুন। কারণ আমরা যখন অনেক বেশি মিষ্টি খাবার খাই, তখন আমাদের রক্তে সুগারের মাত্রা বেড়ে যায় যা নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত ইনসুলিনের উৎপাদন হতে থাকে। যার ফলে রক্তের সুগারের মাত্রা নেমে যায়। এভাবে হঠাৎ হঠাৎ রক্তে সুগারের মাত্রার তারতম্য হওয়ার কারণে মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হতে পারে।

 

৪) মাইগ্রেনের ব্যথায় যদি সঙ্গে সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়তে পারেন, তাহলে অনেকটাই উপকার পাবেন। যাঁরা ভুক্তভোগী তাঁরা এই  টোটকার কথা নিশ্চয়ই জানেন। ঘুমিয়ে পড়লে বাইরের আওয়াজ যাতে না যায় ঘরে সে ব্যবস্থা করবেন। কারণ অতিরিক্ত আওয়াজ, খুব জোরে গান শোনা ইত্যাদির কারণেও মাইগ্রেনের সমস্যা শুরু হয়ে যেতে পারে। 

৫) অতিরিক্ত ঘুম কিন্তু কোনও কাজের কথা নয়। যে কোনও শারীরিক সমস্যার সূত্রপাত হতে পারে ঘুম থেকেও। কারণ আপনার শরীরের ঠিক যতটা ঘুমের প্রয়োজন, ততটা ঘুমের সময় দিতেই হবে। বেশি বা কম কোনওটাই কাম্য নয়। মাত্র এক দিনের ঘুমের অনিয়মের কারণে শরীরের উপর খারাপ প্রভাব পরে। আবার যাঁরা নিয়মিত মোটামুটি ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা করে ঘুমোন, তাঁরা যদি হঠাৎ করে বেশি ঘুমিয়ে ফেলেন, সেক্ষেত্রে মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হয়ে যায়।

৬) সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যাঁরা নিয়মিত ক্যাফেন জাতীয় পানীয় খেতে অভ্যস্ত, যেমন কফি, তাঁরা হঠাৎ করে সেই অভ্যেস ত্যাগ করলে বা বন্ধ করে দিলে মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হতে পারে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!