লাইফস্টাইল

বাড়িতে নিজে-নিজে ফার্স্ট এড করার সময় এই ভুলগুলি করবেন না যেন!

popadminpopadmin  |  Oct 18, 2019
বাড়িতে নিজে-নিজে ফার্স্ট এড করার সময় এই ভুলগুলি করবেন না যেন!

অল্পবিস্তর কাটাছড়াতে কেউই আর ডাক্তারের কাছে যায় না এখন। বরং সিংহভাগই বাড়িতে মলম-ব্যান্ডেজ লাগিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসাটা সেরে ফেলেন। কারও-কারও আবার আয়ুর্বেদিক টোটকাই প্রথম পছন্দ। কিন্তু প্রশ্ন হল, যে পদ্ধতি মেনে ফার্স্ট এড করছেন, তা আদৌ সঠিক কিনা, সে সম্পর্কে খোঁজ নিয়েছেন কি? বলতেই পারেন, ছোটবেলা থেকে বাড়ির বড়দের দেখে-দেখে শিখেছেন, তাই ভুল হওয়ার কোনও চান্সই নেই! কিন্তু বেশ কিছু সমীক্ষা একেবারে অন্য কথা বলছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, বেশিরভাগই সঠিক পদ্ধতিতে প্রাথমিক চিকিৎসা (first aid) করেন না। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই কষ্ট কমার পরিবর্তে বেড়ে যায়। তা হলে এখন কি করণীয়? ফার্স্ট এড চিকিৎসার সঠিক পদ্ধতিগুলি সম্পর্কে এই প্রতিবেদনটি পড়ে জেনে নিন। আর এবার থেকে এই ভুলগুলো (Mistakes) ভুলেও করবেন না যেন!

১. নাক থেকে রক্তপাত হত্তয়ার সময় পিছন দিকে মাথা হেলাবেন না

খেয়াল করে দেখবেন, নাক থেকে রক্ত বেরনোর সময় আশেপাশের লোকেরা মাথাটা পিছনের দিকে হেলানোর পরামর্শ দেন। এবার থেকে এই ভুল কাজটা করবেন না প্লিজ! কারণ, নাক থেকে রক্তক্ষরণের সময় মাথাটা পিছন দিকে হেলালে রক্ত বন্ধ তো হয়ই না, উল্টে তা খাদ্যনালী হয়ে পেটে গিয়ে পৌঁছয়, যে কারণে বারে-বারে বমি হতে পারে। তাই এমন পরিস্থিতি মাথাটা পিছন দিকে না হেলিয়ে একটু সামনের দিকে ঝুঁকে নাকটা চেপে রাখুন। মিনিটদশেকের মধ্যে যদি রক্তক্ষরণ বন্ধ না হয়, তা হলে সঙ্গে-সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

২. পোড়া জায়গায় ভুলেও বরফ ঘষবেন না

যেখানে পুড়ে গেছে, সেখানে বরফ ঘষা মাত্র frost bite-এর কারণে স্কিন সেলের মারাত্মক ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। তাই বরফ নয়, বরং জল দিয়ে ক্ষতস্থানটা ভাল করে ধুয়ে নিয়ে পরিষ্কার সুতির কাপড় দিয়ে জায়গাটা ঢেকে রাখুন। প্রয়োজন মনে করলে একবার চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করে নিয়ে কোনও অ্যান্টিসেপটিক ক্রিমও লাগাতে পারেন, তাতে ক্ষত তাড়াতাড়ি সেরে যাবে।

৩. আহত ব্যক্তিকে নিয়ে এদিক-সেদিক ছুটবেন না

আপনার সামনে যদি কেউ চোট পান, তা হলে কী করবেন? নিশ্চয়ই প্রথমে তাঁকে অল্পবিস্তর হাঁটাহাঁটি করিয়ে দেখবেন যে তিনি চলতে-ফিরতে পারছেন কিনা? না, না, ভুলেও এই কাজটা করবেন না! বরং তাঁকে এক জায়গায় বসিয়ে ক্ষতের চিকিৎসা করুন। প্রয়োজনে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করুন। কিন্তু ভুলেও আহত ব্যক্তিকে নিয়ে এদিক-সেদিক ছোটাছুটি করবেন না, তাতে যন্ত্রণা বাড়তে পারে।

৪. ব্যথা জায়গায় গরম সেঁক নৈব নৈব চ

পেশিতে টান লাগলে বা কোথায় ব্যথা হলে সেখানে গরম সেঁক দিলে কিন্তু কোনও উপকারই মিলবে না। বরং জায়গাটা আরও ফুলে যাবে। এক্ষেত্রে গরম সেঁকের পরিবর্তে চোট পাওয়া জায়গায় মিনিটকুড়ি বরফ ঘষতে হবে। এর পরেও যদি যন্ত্রণা না কমে, তা হলে অর্থপেডিক চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে দেরি করবেন না যেন!

৫. কাটা জায়গায় থুতু দেবেন না প্লিজ

এটা আমাদের সেই ছোট্ট বেলার অভ্যাস। অনেকেই বিশ্বাস করেন যে কাটা জায়গায় সঙ্গে-সঙ্গে থুতু লাগালে নাকি ক্ষত সেরে যায়। কিন্তু জেনা রাখা ভাল যে এই ধারণা একেবারে ভিত্তিহীন। বরং ক্ষত স্থানে থুতু লাগালে সেখানে সংক্রমণের আশঙ্কা আরও বেড়ে যায়। তাই এবার থেকে ভুলেও এই কাজটা করবেন না। বরং ক্ষত স্থানটা পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে নিয়ে সেখানে কোনও অ্যান্টিসেপটিক মলম লাগানোটাই বুদ্ধিমানের কাজ।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়…