home / লাইফস্টাইল
প্যানডেমিকে অফিসে যাচ্ছেন পরিবারের সদস্য, কীভাবে সাবধানতা মেনে চলবেন

প্যানডেমিকে অফিসে যাচ্ছেন পরিবারের সদস্য, কীভাবে সাবধানতা মেনে চলবেন

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে একগুচ্ছ পদক্ষেপ করেছে রাজ্য সরকার। অফিসে ৫০ শতাংশ হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাকিরা ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন। কিন্তু সত্যিই যাঁদের ওয়ার্ক ফ্রম হোমের সুবিধা নেই, তাঁদের এখনও অফিসে যেতে হচ্ছে। অনেকেরই হয়তো শহরে ছোট দোকান রয়েছে। কিংবা অনেকেই কোনও দোকানে কাজ করেন। তাঁদের ক্ষেত্রে এখন পরিবহনেও একটা সমস্যা তৈরি হয়েছে। লোকাল ট্রেন বন্ধ হওয়ায় শহরতলির যাত্রীদের উপরেই সবথেকে বেশি প্রভাব পড়ে। তাই বাসে বা অন্যভাবেই পৌঁছাতে হচ্ছে গন্তব্যে। করোনা পরিস্থিতির পাশাপাশি এই কর্মসংকট ও পরিবহন সংকট খাঁড়ার মতোই ঝুলছে মধ্যবিত্তের উপর। আপনার পরিবারের সদস্যও হয়তো এখনও বাইরে বের হচ্ছেন। অফিসে বা দোকানে যেতেই হচ্ছে। তাঁদের জন্য় দুশ্চিন্তা হওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু আমাদের সাবধানতা অবলম্বন করতেই হবে। কী কী করবেন আসুন (care of family member) জেনে নেওয়া যাক।

স্যানিটাইজার বা সাবান সঙ্গে দিয়ে দিন

বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় দেখে নিন তাঁরা নিজেদের স্যানিটাইজার ও সাবান সঙ্গে নিয়েছেন কি না। তাঁর ব্যাগে হ্যান্ডওয়াশ ও স্যানিটাইজার দুটোই দিন। প্রতি আধ ঘণ্টা অন্তর তিনি যেন হাত জীবাণুমুক্ত করেন, সেই বিষয়ে তাঁকে জানিয়ে দিন। হাত জীবাণুমুক্ত না করে যেন কোনওভাবেই মাস্কে হাত না দেন (care of family member) , সেই দিকেও লক্ষ্য দিতে বলুন। চোখে, নাকে বা মুখেও যেন হাত না দেন সেদিকে খেয়াল রাখতে বলবেন এবং খাওয়ার আগে ও পরে অবশ্যই হাত জীবাণুমুক্ত করতে বলবেন।

অতিরিক্ত মাস্ক দিয়ে দিন

তিনি বের হওয়ার সময় n95 মাস্ক পরছেন। কিন্তু ব্যাগেও দুটি সার্জিকাল মাস্ক দিয়ে দেবেন (care of family member) এবং একটি অতিরিক্ত সেট n95 মাস্কও দিয়ে রাখবেন। কারণ প্রথম মাস্কটি কোনওভাবে পরে গেলে কিংবা মাস্কটি ধরে ফেললে যেন তিনি সঙ্গে সঙ্গে খুলে রাখতে পারেন এবং অতিরিক্ত মাস্ক ব্যাগে থাকার কারণে তিনি সেই মাস্ক পরে নিতে পারবেন। তাছাড়া কাউকে রাস্তায় মাস্ক দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন তিনি।

গ্লভস এবং হেয়ারক্যাপ

তিনি গণপরিবহনে যাতায়াত করবেন, এবং পাবলিক বাস বা মেট্রো জীবাণুমুক্ত করা হয় কি না সেই নিয়ে আমাদের কোনও ধারণা নেই। করা হলেও বা তা সময়ে করা হচ্ছে কি না তাও জানি না। তাই কোনও কিছুতে যখন তিনি হাত দেবেন, তিনি যাতে গ্লভস পরেই হাত দেন সেদিকে লক্ষ্য রাখতে বলুন। তাই গ্লভস পরে যাওয়াই ভাল। আর এদিকে হেয়ারক্যাপ পরে থাকাও গুরুত্বপূর্ণ সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে বলুন। আপনিও লক্ষ্য রাখুন তিনি যাতে সব নিয়ম মেনে চলেন।

বাড়ি আসার পর

বাড়ি ফেরার পর বসার ঘরেই তাঁর পোশাক ও ব্যাগ স্যানিটাইজার (care of family member) বা স্যানিটাইজিং স্প্রে দিয়ে জীবাণুমুক্ত করবেন। এরপর তাঁর ব্যবহারের ব্যাগ একদিকে খুলে রাখতে বলবেন। তাঁর হাত ও পা সাবান দিয়ে ধুয়ে নেওয়ার পর পোশাক খুলে ধুয়ে দিতে বলবেন। হালকা গরম জলে সামান্য পরিমাণে অ্য়ান্টিসেপটিক মিশিয়ে সেই জলে পোশাক ধুয়ে দিলে খুবই ভাল হয়। তাঁর স্নানের জলও সামান্য গরম করে দিন। তারপর ফ্রেশ হয়ে এসে তিনি সবার সঙ্গে বসে কথা বলতে পারেন। কিন্তু প্রথমে নিয়ম মেনে চলা খুবই প্রয়োজন। তাঁর ব্যবহারের টিফিন বক্স ধোয়ার সময়েও সামান্য গরম জলে লিকুইড ডিসওয়াশার মিশিয়ে ধোবেন। বাড়ির অন্য়ান্য বাসনের থেকে সেই বাসন আলাদা রাখবেন।

যদি কোনও উপসর্গ চোখে পড়ে

তাঁর শরীরে করোনার কোনও উপসর্গ এলে তাঁকে বাড়িতেই আইসোলেট করে প্রথমেই টেস্ট (care of family member) করিয়ে নেবেন। সবাই সুস্থ থাকবেন এবং ভাল থাকবেন। একে অপরের পাশে থাকবেন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

06 May 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text