logo
Logo
User
home / ওয়েলনেস
করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাজ্যে জারি একাধিক ‘বিধি-নিষেধ’, এই সময়ে সাবধানে থাকবেন কীভাবে

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাজ্যে জারি একাধিক ‘বিধি-নিষেধ’, এই সময়ে সাবধানে থাকবেন কীভাবে

দেশে আবার লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩৩ হাজার ৭৫০। রাজ্যেও করোনা সংক্রমিতের সংখ্য়া বাড়ছে। তার মধ্য়ে অধিকাংশ সংক্রমণ কলকাতায়। স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ৬ হাজার ১৫৩জন। করোনা সংক্রমণে রাশ টানতে এক গুচ্ছ বিধি নিষেধ জারি করেছে রাজ্য। সোমবার মানে আজ থেকেই সেইসব নিয়ম লাঘু করা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্য়ালয়। লোকাল ট্রেন চলাচলেও জারি বিধি নিষেধ। করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। তাই এই সময় আপনার সাবধানে থাকা প্রয়োজন। আপনি বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক পরবেন। সঙ্গে রাখবেন স্যানিটাইজার। কিন্তু বাড়িতে থাকলেও কিছু করোনা বিধি (covid 19 precautions) মেনে চলা প্রয়োজন। যাতে সংক্রমণ কোনওভাবেই আপনাকে এবং আপনার পরিবারকে ছুঁতে না পারে।

কী কী করোনা বিধি (covid 19 precautions) মেনে চলবেন আপনি

যখন তখন চোখে মুখে হাত নয়

আপনি বাড়িতেই রয়েছেন। কাজ করছেন। কিন্তু আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে। যখন তখন চোখে মুখে হাত দেবেন না আপনি। যদি চোখে বা মুখে হাত দিতেই হয় তবে অবশ্যই হাত স্যানিটাইজ করে কিংবা হাত ভাল করে সাবান দিয়ে ধোওয়ার পরেই চোখে মুখে হাত দেবেন। সম্ভব হলে বাড়িতে থাকলেও হাত ধোওয়ার একটি রুটিন করে নিন। নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে নেবেন (covid 19 precautions) ।

হাঁচি ও কাশির সময় সতর্ক থাকবেন (covid 19 precautions)

বাড়িতে মাস্ক পরা হয় না। অনেকেই পরতে পারেন কিন্তু আবার অনেকেই বাড়িতে মাস্ক পরেন না। সেক্ষেত্রে হাঁচি ও কাশির সময় নিয়মানুযায়ী কনুই দিয়ে নাক ও মুখ ঢাকার চেষ্টা করি আমরা। অনেক সময় হাতের তালু দিয়েও নাক ও মুখ ঢেকে নেওয়া হয়। যদি তাই করেন, তাহলে এরপরেই কনুই পর্যন্ত ভাল করে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নেবেন। কারণ, হাঁচি ও কাশির পর হাত জীবাণুমুক্ত করা প্রয়োজন। হাত ধোওয়ার আগেই যদি কোনও জায়গায় হাত দিয়ে ফেলেন তবে সেই জায়গাটিও জীবাণুমুক্ত করুন (covid 19 precautions) ।

মাস্ক পরবেন

গোটা বাড়ি স্যানিটাইজেশন

বাজার করতে কিংবা ওষুধ কেনার জন্যেও আমাদের বাইরে বের হওয়ার প্রয়োজন হয়। সেই জন্য় গোটা বাড়ি সপ্তাহে অন্তত একবার স্যানিটাইজ করা প্রয়োজন। কাপড়ে স্যানিটাইজার নিয়ে প্রত্যেকটি জিনিস মুছে নিলেন। ফ্লোর ক্লিনার দিয়ে মেঝে মুছে নিলেন। তবে খেয়াল রাখবেন, অ্য়ালকোহল বেসড স্যানিটাইজার কিন্তু দাহ্য পদার্থ। তাই রান্নাঘরে তা ব্যবহার না করাই উচিত।

মেঝে পরিষ্কার

এই সময় আমাদের প্রত্যেকেরই হাইজিন মেনে চলা প্রয়োজন। নিজেদেরও যেমন পরিষ্কার রাখতে হবে, পরিষ্কার রাখতে হবে ঘর-বাড়িও। ঘরের মেঝে প্রতিদিন ফ্লোর ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করবেন। মেঝে জীবাণুমুক্ত করা হলে বাড়ির ছোট সদস্যরা মেঝেতে বসে খেললেও (covid 19 precautions) সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেকাংশেই কম হবে। আপনিও মেঝেতে বসে কাজ করতে পারেন নিশ্চিন্তে।

সাবধানে থাকুন আপনিও

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজিহিন্দিমারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

03 Jan 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text