Advertisement

রিলেশনশিপ

সম্পর্কে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন? আদৌ কি কোনও কারণ রয়েছে!

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Oct 13, 2021
সম্পর্কে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন? আদৌ কি কোনও কারণ রয়েছে!

Advertisement

আসলে কিছুই হয়নি। মানে আপাত দৃষ্টিতে দেখে তাই মনে হচ্ছে। অথচ ভিতরে ভিতরে খুব ধীর লয়ে ক্ষয় হচ্ছে, দেখা দিচ্ছে ভাঙন। আর সেটা আপনার খিদে ঘুম সব কেড়ে নিচ্ছে। নিরাপত্তাহীনতা। সম্পর্ক নিয়ে নিরাপত্তাহীনতাই কিন্তু বেশিরভাগ সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার কারণ। (deal with relationship insecurities)

মনোবিদরা বলছেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে যে এই ভয় একেবারেই অমূলক তা নয়। কিন্তু আমাদের কাছে যারা আসেন তাঁরা বেশিরভাগ সময়ই ছায়ার সঙ্গে যুদ্ধ করেন। অর্থাৎ প্রেমিক দেরি করে দেখা করতে এলে তাঁরা আশঙ্কায় ভোগেন। এসএমএস বা হোয়াটসঅ্যাপে উত্তর দিতে দেরি হলে আশঙ্কায় ভোগেন। প্রেমিক বা প্রেমিকা খুশি থাকলে ভাবেন এত আনন্দের কারণ কী? আবার তাঁরা বিমর্ষ হয়ে থাকলেও ভাবেন নিশ্চয়ই তাঁকে নিয়ে এঁরা খুশি নয়। এটা মাঝে মধ্যে হলে কিছু না, তবে প্রায়শই হলে চিন্তার বিষয় বৈকি। কারণ এর জন্যই সম্পর্ক ভেঙে যায়।

এরকমটা হতে দেবেন না। সামান্য কিছু বিষয়কে মাথার মধ্যে ঢুকিয়ে নিজেকে মানসিক ভাবে অসুস্থ করে তুলবেন না প্লিজ। তার চেয়ে এর থেকে বেরনোর রাস্তা খুঁজে নিন আর আস্থা রাখুন কাছের মানুষের উপর। (deal with relationship insecurities)

সম্পর্কে আস্থা রাখতে হবে

কেন এটা ভেঙে যাবে বলে মনে হয়? কেন এটা থাকবে না বলে মনে হয়? প্রশ্নগুলো কোনও দিন নিজেকে করেছেন। একা ঘরে ঠান্ডা মাথায় এই প্রশ্নগুলো নিজেকে করুন। দেখবেন আপনার এইসব হাবিজাবি চিন্তার কোনও যুক্তি নেই। একটা সম্পর্কে কিছু দায়িত্ব আপনারও আছে। আপনাকে নিয়ে যখন পার্টনার সুখী ও নিশ্চিন্ত আছেন তাহলে আপনি খামোখা এসব কেন ভাববেন। নিজের উপর, নিজের সম্পর্ক নিয়ে এবং নিজের ভালবাসার মানুষকে নিয়ে আস্থা রাখুন। 

আত্মবিশ্বাস হারাবেন না

দেখা গেছে যখনই কেউ কোনও সম্পর্কে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন, তিনি নিজেকে কোনও একটি বিষয়ে অযোগ্য বা অক্ষম মনে করেন। একটি উদাহরণ দেওয়া যাক। ধরা যাক এক্স ও ওয়াই একটি কাপল। এক্স অসাধারণ গান গাইতে পারে। তাই গায়ক বা গায়িকা কূলের সঙ্গে তাঁর সখ্যতা বেশি। এবার ওয়াইয়ের মনে হল আমি তো গান গাইতে পারিনা। তাহলে আমি অযোগ্য। আমাকে নিয়ে নিশ্চয়ই এক্স খুশি নয়। এই জাতীয় কথা ভাবা হাস্যকর। দুটো মানুষ এক হতে পারে না। তাঁদের ক্ষমতা, কৃতিত্ব, কোনওটাই একরকম স্তরের হতে পারে না। অমূলক চিন্তায় নিজেকে নিমজ্জিত করবেন না। (deal with relationship insecurities)

নিজেকেও সম্মান করুন

যাঁদের আত্মমর্যাদা কম, সম্পর্ক নিয়ে তাঁরা সবচেয়ে বেশি নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন। আগে নিজেকে ভালবাসুন, নিজেকে সম্মান দিন। মনে রাখবেন একটা সম্পর্কে আপনার পার্টনার যতটা গুরুত্বপূর্ণ আপনিও ঠিক ততটাই। হ্যাঁ, কোনও কিছু নিয়ে দ্বিধা বা দ্বন্ধ থাকলে সেটা নিয়ে আলোচনা করা যেতেই পারে। কিন্তু তাই বলে সব দোষ নিজের ঘাড়ে নিয়ে বসে থাকবেন না। 

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!