logo
Logo
User
home / ফ্যাশন
ডিফারেন্ট লুক পেতে কুর্তির (kurti) কলারের (collar) স্টাইলে (style) আনুন বৈচিত্র্য

ডিফারেন্ট লুক পেতে কুর্তির (kurti) কলারের (collar) স্টাইলে (style) আনুন বৈচিত্র্য

রেডিমেড কুর্তি কেনার থেকে কুর্তি (kurti) বানিয়ে পরতেই বেশি পছন্দ করে আনন্দী। আর ও যে সব কুর্তি পরে, তার বেশির ভাগই কলার (collar) দেওয়া। তবে এক-এক রকম কুর্তির (kurti) সঙ্গে এক-এক রকম কলার (collar)। ফলে ওর কুর্তিগুলো বেশ অন্যরকম বোল্ড-স্মার্ট! আর সেই সব স্টাইলিশ কুর্তির ডিজাইনের ফ্যান ওর কলেজের সিনিয়র থেকে জুনিয়র। অনেকেই আবার ওকে বলে, “তুই ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে পড়াশুনা করতে পারিস কিন্তু!” যদিও আনন্দী সে সব হেসে উড়িয়েই দেয়। তবে মনে মনে চায় ফ্যাশন ডিজাইনার হতে। আর ওর বেশ শখ একটা নিজস্ব বুটিক খোলার। যেখানে থাকবে একদম ওর একান্ত নিজস্ব কালেকশন। আর ওর খুব ইচ্ছে ইন্ডিয়ান পোশাক-আশাকের উপর বেশি জোর দেওয়া। আর কুর্তির স্টাইল (kurti) অনুযায়ী কলারের (collar) স্টাইল (style) নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করা। কারণ কুর্তি এমন একটা জিনিস যা রোজকার যাতায়াতের পক্ষে ভীষণ ভাবে কমফোর্টেবল আর অফিস-কলেজ-ইউনিভার্সিটি সব জায়গাতেই খুব সহজ ভাবে ক্যারিও করা যায়। শুধু তা-ই নয়, বিয়েবাড়িতেও অনায়াসে একটা স্টাইলিশ কুর্তি (kurti) পরে আপনি যেতেই পারেন। তবে কুর্তির স্টাইল (style) এবং কলারের (collar) ডিজাইন হতে হবে একটু অন্য ধরনের। একঘেয়ে না হওয়াই ভাল। আসুন এক বার চট করে দেখে নিই কুর্তির কলারের নানা রকম স্টাইল (style)!

শার্ট কলার (shirt collar)

shirt-collar

নামটা শুনেই বুঝতে পারছেন যে, এই ধরনের কুর্তির (kurti) কলার একেবারেই শার্টের কলারের (collar) মতো হবে। অফিসে বা কলেজে তো আরামসে পরে যেতেই পারেন। একটু বস-মার্কা লুক চাইলে তো চোখবুজে এই স্টাইলের (style) কুর্তি ট্রাই করতে পারেন। এর সঙ্গে লেগিংস, জেগিংস, প্যান্টস, পালাজো আর নানা ধরনের সালোয়ারও ভাল যায়। আর বিয়েবাড়ি বা অনুষ্ঠানবাড়িতে এই ধরনের কলার স্টাইলের লং কুর্তি পরলে তার সঙ্গে ওড়না নিতেই পারেন। বা ছোট জমকালো জ্যাকেটও ট্রাই করতে পারেন। সঙ্গে হালকা মেকআপ আর স্মোকি আইমেকআপ। জমে যাবে আপনার লুক!

সাইড শার্ট কলার (side-shirt collar)

side-shirt-style

আপনি কি অঙ্গরক্ষা পছন্দ করেন? আর যদি করেন, তা হলে এই কলার (collar) স্টাইলটা (style) আপনার দারুণ লাগবে। রেগুলার ফিট প্যান্টস, লেগিংস আর জেগিংসের সঙ্গে ট্রাই করে দেখুন। আর ডান হাতে পরুন একটা মেটালিক রিস্টওয়াচ। ব্যস! জমে যাবে আপনার লুক!

ম্যান্ডারিন কলার (mandarine collar)

mandarine-collar-kurti

কুর্তির (kurti) কলার (collar) স্টাইলের মধ্যে বেশ পপুলার ম্যান্ডারিন কলার স্টাইল (style)। ছেলেদের কুর্তা বা শার্টেও রয়েছে ম্যান্ডারিন কলার স্টাইলের চল। এই স্টাইল এসেছে চিনা রাজপরিবারের মহিলাদের থেকে। রাজপরিবারের মহিলারা ম্যান্ডারিন কলারের ওয়েস্টার্ন গাউন পরতেন। এই কলার শুরু হয় নেকলাইন এরিয়া থেকে। আর এর দৈর্ঘ্য হয় ৩-৫ সেন্টিমিটার। এই কলার স্টাইলের কুর্তির একটা আলাদাই আভিজাত্য রয়েছে। আপনার কম হাইট হলেও এই কলার স্টাইলের কুর্তিতে আপনাকে বেশ লম্বা দেখাবে। জিন্স, লেগিংস আর পালাজোর সঙ্গে অনায়াসে পরা যাবে ম্যান্ডারিন কলার কুর্তি।

কাফতান কলার (kaftan collar)

kaftan-collar-kurti

কাফতানে সাধারণত যেমন কাটের নেক ডিজাইন হয়, কাফতান কলার কুর্তির ক্ষেত্রেও তাই। কাফতান কলারকে অনেক সময় সিউডো কলার বলা হয়ে থাকে। তবে অনেকে হয়তো ভাববেন যে, কাফতান কলার শুধুমাত্র কাফতান স্টাইল (style) কুর্তির সঙ্গে ভাল লাগবে। কিন্তু তা নয়! রেগুলার কুর্তির সঙ্গেও এই স্টাইলের কলার (collar) ভাল মানাবে। কাফতান স্টাইলের কুর্তি লেগিংস বা জেগিংসের সঙ্গেই খুব ভাল যাবে। কারণ এই স্টাইলের কুর্তি একটু ব্যাগি বা খোলামেলা টাইপের হয়। তাই বটমওয়্যার হিসেবে ন্যারো বা বডিকোন টাইপ বেশি মানাবে।

টার্টল নেকস্টাইল কলার (turtle neck style collar)

turtle-neck-kurti

বিশেষ করে সোয়েটার বা কার্ডিগানের ক্ষেত্রে এই কলার (collar) স্টাইল (style) বেশি ফলো করা হয়। কিন্তু আপনি কুর্তি বা ব্লাউজেও এই কলার ডিজাইন ট্রাই করতে পারেন। কারণ ইউরোপীয় এই স্টাইল কুর্তির মাধ্যমেই ইন্ডিয়ান স্টাইলের মধ্যে ঢুকে পড়েছে। এই স্টাইলের কলার আপনার নেক এরিয়া পুরো ঢেকে রাখবে। চুড়িদার বা স্ট্রেট প্যান্টসের সঙ্গে এই কলার স্টাইল কুর্তি খুব ভাল যাবে। তবে এই কলার স্টাইলের কিছু পরলে গলায় ভুলেও হেভি জুয়েলারি পরবেন না!

ছবি সৌজন্যে: ইউটিউব এবং পিন্টরেস্ট

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!

 

 

 

21 Jan 2019

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text