home / রূপচর্চা ও বিউটি টিপস
শীতে পা ফাটার সমস্যা থেকে কীভাবে মুক্তি পাবেন

শীতে পা ফাটার সমস্যা থেকে কীভাবে মুক্তি পাবেন

শীতকাল অনেকেরই ভীষণ পছন্দের। এ’সময়ে কত রকমের খাওয়া-দাওয়া করা যায়, সাজগোজ করলে তা ঘামে নষ্ট হয় না, উৎসবের মেজাজে থাকে গোটা শহর। তবে সত্যি কথা বলতে কী, আমি ব্যক্তিগতভাবে শীতকাল একদম পছন্দ করি না। চারদিকে আবহাওয়া বড্ড শুষ্ক থাকে এ’সময়ে। যতই ক্রিম, ময়শ্চারাইজার লাগাই না কেন, হাতে-পায়ে খড়ি ওঠার একটা সমস্যা থেকেই যায়। সে’সঙ্গে রয়েছে অযাচিত খুশকির সমস্যা। এসব বাদ দিলেও যে সমস্যাটা বড্ড প্রকট হয়ে ওঠে, তা হল, ফাটা গোড়ালির ব্যথা। আমার মত অনেকেই রয়ছেন যাদের শীতে পা ফাটা বা ফাটা গোড়ালির ব্যথায় কষ্ট পেতে হয়। আমি অবশ্য এখন আর সেভাবে ব্যথা পাই না, কারণ বেশ কয়েকটি ঘরোয়া টোটকা প্রয়োগ করে বেশ উপকার পেয়েছি। তাই ভাবলাম আপনাদের সঙ্গেও শেয়ার করি, যদি কারও উপকারে লাগে (diy remedies for cracked heels in winters)

শীতে পা ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার সাতটি ঘরোয়া টোটকা

১। একটা পাত্রে ঈষদুষ্ণ জল নিন। তাতে ১ টেবিল চামচ নুন, হাফ কাপ লেবুর রস, ২ টেবিল চামচ গ্লিসারিন ও ২ টেবিল চামচ গোলাপ জল মেশান। ১৫-২০ মিনিট সেই জলে পা ডুবিয়ে বসে থাকুন। পিউমিস স্টোন দিয়ে আলত করে গোড়ালি ঘষে নিন। তারপর শুকনো তোয়ালে দিয়ে মুছে মোজা পরে নিন।অনেক সময় লেবুর রসে ত্বকে শুষ্কতা দেখা দিতে পারে। প্রয়োজন হলে সামান্য ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে পারেন।

২। যে জায়গাগুলো ফেটেছে সেখানে শুতে যাওয়ার আগে ভেজিটেবিল তেল লাগিয়ে নিন। মোজা পরে নিন। পরদিন সকালে ধুয়ে ফেলুন।

৩। পাকা কলা ও পাকা অ্যাভোকাডোর অনেক গুণ আছে। এতে প্রচুর পরিমাণে এসেনশিয়াল অয়েল, ফ্যাট, ময়েশ্চার ও ভিটামিন আছে। পাকা কলা বা অ্যাভোকাডো চটকে সেটা ফাটা গোড়ালিতে লাগান। ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। (diy remedies for cracked heels in winters)

৪। ভেসলিনের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে ফাটা জায়গায় লাগান। তারপরে মোজা পরে নিন। সারারাত এভাবে রেখে পরের দিন ধুয়ে ফেলুন।লেবুর রসে থাকা অ্যাসিটিক অ্যাসিড ফাটা ত্বকের শুষ্ক ও মরা কোষকে নরম করে দেবে এবং ভেসলিন আর্দ্রতা জোগাবে।

মোম না গলা পর্যন্ত পাত্র গরম করুন। তারপর ঠাণ্ডা হলে সেটা ফাটা জায়গায় লাগিয়ে নিন। তবে যাদের মধুমেহ রোগ আছে তারা এটি করবেন না। অবশ্যই খেয়াল রাখবেন মোম গরম থাকা অবস্থায় সেটা পায়ে লাগাবেন না।

৬। মধুর গুনের কোনও শেষ নেই। মধু হল প্রাকৃতিক অ্যানটিসেপটিক। ঈষদুষ্ণ জলে এক কাপ মধু মিশিয়ে নিন। এবার ফাটা গোড়ালি ধীরে ধীরে ঘষুন। এই পদ্ধতি আপনি রোজ করতে পারেন। দেখবেন ফাটা গোড়ালির সমস্যা নিমেষে উধাও হয়ে গেছে। (diy remedies for cracked heels in winters)

৭। ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ চালের গুঁড়ো নিন। তার সঙ্গে মেশান ১ চা-চামচ মধু ও ৩ থেকে ৪ ফোঁটা অ্যাপল সাইডার ভিনিগার। এগুলো মিশিয়ে ঘন প্রলেপ তৈরি রাখুন। ১০ মিনিট গরম জলে পা ডুবিয়ে বসুন তারপর এই প্রলেপ লাগান। আপনার পা যদি খুব বেশি ফাটা হয় তাহলে এর সঙ্গে অলিভ অয়েল বা আমন্ড অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

17 Jan 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text