বলিউড ও বিনোদন

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই জিতেন্দ্রর ছবি মজার ভিডিও শেয়ার করে ট্রোলড একতা কপূর

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Mar 27, 2020
করোনা আতঙ্কের মধ্যেই জিতেন্দ্রর ছবি মজার ভিডিও শেয়ার করে ট্রোলড একতা কপূর

করোনা (coronavirus) আতঙ্কে সারা দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। গৃহবন্দি সকলেই। নজর রাখছেন করোনা আপডেটে। কিন্তু এর মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে করোনা সংক্রান্ত প্রচুর মিম। এবার এই তালিকায় নাম লেখালেন একতা (Ekta) কপূরও।

একতার পরিচয় আলাদা করে দেওয়ার প্রয়োজন নেই। তিনি জিতেন্দ্রর মেয়ে। কিন্তু বি-টাউনে প্রযোজক হিসেবে বহুদিন আগেই নিজের পায়ের তলার জমি শক্ত করেছেন একতা। এবার করোনা নিয়ে তিনি একটি মজার মিম শেয়ার করলেন। 

জিতেন্দ্র অভিনীত ‘হাতিমতাই’ ছবির একটি অংশের ভিডিও তিনি শেয়ার করেছেন। সেখানে যেমন বারবার বলা সত্বেও এক মহিলা নিজের মুখ দেখাতে চাইছিলেন না। ঠিক তেমনটাই নাকি লকডাউনের পর বয়ফ্রেন্ডদের সঙ্গে দেখা করতে গেলে গার্লফ্রেন্ডদের দশা হবে! ভিডিওতে জনৈক মহিলা মুখ থেকে কাপড় সরিয়ে নেওয়ার পর তার মুখে, হাতে বড় বড় লোম দেখা যাচ্ছে। লকডাউনের কারণে সব বিউটি পার্লার বন্ধ। সে কারণে নাকি লকডাউন উঠে গেলে বয়ফ্রেন্ডদের সঙ্গে দেখা করতে গেলে গার্লফ্রেন্ডদের এমন দশাই হবে!

 

যদিও একতা জানিয়েছেন, তাঁর বাবার অভিনীত ‘হাতিমতাই’ ছবিটি খুবই পছন্দের। এর সঙ্গে ছোটবেলার অনেক স্মৃতিও জড়িয়ে রয়েছে। সোশ্যাল অডিয়েন্সের একদল এই ভিডিওটি দেখে মজা পেয়েছেন। কিন্তু আর একদল সমালোচনা করতে ছাড়ছেন না। কারণ এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে যেখানে খাদ্য মজুত করতে হচ্ছে, অনেকেরই যথেষ্ট মজুত নেই। একে রোগের প্রকোপ, তার উপর খাদ্যাভাব ভাবিয়ে তুলছে গোটা দেশকে। সেখানে সুন্দর হয়ে ওঠাটাই কি একতার কাছে বড় কথা হল? করোনা আতঙ্ককে তিনি বেশ কিছুটা লঘু করে দেখানোর চেষ্টা করেছেন বলেও সমালোচনা করেছেন নেট অডিয়েন্সের একটা বড় অংশ। 

দেশে নোভেল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬০০ ছাড়িয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে এ বার ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকার বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সরকার। তাতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ প্রকল্পের আওতায় এত দিন ৮০ কোটি মানুষ প্রতিমাসে বিনামূল্যে ৫ কেজি চাল অথবা গম পেতেন। আগামী তিন মাস অতিরিক্ত আরও ৫ কেজি চাল অথবা গম দেওয়া হবে তাঁদের। দেওয়া হবে অতিরিক্ত ১ কেজি ডালও।

অর্থাৎ সব রকম ভাবে কেন্দ্রীয় এবং রাজ্য সরকার এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে ভাল রাখার চেষ্টা করছে। করোনার হানা যতটা কমিয়ে ফেলা যায়, ভেঙে ফেলা যায় এই ভাইরাসের চেন সেই চেষ্টা করা হচ্ছে। গৃহবন্দি না থাকলে এই বিপুল জনসংখ্যার দেশে এই ভাইরাসের হানা ঠেকানো সম্ভব নয় বলে মনে করছেন চিকিৎসকেরা। সে কারণেই সরকারের এই সিদ্ধান্ত। অযথা আতঙ্কিত না হয়ে বাড়িতে থাকুন। ভাল থাকুন। 

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

২০২০ শুরু করুন আমাদের দারুণ দারুণ প্ল্যানার আর স্টেটমেন্ট সোয়েটশার্ট দিয়ে। এগুলো সবকটাই আপনারই মতো একশ শতাংশ মজার এবং অসাধারণ! ওহ হ্যাঁ, শুধুমাত্র আপনার জন্য রয়েছে ২০ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থাও। দেরি কিসের আর, এখনই POPxo.com/shop থেকে কেনাকাটা সেরে ফেলুন আর নিজেকে আরেকটু পপ আপ করে ফেলুন!