বলিউড ও বিনোদন

গণেশ বন্দনার সুরে গানে ডেবিউ করলেন এষা

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Aug 19, 2020
গণেশ বন্দনার সুরে গানে ডেবিউ করলেন এষা

সুপার বিজি মম। বলিউড অভিনেত্রী এষা (Esha) দেওল তখনানির জন্য এখন এই বিশেষণই শ্রেয়। দুই মেয়েকে নিয়ে চরম ব্যস্ততায় দিন কাটাচ্ছেন এষা। জমিয়ে সংসার করছেন। কিন্তু এর মধ্যেও নিজের ক্রিয়েটিভিকে হারিয়ে যেতে দেননি। কখনও বই লিখছেন। কখনও বা গান (Song) হয়ে উঠছে তাঁর প্রিয় বন্ধু।

‘আম্মা মিয়া’তে লেখিকা হিসেবে ডেবিউ করার পর এবার গণেশ বন্দনা (Ganesh Shloka) দিয়ে গায়িকা হিসেবেও ডেবিউ করে ফেললেন এষা। তবে গানের ক্ষেত্রে সঙ্গী তাঁর মা হেমা মালিনি এবং বোন অহনা দেওল ভোরা। এর সঙ্গে নাচের মঞ্চে দুই প্রজন্মকে একসঙ্গে দেখেছেন দর্শক। এবার গানেও পাওয়া গেল তাঁদের।

সামনেই গণেশ চতুর্থী। সেই উপলক্ষ্যে দুটি ট্র্যাক রেকর্ড করেছেন তিন অভিনেত্রী। সঙ্গীত পরিচালক দীপেশ ভার্মা তত্ত্বাবধানে কাজ করেছেন ত্রয়ী। অ্যালবামের নাম ‘রাজা গণপতি’।

 

 

 

 

 

এষার কথায়, “আমাদের সব নাচের শো-তে প্রথমে গণেশকে শ্রদ্ধা জানিয়ে বক্রতুন্ড মহাকায়া পারফর্ম করি। এটা খুব জনপ্রিয় শ্লোক। আমার মনে আছে, প্রথম স্কুলে শিখেছিলাম। ওটা প্রার্থনা সঙ্গীত হিসেবে গাওয়া হত। এই প্রথমবার মা আর বোনের সঙ্গে এই শ্লোকটি গাইলাম। প্রথমে গলা নিয়ে খুব চিন্তায় ছিলাম। কেমন লাগবে, তাই ভাবছিলাম। কিন্তু রেকর্ড হওয়ার পরে নিজের গলা শুনে ভালই লাগছে। গান গাইলে ভালই হবে, সেই কনফিডেন্সও পাচ্ছি। এই প্যানডেমিকের পরিস্থিতিতে ঘরে থেকে রেকর্ড করাটা কঠিন ছিল। স্টুডিওতে গিয়ে রেকর্ড করা সম্ভব হয়নি। আমাদের সঙ্গীত পরিচালক ও তাঁর টিমের সদস্যদের সহযোগিতায় বাড়িতে থেকেই কাজটা করতে পেরেছি। ভিডিও শুট করলাম বাড়িতেই। এক কথায় দারুণ অভিজ্ঞতা।”

নিজের লেখিকা সত্ত্বা নিয়েও যথেষ্ট আশাবাদী এষা। ‘আম্মা মিয়া’তে তিনি ছোটবেলার স্মৃতি যেমন শেয়ার করেছেন, তেমনই নতুন মায়েদের জন্য চটজলদি রেসিপির টিপসও দিয়েছেন। গত মার্চে প্রকাশিত হওয়ার পর এখনও পর্যন্ত বই নিয়ে প্রশংসাই পেয়েছেন অভিনেত্রী। এষা জানিয়েছেন, প্রায় প্রতিদিনই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বহু মহিলার সঙ্গে কথা বলেন তিনি। তাঁদের মধ্যে অনেকেই নতুন মা হয়েছেন। অনেকে আবার মা হতে চলেছেন। সকলেই বইটি নিয়ে নিজের ভাললাগার কথা এষার সঙ্গে শেয়ার করেছেন। শুধু তাই নয়, অনেকে ‘আম্মা মিয়া’ পড়ার পর নিজের অভিজ্ঞতাও লিখে রাখতে চান। আর শুধু মায়েরা নন, নতুন বাবারাও এই বইয়ের টিপস পড়ে উপকৃত। 

সব মিলিয়ে করোনা আতঙ্ক এবং লকডাউনের পরিস্থিতিতেও সব দিক থেকে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন এষা। আর ব্যস্ততার মধ্যেই তিনি পজিটিভিটি খুঁজে পান। কাজে ডুবে থাকাই তাঁর ভাল থাকার মন্ত্র। দুই মেয়ে, সংসার একদিকে, আর অন্যদিকে নিজের কাজ সমান তালে ব্যালান্স করে চলেছেন এষা। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!