Advertisement

লাইফস্টাইল

এই পাঁচ ধরনের মিলনের অভিজ্ঞতা কিন্তু প্রত্যেক মহিলার জীবনেই একবার হওয়া উচিত

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Dec 19, 2019
এই পাঁচ ধরনের মিলনের অভিজ্ঞতা কিন্তু প্রত্যেক মহিলার জীবনেই একবার হওয়া উচিত

Advertisement

প্রত্যেক মহিলাই চান যে তাঁর সঙ্গী তাঁকে আদরে-আদরে ভরিয়ে দিন। নানা রকম সেক্স পজিশনও ট্রাই করেন তাঁরা নিজের যৌন জীবনে (sexual life) একটু বৈচিত্র্য নিয়ে আসার জন্য। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কিন্তু মহিলারা মিলনের (sex) সময়ে নিজের চাওয়া-পাওয়াকে অতটা বেশি গুরুত্ব আজও দেন না। প্রতিটি মিলনের অভিজ্ঞতাও (experience) সমান হয় না। কোনওদিন হয়তো আপনি অর্গাজমের চরম সীমায় পৌঁছে গেলেন, আবার কোনওদিন হয়তো কিছুই হল না। তবে একটা কথা, নিজের যৌন জীবনে (sexual life) সামান্য কিছু পরিবর্তন এনে এবং সঙ্গীর সঙ্গে কিছু পরীক্ষা করে কিন্তু মিলনের আনন্দ চতুর্গুণ করে তুলতে পারেন। কীভাবে? সেকথাই বলছি।

shutterstock.com

এই ধরনের পাঁচ মিলনের অভিজ্ঞতা প্রতিটি মহিলারই একবার না একবার হওয়াই উচিত

১। আচ্ছা, একটা ব্যক্তিগত প্রশ্নই করে ফেলছি। আপনারা মিলনের (sex) সময়ে কোন জায়গাটি বেশি পছন্দ করেন? জানি এই প্রশ্নের বেশিরভাগ উত্তর আসবে, ‘শোওয়ার ঘর’! শোওয়ার ঘরেই যে সব সময়ে সেক্স করতে হবে, তার তো কোনও মানে নেই। কখনও শাওয়ারের নীচে মিলিত হয়েছেন নিজের সঙ্গীর সঙ্গে? ভাবুন তো একবার, উপর থেকে শাওয়ারের জল পড়ছে, আপনারা দু’জন ভিজে যাচ্ছেন আর একে অন্যকে আদরে ভরিয়ে দিচ্ছেন!

২। সকালে উঠে সারা দিনের ব্যস্ততা শুরু হয়ে যায়, তখন কি আর মিলনের কথা মাথায় আসে? তা ঠিক, কিন্তু সারা সপ্তাহ তো আর আপনারা ব্যস্ত থাকেন না! কোনও এক অলস সকালে যদি মিলিত হতে চান, আলতো চুম্বনে শিহরিত হতে চান, তা হলে ট্রাই করতে পারেন কুইকি। ফোরপ্লের মাধ্যমেও কিন্তু অর্গাজমে পৌঁছনো যায়।

৩। দুটো বাসন একসঙ্গে থাকলে যেমন ঠোকাঠুকি লাগে, তেমনই দু’জন মানুষ একসঙ্গে থাকলেও কিন্তু কখনও কখনও ঝগড়া হতেই পারে। আপনারা ঝগড়ার পর কি একে অন্যের সঙ্গে কথা না বলে শুয়ে পড়েন? যদি করে থাকেন, তা হলে আজ থেকে আর ঝামেলা না মিটিয়ে শুতে যাবেন না। বরং, সঙ্গীর গা ঘেঁষে বসুন এবং তাঁকে আদর করুন। দেখবেন, প্যাশনেটভাবে মিলনের (sex) অভিজ্ঞতাও (experience) হবে আবার ঝগড়াও মিটে যাবে।

৪। অনেকে মিলনের ব্যাপারে অনেককিছু চাইলেও বিছানায় গিয়ে লজ্জা পান বা আড়ষ্ট হয়ে থাকেন। কথায় আছে না, লজ্জা ঘেন্না ভয় তিন থাকতে নয়, কাজেই এই তিনটি আবেগকেই ঝেড়ে ফেলে সঙ্গীর সঙ্গে মিলনে লিপ্ত হয়ে যান। লাভ বাইট দিন, বুকে নাক ঘষুন বা মিলনের সময়ে গতি বাড়িয়ে দিন – যা ইচ্ছে হয় করতে পারেন, তবে আপনার সঙ্গীও যাতে সঙ্গত দেন সেদিকেও খেয়াল রাখবেন।

৫। সবসময়ে কি সঙ্গীর চাহিদাকেই প্রায়োরিটি দিয়ে থাকেন? মিলনের সময়ে অন্তত কখনও নিজের চাহিদাগুলোকেও একটু গুরুত্ব দিন। আপনার সঙ্গীকে না হয় একদিন বলুন, আপনাকে আদর করতে; আপনার চাহিদাকে গুরুত্ব দিতে…

এই দশকটি আমরা শেষ করতে চলেছি #POPxoLucky2020-র মাধ্যমে। যেখানে আপনারা প্রতিদিন পাবেন নতুন-নতুন সারপ্রাইজ। আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম…আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার আগামী বছরটা POPup করে ফেলুন!