বিনোদন

নেতাজীর চরিত্র অনেক বেশি কঠিন ছিল, ‘গুমনামী’ মুক্তির আগে বললেন প্রসেনজিৎ

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Oct 2, 2019
নেতাজীর চরিত্র অনেক বেশি কঠিন ছিল, ‘গুমনামী’ মুক্তির আগে বললেন প্রসেনজিৎ

আজ বুধবার মুক্তি পেতে চলেছে সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘গুমনামী’ (gumnaami)। মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন প্রসেনজিৎ (prosenjit) চট্টোপাধ্যায়। রিলিজের আগের রাতে এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার দিলেন POPxo বাংলাকে।

 

ওয়েলকাম টু POPxo বাংলা

POPxo বাংলার সকলকে আমার শুভেচ্ছা, অভিনন্দন, ভালবাসা। সকলে পুজোটা খুব ভাল করে কাটাবেন। ভাল থাকবেন সকলে।

 

‘গুমনামী’র জন্য অনেক শুভেচ্ছা। পুজোতে আবার সৃজিত-প্রসেনজিৎ জুটি। বাংলা সিনেমা এবং বক্স অফিসের সমীকরণ কতটা বদলে দেবে?

আমার যেটা মনে হয় সৃজিত, প্রসেনজিৎ জুটি ‘অটোগ্রাফ’ বা ‘২২শে শ্রাবণ’-এর পর থেকেই অদ্ভুত মোড় এনে দিয়েছে বাংলা ছবিতে। সে কারণেই আমার মনে হয় বাংলা ছবিকে একটা লিফট দেওয়া দরকার। একটা উত্তরণ ঘটানো দরকার। এই ছবিতে সে কারণে একজন ঐতিহাসিক এবং ভারতের সবচেয়ে বড় হিরো যে, নায়ক যিনি তাঁকে নিয়ে ছবিটা করা। ফলে অনেক বড় একটা লিফট দেবে বলে মনে হয়। এটা শুধু বাংলায় নয়, হিন্দিতেও আসবে। সুতরাং বক্স অফিসকে একটা আলাদা লেভেলে পুশ করার চেষ্টা করছি আমরা। 

 

কতটা কঠিন ছিল ছবিটা?

গুমনামী ছবিটাই কঠিন ছিল। এটা বাংলা ছবি তো শুধু নয়। আন্তর্জাতিক ইতিহাসের ছবি। অদ্ভুত ধরনের সাবজেক্ট। নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর অন্তর্ধানের মিস্ট্রি নিয়ে ডিল করছে। স্ক্রিপ্ট ইটসেল্ফ ওয়াজ নট ইজি। থটটাই খুব সোজা নয়। ভারতের অন্যান্য জায়গায় এই সাবজেক্টটা নিয়ে কেউ কেন প্রশ্ন তোলেননি এখনও, সেটাই তো সবথেকে বড় প্রশ্ন। 

 

যে কোনও চরিত্রের জন্যই আপনি হোমওয়ার্ক করেন। এখানে নেতাজী নাকি ভগবানজি, কোন চরিত্রে বেশি এফর্ট দিতে হয়েছে?

নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসু অনেক কঠিন। কারণ প্রথম আমাকে নেতাজীর মতো দেখতে নয়। আর সেকেন্ডলি নেতাজীর ছবি সকলে ছোট থেকে ক্যালেন্ডারে দেখছেন, ইতিহাসের পাতায় দেখছেন, নানা রকম ক্লিপিংস রয়েছে ইউটিউবে। এই ভদ্রলোক একেবারে হৃদয়জুড়ে আমাদের মনের মধ্যে গেঁথে রয়েছেন। আমার সঙ্গে তাঁর চেহারার কোনও সান্নিধ্য নেই। সেই জায়গা থেকে নেতাজীর চরিত্র করা, তাঁর হাঁটা চলা, কথা বলা, তাঁর সম্পর্কে বই পড়া, তাঁর ইতিহাসটা একটু জানা, সে সব করতে গিয়ে আমার মনে হয়েছে নেতাজী অনেক কঠিন দ্যান ভগবানজী। 

 

অনেক ধন্যবাদ

ধন্যবাদ আপনাকেও। দর্শকের ভাল লাগলে তবেই আমাদের পরিশ্রম সার্থক। 

আসলে নেতাজীকে নিয়ে আম-বাঙালির মনে এখনও এনেক রহস্য রয়েছে। বিশেষ করে তাঁর মৃত্যু কী ভাবে হয়েছিল, তার কোনও সঠিক দিশা আজও পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন সময়ে প্রশ্ন উঠেছে, গুমনামী বাবাকে নিয়েও। তিনিই কি আসলে নেতাজী? এ ধাঁধার সমাধান নেই। তর্ক-বিতর্ক হয়েছে। মত, বিরুদ্ধ মতের জায়গা তৈরি হয়েছে। কিন্তু সমাধান? আবার সিনে পর্দাতেও নেতাজীকে নিয়ে বহু কাজ হয়েছে। কিন্তু গুমনামী বাবাকে নিয়ে কাজের পরিমাণ খুবই কম। এই ছবি দু’টোর খিদেই মেটাবে বলে আশা করছেন সিনেপ্রেমীরা। 

ইতিহাস বলে, ১৯৭০ সালে উত্তর প্রদেশে গুমনামী বাবার আবির্ভাব হয়। অনেকে মনে করেন, তিনি আসলে নেতাজী। কারণ সুভাষচন্দ্রের চেহারার সঙ্গে তাঁর বেশ কিছু মিল পাওয়া গিয়েছিল। আজাদ হিন্দ ফৌজের বেশ কিছু চিঠিও তাঁর কাছে ছিল বলে শোনা যায়। ১৯৪৫ সালের ১৮ অগস্ট শেষবারের মতো নেতাজীকে প্রকাশ্যে একটি বিমানে চড়তে দেখা গিয়েছিল। সেই বিমান ভেঙে পড়ে বলে দাবি করেন অনেকে। কিন্তু নেতাজীর মৃতদেহ পাওয়া যায়নি। সৃজিতের নতুন ছবি অনেক অজানা রহস্যের সমাধান করবে বলে মনে করছেন ইন্ডাস্ট্রির সদস্যরা। প্রসেনজিৎ ছাড়াও অনির্বাণ ভট্টাচার্য, তনুশ্রী চক্রবর্তী এই ছবিতে অভিনয় করেছেন। মিউজিক অ্যারেঞ্জমেন্টের দায়িত্বে সামলেছেন ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়…