Advertisement

Diet

সারাজীবন সুস্থ আর কর্মঠ থাকতে মেনে চলুন জাপানিদের ম্যাজিক ডায়েট প্ল্যান

Doyel BanerjeeDoyel Banerjee  |  Oct 18, 2019
সারাজীবন সুস্থ আর কর্মঠ থাকতে মেনে চলুন জাপানিদের ম্যাজিক ডায়েট প্ল্যান

এই বিশ্বে জাপানিদের আয়ু যে সবচেয়ে বেশি। এটা একটা প্রমাণিত তথ্য। এই দেশের বেশিরভাগ মানুষই গড়ে একশ বছর বাঁচেন। তবে তার মানে কিন্তু এই নয় যে এঁরা সবাই বার্ধক্যজনিত রোগে ভোগেন। উল্টে বহু জাপানি বৃদ্ধ বা বৃদ্ধাকে দেখলে সহজে তাঁদের প্রকৃত বয়স অনুমান করা যায়না। এঁরা একশ বছরের সীমা পার করেও বেশ কর্মঠ ও সুস্থ থাকেন আর তাঁদের ত্বকও থাকে তারুন্যে ভরপুর। না তাঁদের কাছে কোনও আশ্চর্য জাদুকাঠি নেই। এটা সম্ভব হয়েছে ছোটবেলা থেকে তাঁরা যে ধরনের ডায়েটে অভ্যস্ত তার জন্য। আপনিও যদি দীর্ঘায়ু হতে চান, থাকতে চান চিরতরুণ এবং তার সঙ্গে থাকতে চান সুস্থ (healthy) ও কর্মঠ তাহলে এখন থেকেই নিজের খ্যাদ্যাভাস পাল্টে ফেলে জাপানি ডায়েট মেনে চলতে শুরু করুন। আপনি হয়তো ভাবছেন যে এত দ্রুত বিষয়টি কীভাবে সম্ভব হবে? হবে কারণ বাঙালিদের খাওয়া দাওয়ার (diet) সঙ্গে জাপানিদের (Japanese) খাওয়া দাওয়ার কিঞ্চিৎ মিল আছে। তাই ধীরে ধীরে জাপানি ডায়েটে অভ্যস্ত হয়ে ওঠা খুব একটা কঠিন নয়। 

সনাতনী জাপানি ডায়েট আসলে কী?

Pixabay

সনাতনী জাপানি ডায়েট বা ওয়াসাকু হল একটি কমপ্লিট মিল যেখানে প্রচুর পরিমাণে সামুদ্রিক মাছ ও তাজা শাক সবজি আছে। ছোট ছোট নানা পদ এখানে রান্না করা হয়। চেষ্টা করা হয় প্রসেসড খাবার ব্যবহার না করতে এবং মিষ্টি এড়িয়ে চলতে। এই মিলে থাকে সেদ্ধ ভাত বা গোহান, নুডল, মাছ, তোফু (দই জাতীয় খাবার), নাতো (সয়াবিন), প্রচুর ফল ও আচার মাখানো সবজি। জাপানিরা বিশ্বাস করেন যে খাবারের যা প্রকৃত স্বাদ সেটা না বুঝতে পারলে খাওয়া সম্পূর্ণ হয়না। তাই খাবারে বাড়তি কোনও মশলা, নুন, চিনি এসব দেওয়া হয়না। 

কীভাবে মেনে চলবেন সনাতনী জাপানি ডায়েট?

জাপানিরা বারে বারে অল্প অল্প করে খান। মূলত এটাই তাঁদের ডায়েটের মূলমন্ত্র। আপনাকেও সেটাই করতে হবে। আপনি যদি জাপানি ডায়েট অনুসরণ করতে চান তাহলে আপনাকে এইভাবে নিজের ডায়েট সাজাতে হবে। 

ডায়েটে প্রথমেই থাকবে সুপ। তারপরে আসবে কার্বোহাইড্রেট। এর জন্য আপনি সামান্য ভাত বা ন্যুডল রাখতে পারেন। ভাতের সাথে মাছ, তোফু, নাতো, খুব কম পরিমাণে মাংস ও ডিম রাখতে পারেন। সাইড ডিশে থাকবে সবজি সেদ্ধ বা সামান্য ভাজা, সামুদ্রিক আগাছা ও ফল। জাপানি ডায়েট এমনভাবে সাজানো যেখানে আপনার স্বাদকোরক যথাক্রমে মিষ্টি, নোনতা, টক ও তেঁতো এই চারটি স্বাদ একে একে পাবে। আর এখানেই জাপানি ডায়েটের সার্থকতা। 

পানীয়

Pixabay

জাপানিরা সাধারণত খাওয়া দাওয়ার পর এক গ্লাস ওসাকে বা রাইস ওয়াইন পান করেন। যদিও ওসাকে স্বাস্থ্যের জন্য ভাল তবে এটা এদেশে পাওয়া যায়না। আপনি পরিবর্তে গরম গ্রিন টি বা ঠান্ডার বার্লি টি পান করতে পারেন। 

কেন মেনে চলবেন এই ডায়েট

পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ 

এই ডায়েটে আছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন ও ভিটামিন এ, সি ও ই। এছাড়াও আছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। 

হজমক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে

সয়াবিন, সবজি, ফলে আছে ফাইবার আর তার সঙ্গে আছে দই। এই সবগুলোই খাবার তাড়াতাড়ি হজম করতে সাহায্য করে। 

ওজন কমায়

জাপানি ডায়েট এমনভাবেই তৈরি যে সেখানে ওজন বাড়ার কোনও জায়গা নেই। এত সবজি আর ফল দিয়ে এই ডায়েট সমৃদ্ধ যে বেশি খেলেও ওজন বাড়বে না। 

এছাড়াও এই ডায়েট

১) শরীরে জীবাণু সংক্রমণ রোধ করে ২) রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে এবং আপনাকে ৩) দীর্ঘায়ু করে। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়…