home / লাইফস্টাইল
ডটার্স ডে ২০১৯: এই বিশেষ দিনে আদরের মেয়েকে পাঠাতে পারেন এই কোটস এবং শুভেচ্ছা বার্তাগুলি

ডটার্স ডে ২০১৯: এই বিশেষ দিনে আদরের মেয়েকে পাঠাতে পারেন এই কোটস এবং শুভেচ্ছা বার্তাগুলি

আমরা আমাদের ছেলে-মেয়েদের কতটা ভালবাসি, তা মুখে প্রকাশ করার প্রয়োজন হয় না। ওরা এমনিতেই তা বুঝে যায়। তবু কোনও এক বিশেষ দিনে, একটু বিশেষ ভাবে যদি আমরা আমাদের ভালবাসা এবং অনুভূতিগুলি ওদের সামনে ব্যক্ত করতে পারি, তা হলে ওদের কাছে দিনটা যে আরও একটু স্পেশাল হয়ে উঠবে, তাতে কোনও সন্দেহ নেই! তাই তো বলি, এবছর ডটার্স ডে-এর দিন মনের মণিকোঠায় সজত্নে সাজানো ছোট-ছোট অনুভূতিগুলিকে উজাড় করে দিন। দেখবেন, আদরের মেয়ের (daughters) মুখে হাসি ফুটতে সেকেন্ডও সময় লাগবে না। ভাবছেন, মনের কথা মেয়েকে জানাবেন কীভাবে? চিন্তা নেই, আমরা আছি তো। এই প্রতিবেদনে বছাই কিছু ডটার্স ডে Quotes, মেসেজ এবং শুভেচ্ছা বার্তার উল্লেখ রইলে, যা আপনার অনুভূতিগুলিকে ভাষায় প্রকাশ করতে সাহায্য করবে।

আরো পড়ুনঃ কন্যা দিবসের সেরা উপহার

ADVERTISEMENT

ডটার্স ডের ইতিহাস (History Of Daughters Day)

শুধু ভারতের নয়, বিশ্বের ইতিহাসের দিকে নজর ফেরালেই দেখতে পাবেন, রাজার পরিবার হোক কী মেথরের, ছেলে সন্তানেরা যতটা গুরুত্ব পেয়ে এসেছে, ততটা সম্মান মেয়েদের ভাগ্যে জোটেনি। তাঁরা বরাবরই যেন দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিক। এমন নেতিবাচক ভবনা যে সমাজের অগ্রগতির পক্ষে অন্তরায়, সে কথা অনেক দেশের সারকারই উপলব্ধি করেছিলেন। কিন্তু মেয়েদের সম্মানকে প্রতিষ্ঠা করা যায় কীভাবে? এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার সময়ই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসের চতুর্থ রবিবার ডটার্স ডে হিসেবে পালন করা হবে, যেদিন মেয়েদের জয়গান করাই হবে মূল লক্ষ্য। সেই সঙ্গে এই সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে তাঁরা প্রতি মুহূর্তে যে স্বার্থ ত্যাগ করছেন, সেই প্রয়াসকে কুর্ণিশ জানানো হবে। এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানায় ভারত সরকারও। সেই থেকেই আমাদের দেশে প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসের শেষ রবিবার ডটার্স ডে হিসেবে পালন করা হয়ে থাকে। এই বছর যেমন ২২ সেপ্টেম্বর ডটার্স ডে।

আমাদের দেশে ডটার্স ডে উদযাপনের তাৎপর্য (Significance Of Daughter’s Day)

এক দেশের মধ্যেই রয়েছে বহু দেশ। দিল্লি, মুম্বাই, কলকাতা, চেন্নাই এবং বেঙ্গালুরুর মতো বড় শহরে মেয়েরা যেখানে ছেলেদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এগিয়ে চলেছে, সেখানে আমাদের দেশেই এমন অনেক ছোট শহর এবং গ্রাম রয়েছে, যেখানে আজও মেয়েদের পায়ের নীচে রাখা হয়। ন্যূনতম সামাজিক সম্মান তো দূর, তাঁদের নিজের মতো বাঁচারও অধিকার নেই। এমনকী, মানুষ হিসেবেও মেয়েদের বিবেচনা করা হয় না। তাই তো আজও ভারতের মতো উন্নয়নশীল দেশেও কন্যা সন্তানদের যেমন নির্ধিধায় হত্যা করা হয়, তেমনই শিক্ষার অধিকার থেকেও তাঁদের বঞ্চিত করা হয়ে থাকে। এমনটা হওয়া কি আদৌ উচিত? তাই বলতে দ্বিধা নেই যে আমাদের দেশে আরও ধুমধাম করে ডটার্স ডে পালন করার প্রয়োজন রয়েছে। কারণ, দেশের ছেলেরা যতদিন না মেয়েদের সম্মান করতে শিখছে, যতদিন না তাঁদের সমান আসনে বসাচ্ছে, ততদিন এই দেশ যে প্রকৃত অর্থে ‘ডেভলপড কান্ট্রি’ হয়ে উঠবে না, তাতে কোনও সন্দেহ নেই। তাই তো দেশ এবং দশের স্বার্থে সারা দেশজুড়ে ডটার্স ডে পালনের মধ্যে দিয়ে পুরুষতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থার বিরুদ্ধে প্রশ্ন তোলার সময় এসে গেছে।

ADVERTISEMENT

কন্যা দিবসের সেরা কোটস (Best Daughters Day Quotes)

মনের কথা মেয়েকে জানাতে সাহায্য নিতে পারেন এই Quotes-এর…

১. মেয়েরা হল দেবদূত। তাই তো আমাদের জীবনে আসা মাত্র প্রতিটা মুহূর্ত অফুরন্ত আনন্দ এবং ভালবাসায় ভরে ওঠে।

ADVERTISEMENT

২. বয়স্ক বাবা-মায়েরা ছেলেদের নয়, বরং মেয়েদের সান্নিধ্যে থাকতে চান। কারণ, তাঁরা জানেন মেয়েরা কোনও পরিস্থিতিতেই হাত ছাড়ে না।

৩. মেয়েরা হলেন অতীতের আনন্দময় স্মৃতি, বর্তমানের সুখের মুহূর্ত আর ভবিষ্যতের আশা এবং প্রতিশ্রুতি।

ADVERTISEMENT

৪. মেয়েদের সম্মান জানান, তাঁরা সম্মান পাওয়ার অধিকারী। মালালা ইউসুফজাই

৫. মেয়ে সন্তানের বাবা-মায়েরা ভাগ্যবান। কারণ, তাঁরা ভগবানের সবথেকে পছন্দের উপহারের অধিকারী।

ADVERTISEMENT

৬. মেয়েরা তাঁদের মায়েদের দেখে বড় হয়। তাই নিজের ভুলগুলি শুধরে নিয়ে একজন প্রকৃত মা হয়ে ওঠার চেষ্টায় কোনও খামতি রাখবেন না যেন! তবেই কিন্তু দেশ উন্নতির পথে এগিয়ে যাবে।

৭. মেয়েরা হলেন শক্তির আধার। তাই তো তাঁদের মুখের দিকে তাকালে নিমেষেই সব স্ট্রেস-দুশ্চিন্তা দূরে পালায়। আনন্দে ভরে ওঠে প্রতিটা সেকেন্ড।

ADVERTISEMENT

৮. মেয়েরা হল বাবা-মায়ের সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ। বাড়ির সবচেয়ে প্রিয় সম্পত্তি এবং বাবা-মায়ের ভালবাসার প্রকৃত উদাহরণ।

৯. জীবনের প্রতিটা বাঁকে মেয়েদের আগে এগিয়ে দেওয়া এবং প্রয়োজনে তাঁদের পাশে থাকাটাই প্রতিটি বাবা-মায়ের প্রথম এবং প্রধান কর্তব্য।

ADVERTISEMENT

১০. মেয়েরা আজীবন নিজেদের স্বার্থ ত্যাগ করে অন্যদের ভাল রাখার চেষ্টায় ঘাম ঝরিয়ে যান। তাই তাঁদের থেকে মূল্যবান সম্পদ যে আর কিছু হয় না, তাতে কোনও সন্দেহ নেই।

১১. বাবা-মা হিসেবে আমাদের সবার কর্তব্য হল মেয়েদের পাশে থাকা। তাঁদের জীবনের উদ্দেশ্য খুঁজে পেতে সাহায্য করা এবং অবশ্যই একজন প্রকৃত মানুষ হিসেবে তাঁদের গড়ে তোলা। এই কাজগুলি আমরা যদি ঠিক মতো করতে পারি, তাহলে তার সুফল আমরা একদিন না একদিন পাবই।

ADVERTISEMENT

১২. এই সমাজ মেয়েদের মাথা তুলে দাঁড়ানোর সম্মতি দেয় না। তাই তো প্রত্যেক বাবা-মায়েরই উচিত তাঁদের মেয়েদের মনের জোর যাতে আকাশ ছোঁয়, সেই চেষ্টায় ঘাম ঝরিয়ে যাওয়া। সঙ্গে আত্মসম্মান যাতে কোনও ভাবেই ক্ষুন্ন না হয়, সেই লড়াইয়ের জন্যও ছোট থেকেই প্রস্তুতি শুরু করে দেওয়া।

১৩. মেয়ে সন্তানের ভালবাসা ছাড়া বেঁচে থাকা কি সম্ভব? মনে তো হয় না। তাই মেয়েদের সম্মান জানান। ভুলে গেলে ভুল করবেন যে তাঁদের ভাসবাসা এবং স্বার্থত্যাগের কারণেই কিন্তু ছেলেরা মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে, না হলে কিন্তু আমাদের কোনও অস্তিত্বই থাকতো না।

ADVERTISEMENT

১৪. মেয়েদের আমরা দুর্বল ভাবি। হয়তো তাঁরা শারীরিক ভাবে দুর্বল। কিন্তু মানসিক ভাবে তাঁদের থেকে শক্তিশালী আর কেউ হয় না। তাই সেই শক্তিকে স্যালুট জানান, যার ছাঁয়ায় আপনি মানুষের মতো মানুষ হয়ে ওঠার সুযোগ পয়েছেন।

১৫. মেয়েদের হাসতে শেখান। কারণ, তাঁদের হাসিতেই লুকিয়ে আছে অফুরন্ত আনন্দের চাবিকাঠি।

ADVERTISEMENT

মায়েরা ডটার্স ডের দিন মেয়েদের পাঠাতে পারেন এই কোটস গুলি (Mother And Daughter Quotes)

মেয়ের প্রথম বন্ধু হল তাঁর মা। তাই তো এমন বিশেষ দিনে মেয়েকে পাঠাতে পারেন এই Quotes এবং মেসেজগুলি…

১. মেয়ের সঙ্গে মন খুলে হাসা যায়, চোখ খুলে স্বপ্ন দেখা যায় এবং অফুরন্ত ভালবাসার সন্ধান মেলে।

ADVERTISEMENT

২. মেয়েরাই বড় হয়ে একদিন বাবা-মার সবচেয়ে প্রিয় বন্ধু হয়ে ওঠেন। তাই তো এই পৃথিবীতে মেয়েদের চেয়ে বড় সাপোর্ট আর কিছুই হয় না।

৩. মা-মেয়ে একে অপরের থেকে দূরে থাকলেও তাঁদের মন কিন্তু সারাক্ষণ একে অপরের কাছেই পরে থাকে। তাই মায়ের থেকে মেয়েকে দূরে সরিয়ে নেওয়া মোটেই সম্ভব নয়।

ADVERTISEMENT

৪. একদিন না একদিন আমার জীবনের সব অধ্যায় শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু জানবে, তুমি ছিলে সেই বইয়ের সবচেয়ে প্রিয় অংশ।

৫. মা-মেয়ের মধ্যের ভালবাসা ভাষায় প্রকাশ করা এই পৃথিবীর সবথেকে কঠিন কাজ।

ADVERTISEMENT

৬. প্রথমবার যেদিন তোমায় কোলে নিয়েছিলাম, সেই মুহূর্তটা ছিল আমার জীবনের সবচেয়ে আনন্দের সময়।

৭. আমার জীবনে তুমি হলে সেই সূর্যের মতো, যে কোনওদিনই অস্ত যায় না। যার আলোয় নিমেষে দুঃখের অন্ধকার দূর হয়।

ADVERTISEMENT

৮. একজন মেয়ে তাঁর মায়ের জীবন সম্পর্কে যত জানবে, ততই তাঁর মনের জোর বাড়বে। বাড়বে মানসিক দৃঢ়তাও।

৯. তুই আমার কাছে দেবদূতের সমান। কারণ, তুই না থাকলে আমার জীবন এত সুন্দর হয়ে উঠত না। তাই তো তোর মতো মেয়ের মা হতে পেরে নিজেকে এই পৃথিবীর সবথেকে ভাগ্যবান মানুষ বলে মনে হয়।

ADVERTISEMENT

১০. সাহস, ত্যাগ, সংকল্প, ভালবাসা এবং প্রতিশ্রুতি। প্রতিটি মেয়ের মধ্যেই এই গুণগুলি থাকে। তাই তো তাঁদের ছাড়া এই সমাজ অসম্পূর্ণ।

১১. আপনার ছোট্ট মেয়েটা কিন্তু আপনাকে দেখেই বড় হচ্ছে। তাই মায়েদের জীবন যুদ্ধে হেরে গেলে চলবে না। বরং মেয়েকে আপরাজেয় বানাতে মায়েদের শেষ নিশ্বাস পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। তবেই না মেয়ে, মানুষের মতো মানুষ হয়ে উঠবে।

ADVERTISEMENT

১২. জীবন চালনা করার কোনও ম্যানুয়াল আমাদের হাতে থাকে না, তাই তো ভগবান মায়েদের সৃষ্টি করেছেন।

১৩. প্রত্যেক মা-ই তাঁর মেয়ের জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হন। তাই তো মেয়েদের কাছে তাঁর মায়েরা হন অমূল্য সম্পদ।

ADVERTISEMENT

১৪. মেয়েরা হল ফুলের মতো। যার গন্ধে মায়েদের জীবন সুগন্ধে ভরে ওঠে, জীবনের ক্যানভাস আরও রঙিন হয়ে ওঠে।

১৫. মায়েদের প্রিয় বন্ধু হল তাঁদের মেয়েরা, যাঁর সঙ্গে প্রাণ ভরে হাসা যায়, মন খুলে কাঁদা যায়।

ADVERTISEMENT

ডটার্স ডের দিন বাবারা তাঁদের পরিদের পাঠান এই কোটস গুলি (Father And Daughter Quotes)

pixabay

ADVERTISEMENT

বাবারা তাঁদের মনের কথাকে ভাষায় প্রকাশ করতে সাহায্য নিতে পারেন এই মেসেজগুলির…

১. মেয়ে সন্তানের সাফল্যের পিছনে বাবাদের অবদানকে উপেক্ষা করা সম্ভব নয়।

ADVERTISEMENT

২. প্রত্যেক মেয়ের কাছেই তাঁদের বাবারা হলেন সুপার হিরো।

৩. মেয়ের হাত ধরে বাবারা যেমন হাঁটতে শেখান, তেমনই সারা জীবন মেয়ের মনকে দু’হাতে আগলে রাখেন সেই বাবারাই।

ADVERTISEMENT

৪. ভগবানের থেকে পাওয়া সবচেয়ে মূল্যবান উপহার হল, প্রথমবার তোর মুখে ‘বাবা’ ডাক শোনা।

৫. বাবারা হলেন তাঁদের মেয়েদের কাছে ফ্রেন্ড, ফিলোসফার এবং গাইড। সেই সঙ্গে বডিগার্ডও।

ADVERTISEMENT

৬. মেয়ে সন্তানকে বাবারা যতটা ভালবাসেন, ততটা আর কেউ ভালবাসতে পারবেন না।

৭. অফিস থেকে ফেরা মাত্র তুই যখন জড়িয়ে ধরিস, নিমেষে সব দুঃখ-দুশ্চিন্তা কেমন যেন মিলিয়ে যায়। তাই বলতে দ্বিধা নেই, তুই আমার প্রাণ শক্তি। তোকে ছাড়া এক মুহূর্তও থাকা সম্ভব নয়।

ADVERTISEMENT

৮. বাবারাই হলেই সেই মানুষ, যাঁরা মেয়েদের মাথা উঁচু করে বাঁচতে শেখায়। জীবনের প্রকৃত মূল্য হাতে ধরে শেখান।

৯. পৃথিবীতে শান্তি ফিরিয়ে আনতে কী করণীয়? প্রতিদিন অফিস থেকে বাড়ি ফিরে পরিবার এবং মেয়েকে প্রাণ দিয়ে ভালবাসুন। তাহলেই দেখবেন একদিন না একদিন শান্তি ফিরে আসবেই। মাদার টেরেসা

ADVERTISEMENT

১০. মেয়েরা বড় হয়ে গেলে বাবারা আর তাঁদের কোলে নিতে পারেন না ঠিকই। কিন্তু মেয়েদের মন সারা জীবনই তাঁর বাবার কাছেই পরে থাকে।

১১. জীবন কীভাবে বাঁচতে হয়, তা মেয়েদের হাতে ধরে কেউ শেখায় না। তাঁরা তাঁদের বাবাকে দেখেই সব শিখে যায়।

ADVERTISEMENT

১২. প্রত্যেক মেয়েই নিজেকে রাজকুমারী মনে করেন। কারণ, তাঁদের চোখে বাবারা হলেন রাজা।

১৩. বাবারা যেমন মেয়েদের মানুষের মতো মানুষ হিসেবে যেমন গড়ে তোলেন, তেমনই মেয়েদের কীভাবে সম্মান করা উচিত, তাও শেখান।

ADVERTISEMENT

১৪. বাবারা হলেন মেয়েদের রক্ষাকবচ, যা আমৃত্যু তাঁদের সঙ্গে থাকে।

১৫. মেয়েদের কাছে তাঁদের বাবার নামই হল ভালবাসার অপর নাম।

ADVERTISEMENT

ডটার্স ডের শুভেচ্ছা বার্তা (Daughters Day Wishes)

আগামী ২২ সেপ্টেম্বর, ডটার্স ডের দিন সকাল সকাল মেয়েকে পাঠাতে পারেন এই শুভেচ্ছা বার্তাগুলি…

১. তোকে চারাগাছ থেকে মহীরুহ হয়ে উঠতে দেখে খুব আনন্দ লাগে। বেঁচে থাকার মানে খুঁজে পাই তোর হাসি-ঠাট্টার মধ্যে। ভাল থাকিস, আনন্দে থাকিস। হ্য়াপি ডটার্স ডে মাই লাভ…!

ADVERTISEMENT

২. ভগবান চান, আমি আর তোর মা সারা জীবন আনন্দে থাকি। তাই তো তোঁকে আমাদের জীবনে পাঠিয়েছেন। তুই হল আমাদের জীবনের সবথেকে সেরা উপহার। ডটার্স ডে উপলক্ষে অনেক অনেক শুভেচ্ছা সোনাই।

৩. যখন দুঃখের জালে জড়িয়ে পড়ি, তখনই তোর মুখের দিকে তাকাই, আর নিমেষে সব দুঃখ কেমন দূরে পালায়। তুই হল আমার জীবনের সেরা ‘মিরাকল’। অনেক অনেক ভালবাসা।

ADVERTISEMENT

৪. তোর মতো একজন মানুষের বাবা-মা হতে পেরে আমরা গর্বিত। প্রার্থনা করি, তোর মুখের হাসি যেন আরও চওড়া হয়, আরও আনন্দে ভরে ওঠে তোর জীবন।

৫. আমাদের ছোট-বড় নানা দুঃখের কথা নিমেষেই তুই বুঝে যাস। আমাদের মুখে হাসি ফোটাতে সারাক্ষণ চেষ্টা চালাস। আমারা সাধারণ মানুষ, কিন্তু তুই আমাদের সারাক্ষণ ‘স্পেশাল’ ফিল করাস। এত কিছু তুই করিস কীভাবে? আমরা ভাগ্যবান তোর বাবা-মা হতে পেরে। হ্যাপি ডটার্স ডে!

ADVERTISEMENT

৬. ভগবানের কাছে প্রার্থনা করি তোর সব স্বপ্ন, সব ইচ্ছে যেমন পূরণ হয়। ডটার্স ডের অনেক, অনেক শুভেচ্ছা আর ভালবাসা।

৭. প্রথম যে দিন তোকে কোলে নিয়েছিলাম, সেই দিনের কথা আজ খুব মনে পড়ছে। আজও তোকে সমানভাবে কাছে পেতে মন চাইছে। জানি তুই দূরে রয়েছিস। তবু তোর মন যে আমার কাছেই রয়েছে। ভাল থাকিস, আনন্দে থাকিস। অপেক্ষায় রইলাম তোর। হ্যাপি ডটার্স ডে।

ADVERTISEMENT

৮. তুই যে ভাবে মাথা উঁচু করে এগিয়ে চলেছিল, তা দেখে আমরা গর্বিত। কোনও মতেই মাথা যেন ঝুঁকে না যায়। যখনই মনে হবে আর এগতে পারছিস না, রবি ঠাকুরের লেখা সেই দুটো লাইনের কথা মনে করবি, ‘চিত্ত যেথা ভয়শূন্য, উচ্চ যেথা শির, জ্ঞান যেথা মুক্ত, যেথা গৃহের প্রাচীর।’ দেখবি, নিমেষে মন চাঙ্গা হয়ে উঠবে। ডটার্স ডের অনেক, অনেক শুভেচ্ছা।

৯. চল, আজ সবাই মিলে কোথাও ঘুরে আসি। হঠাৎ এমন প্ল্যান কেন তাই ভাবছিস? আসলে আজ তোকে মন খুলে বলতে চাই, তুই আমাদের জীবনে আসার পরে দুঃখ ধারেকাছেও ঘেঁষতে পারেনি। তুই আমাদের অন্ধকার জীবনে আলো নিয়ে এসেছিস। তাই ডটার্স ডের দিন তোকে নিয়ে একটু হই হুল্লোড় না করলে হয় বল! অনেক, অনেক ভালবাসা। হ্যাপি ডটার্স ডে!

ADVERTISEMENT

১০. আমি এই জীবনে নিশ্চয়ই ভাল কিছু কাজ করেছি। তবেই না তোর মতো মেয়ের বাবা হওয়ার সুযোগ পেয়েছি। তুই ছাড়া আমি বড়ই একা। তাড়াতাড়ি ফিরে আয়। হ্যাপি ডটার্স ডে!

১১. প্রকৃত সুখ কাকে বলে সেদিন বুঝেছিলাম, যেদিন প্রথমবার তোকে কোলে নিয়েছিলাম। ডটার্স ডের অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

ADVERTISEMENT

১২. আমার কাছে প্রতিটা দিনই ডটার্স ডে। কারণ, তুই যে আমার হার্ট বিট। তোকে ছাড়া এক মুহূর্ত থাকাও যে আমার পক্ষে সম্ভব নয়। হ্যাপি ডটার্স ডে!

১৩. তুই যতই বড় হয়ে যাস না কেন, সারা জীবনই আমার ছোট্ট প্রিন্সেস হয়েই থাকবি। ডটার্স ডের অনেক, অনেক শুভেচ্ছা এবং ভালবাসা।

ADVERTISEMENT

১৪. তোকে যখন পাগলামো করতে দেখি, তখন মনে কোনও সন্দেহ থাকে না যে তুই আমারই মেয়ে। এইভাবে পাগলামো চালিয়ে যাস প্লিজ, কারণ তাতেই যে আমার আনন্দ। হ্যাপি ডটার্স ডে!!!

১৫. বাবা-মেয়ের সম্পর্কের থেকে স্পেশাল আর কী-ই বা হতে পারে বল! তাই ডটার্স ডেতে ভগবানকে থ্যাঙ্ক ইউ জানাতে চাই যে আমার লিটল প্রিন্সেস হয়ে তুই আমার জীবনে এসেছিস। অনেক, অনেক ভালবাসা প্রিন্সেস! হ্যাপি ডটার্স ডে!

ADVERTISEMENT

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এগুলোও আপনি পড়তে পারেন

ADVERTISEMENT

मदर्स डे कोट्स
Mothers Day Status in Hindi
माँ पर कविता
শিক্ষক দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা-মেসেজ ও কোটস
বাবা-মায়ের জন্মদিনের সেরা শুভেচ্ছা বার্তা

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!

ADVERTISEMENT
19 Aug 2019
good points

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text