বলিউড ও বিনোদন

অক্ষয় কুমারের ‘লক্ষ্মী’ই নয়, রূপান্তরকামী এই চারটি চরিত্র আজও মনে গেঁথে আছে

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Nov 10, 2020
অক্ষয় কুমারের 'লক্ষ্মী'ই নয়, রূপান্তরকামী এই চারটি চরিত্র আজও মনে গেঁথে আছে in bengali

গতকাল মুক্তি পেয়েছে ‘লক্ষ্মী’! না না, মা লক্ষ্মীর কথা বলছি না, কথা বলছি অক্ষয় কুমার (akshay kumar) অভিনীত বহু প্রতীক্ষিত সিনেমা ‘লক্ষ্মী’র (laxmii)। মুক্তি পাওয়ার আগেই যদিও নানা বিতর্কে জড়িয়েছিল সিনেমার নামটি। আগে সিনেমার নাম ঠিক করা হয়েছিল ‘লক্ষ্মী বোম’। তা নিয়ে প্রচার ও প্রমোশনও শুরু হয়েছিল। কিন্তু অত্যন্ত সংবেদনশীল একটি ঘটনায়, হাই কোর্টের নির্দেশে নাম পরিবর্তন করতে বাধ্য হন ছবির নির্মাতারা।

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে আমরা সবাই জানি যে ‘লক্ষ্মী’ (laxmii) আদতে দক্ষিনী ছবি ‘মুনি ২ – কাঞ্চনা’-র অফিশিয়াল রিমেক। ছবির মূল গল্প মোটামুটি একই রেখে হিন্দি ভাষায় ছবিটি নির্মিত হয়েছে। ছবি কেমন লেগেছে সে প্রসঙ্গে যাবো না, কারণ তা দর্শকের একান্ত ব্যক্তিগত চয়েস। দর্শকের কারও মতে ‘লক্ষ্মী’ এক্কেবারেই ‘কাঞ্চনা’-র ধারেকাছে যেতে পারেনি, আবার কারও মতে ছবিটি মোটামুটি ভালই।

কাঞ্চনা বা লক্ষ্মী – এই ছবিতে সমাজের রূপান্তরকামী (transgenderss) এক মানুষের অসহায়তা তুলে ধরা হয়েছে। যেখানে ছবির প্রধান চরিত্রকে খুব করা হয় এবং তার আত্মা কিভাবে প্রতিশোধ নেয়, সে নিয়েই গল্প এগোয়। কিন্তু আমি এই প্রতিবেদন লিখতে বসেছি অন্য একটি কারণে। যদিও ‘লক্ষ্মী’ নিয়ে অনেকের মধ্যেই অনেক উৎসাহ ছিল, অক্ষর কুমার (akshay kumar) প্রথমবার একজন রূপান্তরকামীর (transgenders) চরিত্রে অভিনয় করছেন বলে অনেক হুজুগও উঠেছিল, কিন্তু এর আগেও হিন্দি ভাষায় এমন ছবি তৈরি হয়েছে রূপান্তরকামীদের নিয়ে এবং সেখানে তাবড় তাবড় অভিনেতার অভিনয় দর্শকের মন জয় করেছে আবার কোথাও বা দর্শককে প্রচন্ড ভয় পাইয়েছে। আজ সেরকমই কয়েকটি ছবির (highly acclaimed transgender movies) কথা আলোচনা করব।

আশুতোষ রানা – লজ্জা শঙ্কর

সংঘর্ষ ছবিতে রূপান্তরকামী চরিত্র লজ্জা শঙ্কর (ছবি – ইনস্টাগ্রাম)

নব্বইয়ের দশকে বলিউডে মুক্তি পেয়েছিল ‘সংঘর্ষ’। সেই ছবিতেও অবশ্য ছিলেন অক্ষয় কুমার (akshay kumar), কিন্তু দর্শকের মনে দাগ কেটেছিল আশুতোষ রানার ‘লজ্জা শঙ্কর’ চরিত্রটি। দাপুটে অভিনেতার দক্ষতায় চরিত্রটি জীবন্ত হয়ে উঠেছিল এবং আজও দর্শক এই ভয়ঙ্কর চরিত্রকে (highly acclaimed transgenders movies) মনে রেখেছে।

পরেশ রাওয়াল – টিক্কু

তামান্না ছবিতে টিক্কুর চরিত্রে পরেশ রাওয়াল (ছবি – ইউটিউব)

নব্বইয়ের দশকেরই আরও একটি বলিউড ছবি ‘তামান্না’, যেখানে বর্ষীয়ান অভিনেতা পরেশ রাওয়ালের টিক্কু চরিত্রটির জন্য তিনি ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন। এই ছবিতে তিনিও একজন রূপান্তরকামীর চরিত্রে অভিনয় করেন। পরেশ বাদেও ছবিটিতে পূজা ভট্ট, শরদ কপূর ও মনোজ বাজপেয়ী অভিনয় করেছিলেন।

সদাশিব অম্রপুরকার – মহারাণী

বলিউডের অন্যতম রূপান্তরকামী খলনায়ক ‘মহারানী’ (ছবি – ইউটিউব)

‘মহারানী’ চরিত্রটি আজও দর্শকের মনে গেঁথে আছে। বলিউডের ‘খলনায়ক’দের মধ্যে অন্যতম হল মহারানী চরিত্রটি, যা সদাশিব অম্রপুরকারের অভিনয় গুণে হয়ে উঠেছিল জীবন্ত। মহেশ ভট্ট পরিচালিত কাল্ট ছবি ‘সড়ক’-এর  (highly acclaimed transgender movies) এই চরিত্রের কথা ভোলা খুব একটা সহজ নয়।

ঋদ্ধি সেন – পরিমল

পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের থেকে রূপান্তরকামী পরিমলের চরিত্র বুঝে নিচ্ছেন ঋদ্ধি সেন (ছবি – ইনস্টাগ্রাম)

শুধু বলিউড কেন, আমাদের বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতেও কিন্তু রুপান্তরকামীদের (transgenders) নিয়ে ছবি তৈরি হয়েছে এবং সে ছবির জন্য জাতীয় পুরষ্কারও ইতিমধ্যে ঝুলিতে ভরে নিয়েছেন অভিনেতা স্বয়ং। আজ্ঞে হ্যাঁ, পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘নগর কীর্তন’ ছবির কথাই বলছি। এই ছবিতে রূপান্তরকামী ‘পরিমল’-এর চরিত্রে অভিনয় করে ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছেন অভিনেতা ঋদ্ধি সেন। মাত্র ১৯ বছর বয়সে জাতীয় পুরস্কার পাওয়া, মুখের কথা নয়, কী বলেন!

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!