ADVERTISEMENT
home / Combination Skin
ত্বকের প্রকারভেদ অনুযায়ী বিভিন্ন রকমের ফেসপ্যাক এবং তার ব্যবহার

ত্বকের প্রকারভেদ অনুযায়ী বিভিন্ন রকমের ফেসপ্যাক এবং তার ব্যবহার

ত্বক উজ্জ্বল আর লাবণ্যময় থাকুক, এটা আমরা প্রত্যেকেই চাই। আর তার জন্য নানা রকম উপায় আমরা অবলম্বন করে থাকি। পার্লারে যাওয়া, সুষম আহার করা, এক্সারসাইজ করা ইত্যাদি। তবে ত্বকের যত্ন নিতে সবাই যেটা নিশ্চিতরূপে করে থাকে সেটা হল ফেসপ্যাকের ব্যবহার। ফেসপ্যাকের গুণে ত্বক হয়ে ওঠে উজ্জ্বল, দূর হয় দাগছোপ আর ত্বকে আসে লাবণ্য। তবে সবার ত্বক এক রকমের হয়না। কারও ত্বক হয় শুষ্ক আবার কারও ত্বক হয় আর্দ্র। ত্বকের (skin) প্রকারভেদে পাল্টে যায় ফেসপ্যাক (face)। পাল্টে যায় ফেসপ্যাকে (packs) ব্যবহৃত উপাদানও। কোন ধরনের ত্বকে কীরকম ফেসপ্যাক (homemade) ব্যবহার করবেন, সেই নিয়েই আমাদের আজকের প্রতিবেদন।

 

আমাদের ফেসপ্যাকের প্রয়োজন কেন হয়?

ADVERTISEMENT

Pixabay

সারাদিন কাজকর্ম ও পরিশ্রমের ফলে আমাদের যে ক্লান্তি আসে তার প্রভাব সবার আগে আমাদের ত্বকের উপর পড়ে। তাছাড়া বাইরে বেরোলে ধুলো, ধোয়া ও দূষণ আমাদের ত্বকের উপর একটা আস্তরণ ফেলে দেয়। ত্বকের ছিদ্র দিয়ে সেই সব ধুলো ধোয়া ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে নানা সমস্যার সৃষ্টি করে। মূলত এই সব সমস্যার সমাধান করতে এবং অবশ্যই ত্বকের যত্ন নিতে আমাদের ফেসপ্যাকের প্রয়োজন হয়। যে যে উপকারি উপাদান ফেসপ্যাকে ব্যবহার করা হয় সেগুলো ত্বকের ছিদ্র দিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে ত্বক সজীব রাখে। এছাড়া ব্রণ ও অ্যাকনে দূর করতেও ফেসপ্যাকের প্রয়োজন হয়।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ফেসপ্যাক

ADVERTISEMENT

Pixabay

তৈলাক্ত ত্বক মানে হল এই জাতীয় ত্বকে অতিরিক্ত তেল বা সেবাম নিঃসরণ অনেক বেশি হয়। নাকের দুই পাশে চিবুকের কাছে সব সময় তেলতেলে থাকে। তেল থাকার দরুন এই ধরনের ত্বক চট করে ধুলো ময়লা শুষে নেয় এবং ব্রণ বা অ্যাকনের সমস্যা তৈলাক্ত ত্বকেই বেশি হয়। তাই এই জাতীয় ত্বকে এমন ফেসপ্যাক দরকার যা অতিরিক্ত তেল নিয়ন্ত্রণ করবে।

১)কমলালেবু ও নিমের ফেসপ্যাক

pixabay

ADVERTISEMENT

একটি পাত্রে চন্দন গুঁড়ো, কমলালেবুর রস বা পাউডার, নিম পাতা পেস্ট ও মুলতানি মাটি নিন। এর মধ্যে অল্প একটু লেবুর রস ও মধু মেশান। তারপর গোলাপ জল দিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখে লাগান। কুড়ি মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবার এই প্যাক লাগাতে পারেন।

২) স্ট্রবেরি ফেসপ্যাক

স্ট্রবেরি ভাল করে চটকে নিয়ে তার মধ্যে লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট এই প্যাক রেখে ধুয়ে ফেলুন ঠান্ডা জল দিয়ে। সপ্তাহে তিনবার এই ওয়াক ব্যবহার করতে পারেন।

৩)হলুদের ফেসপ্যাক

একটা পাত্রে কাঁচা হলুদ বাটা বা হলুদ গুঁড়ো নিন। এক চা চামচ মধু একটু শসার রস আর তিন চা চামচ ময়দা চালের গুঁড়ো মেশান। ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবার এই প্যাক লাগাতে পারেন।

৪)টমেটোর ফেসপ্যাক

ADVERTISEMENT

Pixabay

টমেটোর রস, মধু আর চালের গুঁড়ো মিশিয়ে এই ফেসপ্যাক তৈরি করতে হবে। ১৫ মিনিট রেখে এই প্যাক আপনি ধুয়ে ফেলবেন। এই প্যাক প্রতিদিন ব্যবহার করা যায়।

৫)মুলতানি মাটি ও গোলাপ জলের প্যাক

মুলতানি মাটির সঙ্গে গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করা সবচেয়ে সহজ। এই প্যাক তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুব কাজে দেয়। ১৫ মিনিট রেখে এই প্যাক ধুয়ে ফেলতে পারেন। সপ্তাহে দুই বা তিনবার এই প্যাক লাগানো যায়।

৬)কর্পূর আর দইয়ের ফেসপ্যাক

টক দই ভাল করে ফেটিয়ে তার মধ্যে এক চা চামচ কর্পূর গুঁড়ো ভাল করে মিশিয়ে দিন। আধ ঘণ্টা রেখে এই প্যাক ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এই প্যাক ব্যবহার করা যায়।

ADVERTISEMENT

৭)শসা ও আলুর রসের ফেসপ্যাক

প্রথমে শসা ও আলুর রস তৈরি করে নিতে হবে। এবার দুটোকে সমান অনুপাতে মেশাতে হবে। এবার তুলোর বলে এই রসে ভিজিয়ে থুপে থুপে লাগান। আধ ঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এই রস বা প্যাক আপনি ব্যবহার করতে পারেন।

৮)বেনটোনাইট ক্লে ফেসপ্যাক

এই প্যাক অনেকটা মুলতানি মাটির মতো। এই ক্লে আর গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করতে হবে। প্যাক শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার এই প্যাক লাগানো যায়।

৯)কর্নস্টার্চ আর অ্যাপল সাইডার ভিনিগারের প্যাক

অ্যাপল সাইডার ভিনিগার আর কর্নস্টার্চ মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখে লাগান। প্যাক শুকিয়ে গিয়ে মুখে টান ধরলে প্যাক ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবার এই প্যাক লাগাতে পারেন। 

১০) পুদিনা আর চন্দনের প্যাক

পুদিনা পাতা ভাল করে বেটে নিন। এর মধ্যে একটু চন্দন পাউডার আর প্রয়োজন মতো গোলাপ জল দিয়ে প্যাক তৈরি করুন আধ ঘণ্টা পর এই প্যাক ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিনবার এই প্যাক লাগাতে পারেন।

ADVERTISEMENT

শুষ্ক ত্বকের জন্য ফেসপ্যাক

Shutterstock

তৈলাক্ত ত্বকের সমস্যা যেমন অতিরিক্ত তেল, শুষ্ক ত্বকের সমস্যা হল এই ত্বকে আর্দ্রতার অভাব। আর্দ্রতার অভাবে এই ধরনের ত্বক শুষ্ক, প্রাণহীন ও নির্জীব লাগে। অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বক হলে ত্বকে চট করে বলিরেখা পড়ে যায়। সময়ের আগেই তাই শুষ্ক ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে যায়। তাই এই জাতীয় ত্বকের প্রয়োজন এমন ফেসপ্যাক যা ত্বকের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনবে এবং ত্বককে করে তুলবে উজ্জ্বল ও লাবণ্যময়।

ADVERTISEMENT

১)মধু ও কলার ফেসপ্যাক

Pixabay

একটা পাকা কলা চটকে তার মধ্যে এক চা চামচ মধু আর এক টেবিল চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে দিন। এই প্যাক দশ মিনিটের বেশি মুখে রাখবেন না। সপ্তাহে তিন দিন এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

২)তরমুজের ফেসপ্যাক

ADVERTISEMENT

Pixabay

দুই চা চামচ তরমুজের রস আর শসার রস আগে মেশান। তার মধ্যে এক চা চামচ মিল্ক পাউডার আর অল্প একটু দই দিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এক দিন ছাড়া ছাড়া এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

 

৩)আমন্ড বাদামের ফেসপ্যাক

আগের দিন রাত্রে কয়েকটা আমন্ড বাদাম দুধে ভিজিয়ে রেখে দিন। পরের দিন দুধ দিয়েই ওই বাদাম বেটে মুখে লাগান। কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। একদিন ছাড়া ছাড়া এই প্যাক ব্যবহার করুন।

ADVERTISEMENT

৪)গোলাপ জল আর দইয়ের প্যাক

পাত্রে ঘন দই নিয়ে সেটা ফেটিয়ে তার মধ্যে গোলাপ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। দশ মিনিট রেখে শুয়ে নিন। সপ্তাহে তিনবার এই প্যাক ব্যবহার করুন।

৫) নারকেল আর কফি পাউডার বা কোকোর ফেসপ্যাক

আধ টেবিল চামচ কোকো পাউডার, দুই চা চামচ নারকেলের দুধ,এক চা চামচ বেসন বা গুঁড়ো ওটমিল এবং আধ চা চামচ মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুইবার এই প্যাক লাগাতে পারেন।

৬) শসার ফেসপ্যাক

Pixabay

ADVERTISEMENT

শসা ভাল করে কুচিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। এর মধ্যে দিন এক টেবিল চামচ বড় দানার চিনি। ভাল করে মিশিয়ে খানিকক্ষণ ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করুন। তারপর মুখে মাখুন। দশ মিনিট পরে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুবার এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

৭)ডিম আর গ্লিসারিনের ফেসপ্যাক

ডিমের হলুদ অংশ বা কুসুম আলাদা করে নিন। তার মধ্যে গ্লিসারিন দিন আন্দাজমতো। ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এবার মুখে লাগান। চামড়ায় টান ধরলে ধুয়ে নিন। প্রতিদিন এই প্যাক ব্যবহার করা যায়।

 

৮)পেঁপে আর ক্যাস্টর অয়েল ফেসপ্যাক

পাকা পেঁপে চটকে তার মিধ্যে ক্যাস্টর অয়েল দিন আন্দাজমতো। এবার এই প্যাক মুখে লাগান। একটু পরে ধুয়ে নিন। রোজ এই প্যাক ব্যবহারযোগ্য।

ADVERTISEMENT

৯) অ্যাভোকাডো ফেসপ্যাক

আধ খানা পাকা অ্যাভোকাডো নিন আর সেটা চটকে তার সঙ্গে মেশান দু চা চামচ মধু। দশ মিনিট রেখে এই প্যাক ধুয়ে ফেলুন। সুন্দর ত্বকের জন্য এই প্যাক রোজ লাগাতে পারেন।

১০)ল্যাভেন্ডার ও আমন্ড অয়েল ফেসপ্যাক

আগের দিন রাত্রে মুসুর ডাল ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন সেটা বেটে নিয়ে তারমধ্যে ল্যাভেন্ডার অয়েল আর আমন্ড অয়েল মেশান পাঁচ থেকে ছয় ফোঁটা। প্যাক শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু’বার এটা ব্যবহার করুন।   

স্বাভাবিক ত্বকের জন্য ফেসপ্যাক

ADVERTISEMENT

pixabay

যাঁদের ত্বক স্বাভাবিক তাঁদের মতো সুখী মানুষ আর নেই। কারণ তাঁদের ত্বক নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। তাই যে কোনও উপাদান দিয়ে তাঁরা ফেসপ্যাক তৈরি করে ব্যবহার করতে পারেন। স্বাভাবিক ত্বকের জন্য সেরা দশটি প্যাকের সন্ধান দিচ্ছি আমরা।

১)পুদিনা ও হলুদের ফেসপ্যাক

Pixabay

ADVERTISEMENT

এক মুঠো পুদিনা পাতা ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন আর তার মধ্যে দিন এক চা চামচ হলুদ। এই প্যাক ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। রোজ এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

 

২)শসা ও চিনির ফেসপ্যাক

শসা কেটে কুচিয়ে নিন বা ব্লেন্ড করে নিন। এর মধ্যে বড় দানার চিনি মিশিয়ে মুখে লাগান। এটি প্যাক এবং স্ক্রাব দুটোরই কাজ করবে। রোজ এই প্যাক লাগাতে পারেন।

৩)লেবু আর মধুর ফেসপ্যাক

দুটো গোটা পাতিলেবু চিপে রস বের করুন। তার মধ্যে এক চা চামচ মধু দিন। আধ ঘণ্টা পর এই প্যাক ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিনবার এই প্যাক ব্যবহার করুন।

ADVERTISEMENT

৪)দই আর বেসনের ফেসপ্যাক

দই নিন এক কাপ। তার মধ্যে দিন দু টেবিল চামচ বেসন। ভাল করে ফেটিয়ে মুখে লাগান। একটু পরে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার করে এই প্যাক ব্যবহার করুন।

 

৫)স্ট্রবেরি ও লেবুর ফেসপ্যাক

দুটো বা তিনটে স্ট্রবেরি নিয়ে চটকে নিন। তার সঙ্গে পাতিলেবুর রস মেশান। এবার এই প্যাক মুখে, ঘাড়ে ও গলায় লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। একদিন ছাড়া ছাড়া এই প্যাক ব্যবহার করুন। 

 

ADVERTISEMENT

৬)ডিম আর মধুর প্যাক

pixabay

একটা গোটা ডিম ফেটিয়ে নিন ভাল করে। এর মধ্যে এক চা চামচ মধু দিন।এবার এই প্যাক ভাল করে লাগান মুখে। সপ্তাহে একবার এই প্যাক ব্যবহার করুন।

৭) চন্দন পাউডার ও গোলাপ জলের ফেসপ্যাক

একটা পাত্রে দু টেবিল চামচ চন্দন পাউডার নিন আর তার মধ্যে আন্দাজমতো গোলাপ জল দিন। দুটো  ভাল করে মিশিয়ে মুঝে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিনবার এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

ADVERTISEMENT

৮)পাকা টমেটোর ফেসপ্যাক

টমেটো চটকে মুখে লাগান। এর সঙ্গে আর কিছু মেশানোর দরকার নেই। টমেটো অ্যান্টি ট্যানিং এজেন্ট হিসেবে কাজ করে। এই প্যাক রোজ লাগাতে পারেন।

 

৯)দুধ আর মধুর প্যাক

ঘন দুধ আর মধু একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগান। ১০-১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনি সপ্তাহে দুইবার লাগাতে পারেন।

১০)কলার ফেসপ্যাক

পাকা কলা চটকে মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। রোজ এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।   

ADVERTISEMENT

মিশ্র ত্বকের জন্য ফেসপ্যাক

pixabay

রূপ বিশেষজ্ঞরা বলেন মিশ্র ত্বক সব সময় বেশি সমস্যাদায়ক। কারণ এই ত্বক অর্ধেক তৈলাক্ত আবার অর্ধেক শুষ্ক। ফলে অনেক বুঝে শুনে এই ত্বকের যত্ন নিতে হয়। সুতরাং এই জাতীয় ত্বক যাঁদের তাঁদের প্রয়োজন এমন ফেসপ্যাক যা কিছু জায়গায় অতিরিক্ত তেল নিঃসরণ নিয়ন্ত্রণ করবে আবার কিছু জায়গায় আর্দ্রতা যোগাবে এবং অবশ্যই ত্বকে সাম্য বজায় রাখবে।

ADVERTISEMENT

১)গাজর, অ্যালোভেরা ও মধুর প্যাক

Pixabay

গাজর সেদ্ধ করে চটকে নিন। তারমধ্যে অ্যালোভেরা জেল ও এক চা চামচ মধু দিন। এবার এই প্যাক মুখে লাগান। ২৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার এটা ব্যবহার করুন।

২)পেট্রোলিয়াম জেলি আর অ্যালোভেরার প্যাক

পেট্রোলিয়াম জেলির সঙ্গে বেশ খানিকটা অ্যালোভেরা চটকে রাখুন বা অ্যালোভেরা জেল দিয়ে মুখে লাগান। দারুণ উপকার পাবেন। রোজ এটা ব্যবহার করতে পারেন। এই প্যাক নাও ধুতে পারেন।

ADVERTISEMENT

৩) ওটমিল ও মধুর প্যাক

ওটমিল গুঁড়ো করে নিন আর তার মধ্যে দিন এক চা চামচ মধু। এবার এটা ভাল করে মিশিয়ে মুখে লাগান। আধ ঘণ্টা পরে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুইবার এটা ব্যবহার করতে পারেন।

৪)শসা ও দুধের সরের ফেসপ্যাক

দুধের সর আগে থেকে তুলে রাখুন। এবার শসা কেটে কুচিয়ে নিয়ে তার মিধ্যে এই সর দিয়ে প্যাক বানান। একটু পরে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে তিবার এই প্যাক ব্যবহার করবেন।

৫)বেসনের ফেসপ্যাক

বেসন ত্বকের জন্য খুব ভাল। এটি ত্বকের নানা সমস্যার সমাধান সহজে করে দেয়। তাই মুখে বেসন লাগালেও অনেক কাজ দেবে। এটা আপনি রোজ ব্যবহার করতে পারেন।

৬)মুলতানি মাটির প্যাক

মুলতানি মাটি এমনিতেই ত্বকের জন্য ভাল। তাই শুধু মুলতানি মাটি জলে গুলে লাগালেও খুব কাজে দেবে। এটা লাগিয়ে শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। রোজ এই প্যাক নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন।

ADVERTISEMENT

৭)মধু আর আপেলের ফেসপ্যাক

Pixabay

একটা আপেল অর্ধেক কেটে সেটা সেদ্ধ করে নিন বা চটকে নিন। এবার তার মধ্যে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে নিয়ে মুখে লাগান প্যাক হিসেবে। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। রোজ এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

৮)মধু আর দইয়ের ফেসপ্যাক

দুই টেবিল চামচ দইয়ের সঙ্গে দুই চা চামচ মধু একটা পাত্রে মিশিয়ে ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এবার এই প্যাক মুখে, ঘাড়ে ও গলায় লাগান। একটু পরে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবার এই প্যাক লাগান।

ADVERTISEMENT

৯)স্ট্রবেরি আর অ্যাভোকাডোর ফেসপ্যাক

দুটি স্ট্রবেরি নিন আর অর্ধেক পাকা অ্যাভোকাডো। এবার দুটো ফলই ভাল করে চটকে নিন। কুড়ি মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার এই প্যাক লাগান।

১০) হলুদ আর চন্দনের ফেসপ্যাক

এক চা চামচ হলুদ আর এক চা চামচ চন্দন পাউডার মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। প্যাক শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একদিন এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।  

ব্রণযুক্ত অনুভূতিপ্রবণ ত্বকের জন্য ফেসপ্যাক

ADVERTISEMENT

pixabay

যাঁদের ত্বক খুব বেশি অনুভূতিপ্রবণ এবং যাঁদের ত্বকে খুব বেশি অ্যাকনে দেখা যায় তাঁরা ত্বক নিয়ে চিন্তায় থাকেন। তাঁরা ভয়েতে ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে চান না। এমনটা করবেন না। আপনার চাই স্পেশ্যাল কেয়ার। যা আপনার ত্বকে অ্যাকনে বা ব্রণ কমিয়ে দেবে। অনুভূতিপ্রবণ হওয়ার দরুন আপনার ত্বকের জন্য ফেসপ্যাক অনেক ভেবে চিন্তে যত্ন নিয়ে করতে হবে।

১)মধু ও গাজরের ফেসপ্যাক

একটা বা দুটো গাজর সেদ্ধ করে চটকে তাতে এক চা চামচ মধু দিন। এই প্যাক দশ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। মাসে একবার এক প্যাক ব্যবহার করবেন।

২)ওটমিল ও দইয়ের প্যাক

ওটমিল মিহি করে গুঁড়ো করে নিন। এর মধ্যে দই দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে দিন। এবার সাবধানে এই প্যাক লাগান। ঘষতে যাবেন না ভুলেও। মাসে একবার এই প্যাক লাগান।

ADVERTISEMENT

৩)কলা, ডিম ও দইয়ের প্যাক

কলা চটকে রাখুন। তার মধ্যে ডিমের কুসুম দিন আর দই মেশান। এবার এটা ভাল করে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। মাসে দুবার এটা ব্যবহার করতে পারেন।

৪)হলুদ আর মধুর প্যাক

হলুদ বেটে নিতে পারেন বা পাউডার সামান্য জলে গুলে নিতে পারেন। এর সঙ্গে দিন এক চা চামচ মধু। সাবধানে এই প্যাক লাগান। হলুদ একটি অ্যান্টিসেপটিক। তাই এটি খুব কাজে দেবে। এটি আপনি তিন চারদিন পরপর ব্যবহার করতে পারেন।

৫) অ্যালোভেরা, হলুদ ও গ্রিন টির ফেসপ্যাক

অ্যালোভেরা ব্লেন্ড করে নিন বা জেল নিন। তার সঙ্গে হলুদ মেশান এবং এটি গ্রিন টিয়ে ডুবিয়ে দিন। এটা আপনি তুলোয় করে থুপে থুপে লাগান। গ্রিনটি এখানে মূল উপাদান। এটি মাসে তিন থেকে চারবার ব্যবহার করতে পারেন।

৬)রসুন ও মধু

ADVERTISEMENT

pixabay

গোটা একটা রসুন কোয়া ছাড়িয়ে থেঁতো করে নিন। এর মধ্যে মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে লাগান। এটা মূলত অ্যাকনে কমানোর জন্য। সপ্তাহে একবার করে এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

৭)ক্লে মাস্ক ও টি ট্রি অয়েল

ক্লে বা চিনে মাটির পাউডারের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা টি ট্রি অয়েল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটা আপনি খুব সাবধানে লাগাবেন। টি ট্রি অ্যাকনে কমিয়ে দেবে। এটা মাসে একবার ব্যবহার করুন।

৮)দুধ, লেবুর রস ও হলুদের প্যাক

ADVERTISEMENT

Pixabay

দুই টেবিল চামচ দুধ নিন। তার সঙ্গে এক টেবিল চামচ হলুদ আর কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। মাসে একবার এই প্যাক লাগান।

৯)মুলতানি মাটি ও দইয়ের ফেসপ্যাক

মুলতানি মাটি নিন দুই চা চামচ। এর মধ্যে দই মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে নিন। এই প্যাক মাসে একবার লাগাতে পারেন।

১০) আমন্ড বাদাম ও ডিমের প্যাক

কয়েকটা আমন্ড বাদাম আগের দিন ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন বাদাম বেটে নিয়ে তার মধ্যে ডিম দিয়ে ফেটিয়ে মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। মাসে তিনবার এটা ব্যবহার করুন।

ADVERTISEMENT

ফেসপ্যাক ব্যবহারের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

কোনও কিছুর আধিক্যই ভাল না। ঘন ঘন ফেসপ্যাক ব্যবহার করলে ত্বকের স্বাভাবিক বৃদ্ধি সৌন্দর্য নষ্ট হবে। তাছাড়া র‍্যাশ বা চুলকানিও দেখা দিতে পারে। একই উপাদান বারবার ব্যবহার করলে সেটি আপনার ত্বকে কাজ করা বন্ধ করে দেবে। সুতরাং ফেসপ্যাক ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ রেখে করা উচিত।

ফেসপ্যাক নিয়ে কিছু জরুরি প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন ১)কোন ফেসপ্যাক নিয়মিত ব্যবহার করা যায়?

উত্তর: মুলতানি মাটি বা কোনও সবজি বা ফল দিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক আপনি নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন।

প্রশ্ন ২)স্কিন টাইটনিং প্যাক বলে কি কিছু হয়?

উত্তর: অবশ্যই। যে সব উপাদান ত্বকের কোলাজেন বৃদ্ধি করে সেগুলো দিয়ে ফেসপ্যাক হলে সেটাই স্কিন টাইটনিং ফেসপ্যাক।

ADVERTISEMENT

প্রশ্ন ৩)ফেসপ্যাক ব্যবহারের আগে নিজের ত্বকের ধরন জেনে নেওয়া কি বাধ্যতামূলক?

উত্তর:  হ্যাঁ। নাহলে আপনার ত্বকে নানা রকমের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

প্রশ্ন ৪)বাড়িতে তৈরি নাকি বাজার থেকে কেনা কোন ফেসপ্যাক বেশি ভাল?

উত্তর: অবশ্যই বাড়িতে তৈরি ফেসপ্যাক। কারণ সেটিতে কোনও ক্ষতিকর বস্তু থাকে না।

প্রশ্ন ৫)সব রকমের ত্বকের জন্য কি অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক ভাল?

উত্তর: মোটামুটিভাবে অ্যালোভেরা সব রকমের ত্বকেই সমান কাজে দেয় এবং কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হয়না।

 

ADVERTISEMENT

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!
এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়…

22 Oct 2019

Read More

read more articles like this
good points

Read More

read more articles like this
ADVERTISEMENT
good points logo

good points text