home / চুলের রং
বাড়িতে তৈরি এই হেয়ার কালারগুলো দিয়ে চুল রং করুন

বাড়িতে তৈরি এই হেয়ার কালারগুলো দিয়ে চুল রং করুন

চুল রং করতে কার না ভাল লাগে! বিজ্ঞাপনের মডেল কিংবা পর্দার তারকাদের মতো নানা রংয়ে ঝলমলে, জেল্লাদার চুল হবে, তার জৌলুস দেখে চোখে ধাঁধা লেগে যাবে সকলের, এমনটাই তো হওয়া চাই। কিন্তু এই পিকচার পারফেক্ট ব্যাপারটিতে বাধ সাধে তিনটি জিনিস। (homemade natural hair colors)

  • এক, পার্লারে গিয়ে চুল রং করানোর হ্যাপা এবং খরচ, দুটোই বেশ বেশি।
  • দুই, রং করানো মানে আবার একাগাদা কেমিক্যালে ভর্তি প্রোডাক্ট ব্যবহার করা।
  • তিন, পোস্ট হেয়ার কালার চুলের যত্ন নেওয়ার জন্য আবার কালার গার্ডযুক্ত শ্যাম্পু-কন্ডিশনারের পিছনে টাকা খরচ করা।

এসব ভেবে চুলে রং করা থেকে অনেকেই পিছিয়ে আসেন। পাকা চুল পাকাই থেকে যায়, বড় জোর তাতে লাগে মেহন্দির রং। কিন্তু যদি ঘরেই তৈরি করে ফেলা যেত স্বাভাবিক কোনও হেয়ার কালার, যা প্রাকৃতিক এবং পকেট ফ্রেন্ডলিও বটে?

ওই দ্যাখো, এবার নড়েচড়ে বসেছেন তো? তা হলে সেই আলোচনাই সেরে ফেলা যাক। সম্পূর্ণ স্বাভাবিক প্রক্রিয়াতেই আপনি তৈরি করে ফেলতে পারবেন এখানে বলে দেওয়া চারটি হেয়ার কালার, যেগুলো দিয়ে অনায়াসে রং করে ফেলা যাবে চুল। (homemade natural hair colors)

১। ব্লন্ড কালার করাতে চান?

কী-কী লাগবে: এক টেবিলচামচ লেবুর রসে দুই টেবিলচামচ জল, এভাবে পরিমাণমতো মিশ্রণ তৈরি করুন, একটি জল স্প্রে করার বোতল

পদ্ধতি: এই মিশ্রণটি শ্যাম্পু করা চুলে ভাল করে স্প্রে করুন। তারপর রোদে বসে থাকুন কিংবা ব্লো ড্রাই করে চুল শুকিয়ে নিন। সপ্তাহে একবার এভাবে চুলে রং করতে পারেন। তবে এতে পাকা চুলে রং ধরবে না। কালো চুলের রং যাঁরা হালকা সোনালি করতে চান, তাঁদের জন্য এটি চলবে।

২। লাইট ব্রাউন কালার করাতে চান?

কী-কী লাগবে: একটা কাপ হেনা, এক কাপ জল

পদ্ধতি: হেনা ভাল করে জলে গুলে তা একটি হেয়ার ব্রাশে করে চুলের প্রতিটি গুছিতে লাগান। যতক্ষণ না শুকোচ্ছে, ধোবেন না। হেনার রং সাধারণত প্রায় মাসখানেক থাকে। তবে রং হালকা হতে শুরু করেছে মনে হলে আবার করে নিন।

৩। ডার্ক ব্রাউন কালার করাতে চান?

কী-কী লাগবে: এক টেবিলচামচ কফি, পরিমাণমতো জল

পদ্ধতি: জলে কফিটা ভাল করে গুলে নিন, একটুও যেন দানা-দানা না থাকে। তারপর মিশ্রণটি ফুটতে দিন, যতক্ষণ না সেটি মরে গিয়ে এক-তৃতীয়াংশ হয়ে যাচ্ছে। এই মিশ্রণটি শ্যাম্পু করা চুলে ভাল করে মেখে রাখুন প্রায় ঘণ্টাখানেক। তারপর মাইল্ড কোনও ন্যাচারাল শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। যদি দেখেন হালকা রং ধরেছে, তা হলে আরও একবার এভাবে রং করতে পারেন। এই পদ্ধতিতে সপ্তাহে অন্তত বারদুয়েক রং করতে হবে।

কমলা কালার করাতে চান?

কী-কী লাগবে: একটা গাজরের রস, কয়েক চামচ নারকেল তেল

পদ্ধতি: গাজরের রসের সঙ্গে ক্যারিয়ার অয়েলটি ভাল করে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি শ্যাম্পু করা চুলে ভাল করে মেখে রাখুন প্রায় ঘণ্টাখানেক। তারপর মাইল্ড কোনও ন্যাচারাল শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মোটামুটি দিনকুড়ি থেকে মাসখানেক এই রং থাকবে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

15 Nov 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text