Advertisement

ডি আই ওয়াই লাইফ হ্যাকস

চুল ও ত্বকের সমস্যা এড়াতে কতদিন অন্তর বিছানার চাদর কাচবেন

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Apr 29, 2020
চুল ও ত্বকের সমস্যা এড়াতে কতদিন অন্তর বিছানার চাদর কাচবেন

যদিও ব্যাপারটা খুবই ছোট্ট, কিন্তু অনেক সময়ই আমরা এই ছোট্ট বিষয়টিকে ‘তুচ্ছ’ মনে করে এড়িয়ে যাই; আর তখনই দেখা যায় নানা সমস্যা। অনেক সময়ই আমাদের চুলে খুশকি হয় বা ত্বকে র‍্যাশ বেরোয়, আর দোষ হয় শ্যাম্পু, সাবান ও ক্রিমের। তারপরেই ছুটি ডাক্তারের কাছে অথবা নানা পরীক্ষা চালাই ঘরোয়া টোটকার সাহায্যে। কিন্তু আসল দোষী অনায়াসে ছাড়া পেয়ে যায়। ভাবছেন তো কী বলছি! আসলে বিছানার চাদর (bedsheets) বা বালিশের কভার (pillow covers) যদি নিয়মিত বদলানো না হয়, তা থেকেও কিন্তু অনেক সময় চুলের ও ত্বকের নানা সমস্যা দেখা দেয়। শুধু তাই নয়, অনেক সময় ময়লা বিছানার চাদর ও বালিশের কভারের থেকে শ্বাসকষ্টও হয়। কাজেই নিয়মিত এই দুটো জিনিস কেচে (wash) পরিষ্কার করা প্রয়োজন।

বিছানার চাদর ও বালিশের কভার ঠিক কতদিন অন্তর কাচা উচিত

আমরা যখন বিছানায় শুই তখন আমাদের শরীরের নানা ময়লা ও ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র জীবাণু ও চামড়ার অংশ চাদরে ও বালিশের কভারে লেগে যায়। কিন্তু এগুলো এতটাই ক্ষুদ্র যে খালি চোখে দেখাই যায় না। ফলে আপনি একদম নিশ্চিন্ত হয়ে থাকেন। একবার শোওয়ার আগে যদিও বা বিছানার চাদর ঝেড়ে নেন, বালিশের কভার কিন্তু সচরাচর ঝাড়া হয় না। ফলস্বরূপ, ময়লা আবার আপনার চুলে ও ত্বকে গিয়েই জমা হয়। এরপরে শুরু হয় চুলকানি বা র‍্যাশের মতো নানা সমস্যা। কাজেই অন্তত পনেরো দিনে একবার গরম জলে চাদর ও বালিশের কভার অবশ্যই কেচে নিন।

ছবি সৌজন্য – পেক্সেলস

অনেকেই বলবেন যে সারা দিনে মাত্র ছয় বা আটঘন্টা তো বিছানায় শোওয়া হয়, তাহলে এত ময়লা কীভাবে হতে পারে! কিন্তু এটা কীভাবে ভুলে যাচ্ছেন যে বিছানায় শোওয়ার পর চাদরে আপনার শরীরের ঘাম লেগে যাচ্ছে, আবার বালিশের কভারে অনেক সময় আমাদের মুখের লালাও নিঃসৃত হয়। এছাড়াও সারাদিন জানালা খোলা থাকায় হাওয়ার সঙ্গে বাইরের ধুলোও এসে জমা হয় বিছানায়। আপনি যতই শোওয়ার আগে বিছানা ঝাড়ুন না কেন, কিছু কিছু ময়লা থেকেই যায়।

আপনার বাড়িতে যদি পোষ্য থাকে এবং সে যদি আপনার সঙ্গেই একই বিছানায় শোয়, সেক্ষেত্রে কিন্তু সপ্তাহে একবার করে বিছানার চাদর, বালিশের কভার ও গায়ে দেওয়ার চাদর অবশ্যই কাচতে হবে। পোষ্যের লোম থেকেও প্রচুর ময়লা ও জীবাণু চাদরে ও বালিশে লেগে যায়।

আপনার সেক্স লাইফ যদি খুব অ্যাক্টিভ হয় সেক্ষেত্রে সম্ভব হলে দু’দিন অন্তর চাদর কেচে নিন। যদি তা সভব না হয় তাহলে মিলনের সময়ে ব্যবহার করার জন্য আলাদা একটি চাদর রাখুন এবং পরে তা কেচে নিন।

তাছাড়া অনেকেরই ত্বক খুব সংবেদনশীল হয়, তাঁদের কিন্তু নিয়মিত বিছানার চাদর, গায়ে দেওয়ার চাদর এবং বালিশের কভার গরম জল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান দিয়ে কাচা উচিত।

ছবি সৌজন্য – পেক্সেলস

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!