Advertisement

রূপচর্চা ও বিউটি টিপস

আপনার ত্বকের জন্য সঠিক টোনার বাছবেন কীভাবে?

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Oct 12, 2021
আপনার ত্বকের জন্য সঠিক টোনার বাছবেন কীভাবে?

Advertisement

প্রত্যেকটি মেকআপের বস্তুর ব্যবহারের কিছু সঠিক পদ্ধতি আছে। ঠিক তেমনই ত্বকের যত্ন নিতে আমরা যা যা ব্যবহার করি সেগুলোরও কিছু সঠিক পদ্ধতি আছে। আমাদের এক-একজনের ত্বক এক এক রকম। সুতরাং ত্বকের ধরন যদি ভিন্ন প্রকৃতির হয় তা হলে ত্বকের যত্নে ব্যবহৃত বস্তু নিয়মাবলী এক রকম হবে না। টোনারের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য টোনার ব্যবহারেরও নিয়ম আছে। তাই বিভিন্ন রকমের ত্বকের ক্ষেত্রে টোনারের ব্যবহার (Face Toner Uses) হবে ভিন্ন রকমের। 

টোনার কী?

টোনার হল এমন একটি বস্তুন যা আপনার ত্বক ‘টোন’ করে। অর্থাৎ আপনার ত্বকের ছিদ্রে যে ময়লা জমে থাকে সেগুলোকে বাইরে বের করে আনে টোনার। শোনা যায়, প্রাচীন ফ্রান্স আর ইরানের মহিলারা কলের জলে মুখ ধুতেন না। তাঁরা এক বিশেষ ধরনের জল ব্যবহার করতেন। কালক্রমে সেটাই টোনারের চেহারা নিয়েছে। টোনার শুধু ত্বকের ছিদ্র পরিষ্কার রাখে না, এটি জীবাণু প্রতিরোধ করে। ত্বকের আর্দ্রতা ও পিএইচ ব্যালান্সও রক্ষা করে।

ত্বক শুষ্ক হলে

টোনার ব্যবহার করতে গেলে, সেটা সব রকমের ত্বকের ক্ষেত্রে দুটো ভাবে করা যায়। তুলোর বলে টোনার নিয়ে সেটা মুখে লাগানো যেতে পারে। আবার পরিষ্কার হাতের তালুতে অল্প টোনার নিয়ে মুখে লাগানো যেতে পারে। যাঁদের ত্বক শুষ্ক, তাঁরা ভাবেন তাঁরা আদৌ টোনার লাগাতে পারেন কিনা। ত্বক শুষ্ক হলে অবশ্যই হাইড্রেটিং টোনার ব্যবহার করবেন। যেমন, গোলাপ জল বা রোজ ওয়াটার এবং ভিটামিন ই যুক্ত টোনার ব্যবহার করতে হবে।

ত্বক তৈলাক্ত হলে

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য টোনার হল একটি আশীর্বাদ। তৈলাক্ত ত্বকের টোনার বলতে যদি আপনি টি-ট্রি অয়েলযুক্ত টোনার ব্যবহার করেন সেটা তৈলাক্ত ত্বকের জন্য আদর্শ হবে। কারণ, এই জাতীয় টোনার ত্বকের বাড়তি তেল শুষে নেবে এবং জীবাণু সংক্রমণ প্রতিরোধ করবে। টোনার (Toner For Oily Skin) কেনার সময় দেখে নেবেন তাতে টি-ট্রি অয়েল আছে কিনা। এমনিতেও টোনারের মধ্যে থাকে গ্লাইকোলিক ও স্যালিসাইক্লিক অ্যাসিড যা তৈলাক্ত ত্বকের পক্ষে ভাল।

ত্বক স্বাভাবিক হলে

টোনারের মধ্যে যা-যা উপাদান আছে, তার প্রত্যেকটাই অত্যন্ত কার্যকরী। যেমন, বিভিন প্রকারের অ্যাসিড, হিউমিকট্যান্ট ইত্যাদি। টোনারের শিশির গায়ে লেখা থাকবে তার মধ্যে কী-কী উপাদান আছে। আপনার ত্বক যদি স্বাভাবিক হয় এবং ত্বকে যদি বিশেষ কোনও সমস্যা না থাকে, তা হলে আপনি সব রকমের টোনার ব্যবহার করতে পারেন।তবে আপনার ত্বকের ছিদ্র যদি বড় আকারের হয় তা হলে আলফা হাইড্রক্সি অ্যাসিডযুক্ত টোনারের ব্যবহার করুন। ত্বকে উজ্জ্বল আভা আনতে হলে পেঁপের নির্যাস ও ল্যাকটিক অ্যাসিডযুক্ত টোনার হল আদর্শ। 

ত্বক অ্যাকনেপ্রোন হলে

যাঁদের ত্বকে খুব বেশি অ্যাকনে হয় এবং যাঁদের ত্বক খুব সেনসিটিভ বা অনুভূতিপ্রবণ, তাঁরাও টোনার ব্যবহার করতে পারেন। ক্যামোমাইলযুক্ত টোনার (Best Toner for Acne) ব্যবহার করতে হবে এতে ত্বকে জ্বালাভাব কমবে। অ্যাকনে থাকলে অবশ্যই ব্যবহার করবেন অ্যালোভেরাযুক্ত টোনার।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!