ডি আই ওয়াই লাইফ হ্যাকস

বাড়ির বিভিন্ন কাচের জিনিসপত্র সহজেই কীভাবে নতুনের মতো ঝকঝকে রাখবেন

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Aug 7, 2019
বাড়ির বিভিন্ন কাচের জিনিসপত্র সহজেই কীভাবে নতুনের মতো ঝকঝকে রাখবেন

কাচের জিনিসপত্র নতুন অবস্থায় দেখতে যতটা ভাল লাগে পরিষ্কার না রাখলে কিন্তু ক’দিন পরেই দেখতে ঠিক তততাই খারাপ লাগে। ইদানীং মোটামুটি সব বাড়িতেই দরজা-জানালা থেকে শুরু করে কিছু-কিছু বাসনপত্র এবং আসবাব, সবই কাচের। তার একটাই কারণ, দেখতে খুব সুন্দর লাগে কাচের জিনিস। প্রথমদিকে বেশ ঝকঝক করে, কিন্তু নিয়মিত পরিষ্কার না করলেই কিন্তু কাচের জিনিসে ক’দিন পর একটা আস্তরণ পড়ে যায় এবং তখনই দেখে মনে হয় খুব পুরনো। আপনি হয়তো ভাবছেন যে প্রতিদিনই তো আপনি পরিষ্কার করেন ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় ব্যয় করে, কিন্তু কই, কাচের (glass) দরজা-জানালা থেকে শুরু করে আসবাব বা বাসন, কোনওটাই তো ঝকঝক করে না আর আগের মতো? তার কারণ পরিষ্কার করার পদ্ধতিতে সমস্যা রয়েছে। কীভাবে বাড়িতে থাকা (household) কাচের নানা জিনিস পুরনো হয়ে গেলেও নতুনের মতো ঝকঝকে রাখবেন জেনে নিন টুক করে!

কাচের আসবাব কীভাবে পরিষ্কার করবেন

শাটারস্টক

আমাদের অনেকের বাড়িতেই নানা রকম কাচের আসবাব থাকে, যেমন, সেন্টার টেবিল থেকে শুরু করে বুকশেলফ। যখন নতুন থাকে আসবাবগুলি, তখন তো বেশ চকচক করে, দেখতেও সুন্দর লাগে, কিন্তু একটু পুরনো হয়ে গেলেই কেমন একটু ঘোলাটে হয়ে যায়। কাচের আসবাব পরিষ্কার করার আগে একটা পাতলা এবং নরম সুতির পরিষ্কার শুকনো কাপড় দিয়ে আগে ধুলো ঝেড়ে নিন। এরপর কাচ পরিষ্কার করার কোনও লিকুইড আসবাবে প্রে করে নিন এবং অন্য একটি পাতলা ও নরম সুতির কাপড় মুছে নিন। মোছার সময়ে খেয়াল রাখবেন যেন স্ট্রোক একই দিকে থাকে, অর্থাৎ ঘষে-ঘষে মুছবেন না, এতে কাচে দাগ পড়তে পারে।

কাচের বাসন ঝকঝকে রাখার উপায়

কাচের বাসন পরিষ্কার রাখাটা সত্যিই বড় জ্বালা! অথচ দেখুন, আজকাল বেশিরভাগ বাড়িতেই মাইক্রোওয়েভে রান্না হয়, তা না হলেও অন্তত খাবার গরম তো তাতেই হয়, ফলে সেক্ষেত্রে মাইক্রোওয়েভ সেফ কাচের বাসনই ব্যবহার করতে হয়। রেগুলার বাসন মাজার সাবান দিয়ে কিন্তু কাচের বাসন মাজবেন না। বাসন মাজার জন্য লিকুইড সোপ পাওয়া যায়। সেগুলি দিয়েই কাঁচের বাসন মাজুন। বাসন মাজার জন্য কখনওই খড়খড়ে কোনও স্ক্রাবার ব্যবহার করবেন না। স্পঞ্জ বা নাইলনের স্ক্রাবার ব্যবহার করুন। এতে বাসনে চিড় ধরবে না।

শাটারস্টক

আমাদের বাঙালি বাড়িতে যতই স্বাস্থ্যকর রান্না হোক না কেন, তেল-মশলা ছাড়া রান্না তো আর হয় না। আর কাচের বাসনে তেল লেগে থাকে অনেক সময়েই। উষ্ণ গরম জলে সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে কাচের বাসনগুলি ডুবিয়ে রাখুব কিছুক্ষন। জল যেন খুব বেশি গরম না হয়। তা হলে কিন্তু কাচের বাসন ভেঙে যেতে পারে। এরপর লিকুইড সাবান স্পঞ্জ বা নাইলনের স্ক্রাবারে লাগিয়ে বাসন মেজে নিন এবং জল দিয়ে ধুয়ে নিন। জল ঝরে যাওয়ার সঙ্গে-সঙ্গেই পরিষ্কার কোনও নরম তোয়ালে বা সুতির কাপড় দিয়ে বাসন মুছে রেখে দিন। এতে জলের দাগ বসে যাবে না।

যদি আপনার বাড়িতে ওয়াইন গ্লাস বা অন্য কোনও পানীয়ের জন্য ব্যবহৃত কাচের গ্লাস থাকে, সেগুলি কিন্তু ভুলেও লিকুইড সাবান দিয়ে পরিষ্কার করবেন না। সামান্য ঊষ্ণ জলে পাতিলেবু স্লাইস করে কেটে রেখে দিন এবং তারপরে কাচের গ্লাস ডুবিয়ে নিন এবং জল দিয়ে ধুয়ে শুকনো নরম কাপড় দিয়ে মুছে আবার জায়গামতো তুলে রেখে দিন। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!