home / রিলেশনশিপ
মৃত সম্পর্ককে অযথা বয়ে বেড়ানোর কোনও মানে হয় কি? in bengali

পাকা কথার পর বিয়ে ভেঙে গেছে? মন শক্ত করার উপায় জানাচ্ছি আমরা

কথায় বলে, লাখ কথা না হলে নাকি বিয়ে হয় না! উঁহু, একটু পাল্টে দেওয়া যাক ব্যাপারটা। অনেকসময় লাখ কথা হলেও নাকি বিয়ে হয় না। কখনও পাকাপোক্ত বিয়ে ভেস্তে যায়। আর বিয়ে ব্যাপারটা এখনও ভারতীয় মেয়েদের জন্য এতটাই স্পর্শকাতর, যে এক্ষেত্রে যে-কোনও সময়ই একটু এদিক থেকে ওদিক হলেই তাঁরা ভেঙে পড়েন। আর তাতে ইন্ধন জোগানোর জন্য সমাজ-আত্মীয়স্বজন-পরিবার-প্রতিবেশী তো আছেই। (how to deal with broken rishta)

তাই বিয়ে হয়ে সেই বিয়ে কোনও কারণে ভেঙে যাওয়াটা  যতটা কষ্টকর, বিয়ের কথা অনেক দূর এগিয়ে সেটা না হওয়াটাও আমাদের জন্য প্রায় সমান কষ্টের। কিন্তু সেই কষ্ট নিয়ে বসে থাকলে তো হবে না। তাই চলুন আমরা দেখে নিই, এই দ্বিতীয় ব্যাপারটির ক্ষেত্রে কীভাবে মনখারাপ কিংবা ভেঙে পড়াটা কাটিয়ে ওঠা যেতে পারে। এখানে রইল জরুরি পাঁচটি টিপস

হতে পারত শ্বশুরবাড়ির সঙ্গে এক্কেবারে যোগাযোগ নয়

একেবারেই নয়। আপনার হতে-হতে ফসকে যাওয়া কোনও জা কিংবা ননদ এই ক’দিনের আপনার ভারী বন্ধু হয়ে গিয়েছিল? ভাল কথা। কিন্তু এবার তাঁকে ভুলে যান। মনে রাখবেন, তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক কিন্তু সেই বিয়ের সূত্রেই হচ্ছিল, যেটা এখন ভেস্তে গিয়েছে। একই কথা প্রযোজ্য সেই পরিবারের বাকি সদস্যদের ক্ষেত্রে। যাঁদের সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক এগোয়নি, তাঁদের সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক বজায় রাখার কোনও মানে হয় না। (how to deal with broken rishta)

ব্যাপারটাকে হাস্যকর করে তুলবেন না

আপনার বিয়েটি লাভ অথবা অ্যারেঞ্জড, যেভাবেই ঠিক হোক না কেন, যদি তা পরিণতি পাওয়ার আগেই শেষ যাত্রায় যায়, দয়া করে সেটি নিয়ে কেঁদেকেটে কিংবা লোকজনের কাছে অযথা কৈফিয়ত দেওয়ার চেষ্টা করে নিজেকে হাস্যকর করে তুলবেন না। যা ভেঙে গিয়েছে, সেটা ভাঙারই ছিল। খামোকা তার জন্য নিজের মানসম্মান নষ্ট করে নিজেকে ধুলোয় মেশাবেন কেন? বরং, নিজের ডিগনিটি বজায় রাখুন। বিয়ের কথাবার্তা শুরু হওয়ার পর থেকে যদি হবু বরের কিংবা শ্বশুরবাড়ির কাছ থেকে কোনও উপহার পেয়ে থাকেন, সেগুলি ফেরত পাঠান। কিন্তু নিজের দেওয়া কোনও উপহার ফেরত চেয়ে নিজেকে ছোট করবেন না। ওটা অন্য পক্ষের বিচারবুদ্ধির উপর ছেড়ে দিন।

নিজের যত্ন করা শুরু করুন

পাকা কথা হয়েও বিয়ে ভেঙে যাওয়াটা হবু কনের জন্য যতটা কষ্টকর, ততটা আর কারও জন্য নয়। তাই অন্য কাজ ফেলে আগে নিজের দিকে মন দিন। যদি চাকুরিরতা হন, তা হলে কিছুদিন কাজের দিকে একটু বেশি ঝুঁকুন। এতে কেরিয়ারেরও উন্নতি হবে, প্লাস হাবিজাবি কথা ভাবারও সময় পাবেন না। যদি চাকরি না করেন, তা হলে যা করতে আপনার বেশি ভাল লাগে, সেটাই করুন। সেটা নতুন ডিশ রান্না থেকে শুরু করে আঁকিবুকি, গানবাজনা, যা কিছু হতে পারে। মোট কথা, কাজের মধ্যে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন, তা হলেই আর অন্য দিকে মন যাবে না। (how to deal with broken rishta)

সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝগড়া নয়

আজকাল তো সোশ্যাল মিডিয়ার যুগ। আমরা সকলেই নিজেদের জীবনের খুঁটিনাটি বিষয়ে মিডিয়ায় আপডেট দিতে পছন্দ করি। বিয়ে ঠিক হওয়ার পরে আপনিও যদি সেটি করে থাকেন, তা হলে ভেঙে যাওয়ার পরেও সেই আপডেট দিতে ভুলবেন না। এনগেজড স্টেটাস বদল করলে দুঃখ হতে পারে, কিন্তু এটা করতে পারলে আপনি অনেক বেশি ট্রান্সপারেন্ট থাকবেন, সেটাও মাথায় রাখুন। বরং লিখে দিতে পারেন, এই সংক্রান্ত কোনও প্রশ্ন আপনি পেতে চান না। তা হলেই আশা করা যায়, কেউ আর আপনাকে অযথা প্রশ্নবাণে জর্জরিত করবে না। তবে দয়া করে কিছুদিনের জন্য হলেও সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরে পালিয়ে যাবেন না। এতে নিন্দুকের মুখ আরও বেশি চওড়া হবে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

20 Oct 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text