Advertisement

কোরিয়ান বিউটি প্রোডাক্ট

ঘরে বসেই মাত্র দু’মিনিটে পেতে পারেন ফেসিয়ালের মত গ্লো

Debapriya BhattacharyyaDebapriya Bhattacharyya  |  Jul 30, 2020
ঘরে বসেই মাত্র দু’মিনিটে পেতে পারেন ফেসিয়ালের মত গ্লো

Advertisement

কী ভাবছেন, দু’মিনিটে (2 minutes) ফেসিয়াল (facial)? আরে, আমি একটুও মজা করছি না। সত্যিই আপনি মাত্র দু’মিনিটে ফেসিয়াল করে ফেলতে পারেন। তাহলে ব্যাপারটা খুলেই বলি –

নিয়মিত যারা ত্বকের যত্ন নেন না বা বলা ভাল নিতে পারেন না, তাঁদের নানারকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। নিষ্প্রাণ ত্বক, অ্যাকনে, বলিরেখা, ফাইন লাইন ইত্যাদি নানা সমস্যা। এর সঙ্গে অনেকেরই ব্ল্যাকহেডসের সমস্যাও দেখা দেয়। ত্বকের এই প্রতিটি সমস্যাই কিন্তু একটা কারণেই হয় – ত্বকের ভিতরে ও লোমকূপে জমে থাকা ময়লার জন্য। অনেকেই নিয়মিত মেকআপ করেন বা নানা প্রসাধনী ব্যবহার করেন। বেশিরভাগ সময়ে মুখ ধুলেও মেকআপ বা অন্য প্রসাধনী ঠিকভাবে পরিষ্কার করা হয়ে ওঠে না। তা জমতে থাকে ত্বকের ভিতরে। এছাড়া দূষণ, ধুলো-ময়লা তো রয়েছেই! কেউ কেউ জানেন না ঠিক কীভাবে ধাপে ধাপে ত্বক পরিষ্কার করতে হয়, আবার কেউ কেউ জানলেও করেন না বা সময়ের অভাবে করতে পারেন না। তবে কারণ যাই হোক না কেন, আপনি যদি মাত্র দু’মিনিট সময় বার করতে পারেন, তাহলেই কিন্তু ত্বক গভীরভাবে পরিষ্কার করতে পারবেন – ডবল ক্লেনজিং-এর (double cleanser) সাহায্যে।

ডবল ক্লেনজিং কী

ডবল ক্লেনজিং হল এমনভাবে ত্বক পরিষ্কার করার উপায় যাতে আপনার ত্বকের শুধু উপর থেকে না, গভীর থেকেও ময়লা টেনে বার করে ত্বক পরিষ্কার করা হয়। আদতে এটি কোরিয়ান পদ্ধতি। রূপচর্চার ক্ষেত্রে কোরিয়ান পদ্ধতি অনেকদিন ধরেই জনপ্রিয়। আর এই ডবল ক্লেনজিং-এর সাহায্যে শুধু ত্বকের যত্নই না, আপনি ত্বকের নানা সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়ে যাবেন অনায়াসে। ফেসিয়াল করতে যেমন অনেক সময় লাগে এবং সত্যি বলতে কী, একা একা বাড়িতে ফেসিয়াল করাটাও খুব সহজ ব্যাপার নয়; কিন্তু ডবল ক্লেনজিং পদ্ধতিতে ত্বক পরিষ্কার করলে আপনি ঠিক ফেসিয়ালের মতই গ্লো পাবেন। এতে দু’রকমভাবে ত্বক পরিষ্কার করা হয়। প্রথমে অয়েল বেসড ক্লেনজার দিয়ে মেকআপ, ধুলো বা ত্বকের উপরে জমে থাকা প্রসাধনী পরিষ্কার করা হয়; এবং পরে ওয়াটার বেসড ক্লেনজার দিয়ে ত্বকের গভীরে জমে থাকা ময়লা বার করা হয়।

জেনে নিন দু’মিনিটে কিভাবে ফেসিয়ালের গ্লো পাবেন

প্রথম ধাপে আপনাকে ত্বকের উপরের মেকআপ, প্রসাধনী ও ময়লা পরিষ্কার করতে হবে। আপনি চাইলে ক্লেনজিং ওয়াইপস, ক্লেনজিং মিল্ক বা মেকআপ রিমুভার ব্যবহার করতে পারেন। যদি আপনি খুব বেশি মেকআপ করে থাকেন বা ত্বকে প্রচুর প্রসাধনী লাগিয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে চাইলে মিসেলার ওয়াটার দিয়েও ত্বক পরিষ্কার করতে পারেন।

ডবল ক্লেনজিং-এর দ্বিতীয় ধাপে ত্বকের গভীরেরে ময়লা পরিষ্কার করা হয়। সাধারণত আমরা হাত দিয়েই মুখ পরিষ্কার করি। কিন্তু তাতে ত্বকের গভীরে পরিষ্কার হয় না। আপনি চাইলে ফেসিয়াল ক্লেনজার ব্রাশ বা বল ব্যবহার করতে পারেন। যে কোনও ওয়াটার বেসড ক্লেনজার এই ব্রাশে বা বলে লাগিয়ে, মেশিনটি চালু করে সারা মুখে এক মিনিটের জন্য বুলিয়ে নিন। এক মিনিটের বেশি করবেন না। এই ফেসিয়াল ক্লেনজার ব্রাশ ও বলগুলি শুধু ত্বক পরিষ্কার করে না; এক্সফোলিয়েট করে লোমকূপের মধ্যে জমে থাকা ময়লাও টেনে বার করে। ত্বক হয়ে ওঠে উজ্জ্বল, কোমল এবং অ্যাকনেমুক্ত।

মূল ছবি – ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!