home / লাইফস্টাইল
লকডাউনে শিশুর মন ভাল রাখার জন্য বাড়িতে কী কী করতে পারেন অভিভাবকরা

লকডাউনে শিশুর মন ভাল রাখার জন্য বাড়িতে কী কী করতে পারেন অভিভাবকরা

সারাদিন ঘরে থাকতে কার ভাল লাগে বলুন দেখি! কিন্তু কী আর করা যাবে, প্য়ানডেমিক পরিস্থিতিতে ঘরে থাকা ছাড়া উপায় কী। বড়দেরই মন খারাপ হয়ে যায়, একঘেয়ে লাগে। তাহলে বাচ্চাদের আর দোষ কোথায়? এক বছরের বেশি সময় ধরে আজ তাদের স্কুল যাওয়া বন্ধ। টিফিনে বন্ধুদের সঙ্গে খেলাধুলো বন্ধ। বিকেল হলেও খেলতে যাওয়া বন্ধ। সারাদিন খালি বাড়িতে বসে ক্লাস করা আর পড়াশোনা করা। তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই তাদের স্মার্টফোন ও টিভির প্রতি আসক্তি বাড়ছে। যে সময়ে পার্কে ছুটে বেড়ানোর কথা ছিল, সেই সময়টাই বাড়িতে থাকতে হচ্ছে তাদের(kids during lockdown)। মনও খারাপ করবে। বেশি স্মার্টফোন ব্যবহার করার জন্য বকাবকি করছেন বাবা ও মায়েরা। কিন্তু বকাবকি করবেন না। এই সময় তাদের মনের পরিস্থিতি একবার ভাবুন তো! তাহলে কীভাবে বাচ্চাদের মন ভাল (kids) রাখা যায়। কী করলে তাদেরও একঘেয়ে লাগে না, আবার আপনারও কিছুটা চিন্তা কমে।

 

 

তাহলে জেনে নিন লকডাউনে বাচ্চার মন কীভাবে ভাল রাখবেন

তাঁদের সঙ্গে নিয়ে কোনও নাটক পরিবেশন করতে পারেন

ধরুন আপনার বাচ্চার একটি পছন্দের গল্প আছে। যেমন নুড়ি ফেলে কাকের জল খাওয়ার গল্প। এই গল্পটাকে নিয়েই নাটক আকারে বাচ্চার সঙ্গে পরিবেশন করুন। এরকম অন্য়ান্য গল্পও ট্রাই করতে পারেন। ছোট ছোট গল্প বেছে নেবেন। এতে বাচ্চার শারীরিক পরিশ্রমও হবে। আপনারও শারীরিক পরিশ্রম হবে। আপনার শিশুর মন ভাল থাকবে। তার একঘেয়ে লাগবে না। মনে রাখবেন, স্মার্টফোন হাত থেকে সরিয়ে দেওয়ার আগে তার কাছে একটা বিকল্প তুলে দেওয়া আপনারই দায়িত্ব।

কোনও ধাঁদা সমাধান করতে দিন

পাজল গেম পাওয়া যায়। পাজলের অংশ জুড়ে জুড়ে পৃথিবীর ম্যাপ হল বা কোনও ছবি তৈরি হল। সেরকম খেলা নিয়ে শিশুকে বসিয়ে দিন। একটি নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দিন। সেই সময়ের মধ্যে করতে পারলে একটি ছোট্ট উপহারও দিতে পারেন। এতে ওর মধ্যে খেলার ইচ্ছেও থাকবে। যদিও সময়ের মধ্যে(kids during lockdown) সম্পূর্ণ না করতে পারে তাহলেও একটি স্বান্তনা পুরস্কার দেবেন। এতে ওর মধ্য়ে খেলার জন্য আরও ইচ্ছে থাকবে।

অডিয়ো বুক শোনাতে পারেন

অনলাইন ক্লাস করার পর শিশুর আবার বই পড়তে নাও ভাল লাগতে পারে। সেই জন্য আপনি অডিয়ো বুক শোনাতে পারেন। অডিয়ো বুকে যেরকম নাটকীয় ভাবে গল্প পাঠ করা হবে, তা আপনার শিশুর ভাল লাগবে। সে উপভোগ করবে।

ছবি আঁকতে দিন

আমার নিজের যখন ছোটবেলায় একা লাগত বা মন খারাপ লাগত আমি রং করার খাতা নিয়ে বসে যেতাম। না আমার মা রং পেনসিল হাতে তুলে দেননি। আমি নিজেই আঁকতাম। এতে আমার মন ভাল হত। বড় হয়েও আমি সেই পদ্ধতি মেনে চলি। আপনার শিশুকে রং পেন্সিল কিনে দিন। আঁকার খাতা দিন(kids during lockdown)। মনের মতো আঁকতে বলুন। এতে আপনার শিশুর মনও (kids)ভাল হবে, আর তার আঁকার দক্ষতাও বাড়বে।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

25 Jun 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text